Opu Hasnat

আজ ২০ ফেব্রুয়ারী বৃহস্পতিবার ২০২০,

ব্রেকিং নিউজ

প্রশ্নপত্র ফাঁসে জড়িত থাকার অভিযোগ শিক্ষকসহ ৪ জনকে কারাদন্ড নড়াইল

প্রশ্নপত্র ফাঁসে জড়িত থাকার অভিযোগ শিক্ষকসহ ৪ জনকে কারাদন্ড

নড়াইলের কালিয়া উপজেলায় এসএসসি পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁসে জড়িত থাকার অভিযোগে শিক্ষকসহ ৪ জনকে এক মাস করে কারাদন্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। দন্ডপ্রাপ্তরা হলেন, উপজেলার বড়দিয়া বহুমূখি উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আশিকুজ্জামান, স্পিট কম্পিউটার দোকান মালিক অসিত দাস ও তার সহযোগি মিঠুন এবং শরজিৎ। 

মঙ্গলবার (১১ ফেব্রুয়ারী) সকালে অভিযান পরিচালনা করেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী হাকিম মো: নাজিবুল আলম। তিনি বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে ওই ৪ জনকে প্রশ্নপত্র ফাঁসের সন্দেহে আটকের পর পাবলিক পরীক্ষা অপরাধ আইনে দোষী  প্রমানিত হওয়ায় প্রত্যেককে ১মাস করে কারাদন্ড দেয়া হয়েছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে একজন শিক্ষক জানান, ভালো ফলাফল করানোর জন্য বিভিন্ন স্কুল ও মাদ্রাসার শিক্ষকেরা পরীক্ষা শুরু হওয়ার পর পাঁচ থেকে সাত মিনিটের মধ্যে কৌশলে কেন্দ্র থেকে প্রশ্নপত্র বাইরে নিয়ে আসেন। পরে সংশ্লিষ্ট বিষয়ের শিক্ষকদের দিয়ে তার উত্তর তৈরি করে অল্প সময়ের মধ্যে পরীক্ষা হলে শিক্ষার্থীদের সরবরাহ করেন। সবকিছু ম্যানেজ করার জন্য শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে মোটা অংকের অর্থ হাতিয়ে নিতেন তারা। মঙ্গলবার গনিত পরীক্ষা শুরু হওয়ার কিছু সময় পর প্রশ্নপত্র বাইরে নিয়ে আসেন ওই চক্রের সদস্যরা। বড়দিয়া মুন্সী মানিক মিয়া ডিগ্রী  কলেজ -সংলগ্ন একটি কম্পিউটার দোকানে  বসে তার উত্তর তৈরি করছিলেন তাঁরা। এ সময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এক শিক্ষকসহ ৪ জনকে আটক করে পুলিশ।

এ বিষয়ে বড়দিয়া মুন্সী মানিক মিয়া ডিগ্রী কলেজ কেন্দ্রের কেন্দ্রসচিব আসমা খাতুনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমাদের মুঠোফোন বন্ধ থাকায় এ ব্যাপারে কিছু জানতে পারিনাই।  

আদালত সূত্রে জানা গেছে, পরীক্ষা চলাকালে বড়দিয়া মুন্সী মানিক মিয়া ডিগ্রী কলেজ কেন্দ্র-সংলগ্ন একটি কম্পিউটার দোকান  থেকে গনিত প্রশ্নপত্র, মোবাইল এবং কম্পিউটার হার্ডডিক্স জব্দ করা হয়।