Opu Hasnat

আজ ৯ এপ্রিল বৃহস্পতিবার ২০২০,

কিশোর গ্যাং’র তিন সদস্যের বিরুদ্ধে হত্যা চেষ্টায় অভিযোগ দায়ের সুনামগঞ্জ

কিশোর গ্যাং’র তিন সদস্যের বিরুদ্ধে হত্যা চেষ্টায় অভিযোগ দায়ের

সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে এবার কিশোর গ্যাং’র তিন সদস্য কর্তৃক এক যুবকের ওপর হামলা এবং তাকে হত্যাচেষ্টার ঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার বাদাঘাটের আনিসুল হক নামে এক যুবক অভিযোগটি দায়ের করেন।

অভিযুক্তরা হলেন, উপজেলার পুরানঘাট গ্রামের মজিবুর তালুকদারের ছেলে বাদাঘাট পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী কিশোর শরীফ তালুকদার, তার সহোদর আরিফ তালুকদার ও ফকির নগর গ্রামের হযরত আলীর ছেলে ইমন মিয়া। অভিযোগে আরো ৩ থেকে ৪ কিশোরকে অজ্ঞাতনামা আসামি হিসাবে অভিযুক্ত করা হয়েছে। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে অতীতে নিরীহ শিক্ষার্থীদের মারধর, হুমকি ধামকি প্রদান ও একাধিক ছাত্রীকে ইভটিজিং এবং হয়রানী করা সহ নানা অভিযোগ উঠেছে।  

লিখিত অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার পুরানঘাট গ্রামের শরীফ তালুকদার নামে কিশোর গ্যাং লিডারের নেতৃত্বে ৬ হতে ৭ সদস্যের কিশোর গ্যাং’র সদস্যরা গত সোমবার (২৫ জানুয়ারি) বিকেলে বাদাঘাট পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ন সড়কে যুবক আনিসুল হককে পথরোধ করে তার ওপর লাঠিসোটা নিয়ে হামলার এক পর্যায়ে তাকে ফের হত্যা চেষ্টা চালিয়ে লোহার পাঞ্চ দ্বারা আঘাত করে মাথা ফাঁটিয়ে রক্তার্থ জখম করে ফেলে রেখে যায়। পরে আশে পাশে থাকা লোকজন এগিয়ে এসে আহত ওই যুবককে ওইদিন সন্ধায় আশংকাজনক অবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেলক্সে ভর্তি করেন। 

এলাকার লোকজন ও একাধিক শিক্ষার্থীরা জানান, কিশোর শরীফ মাধ্যমিকে পড়–য়া শিক্ষার্থী হলেও সে বাদাঘাট পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের বেশ ক’জন কোমলমতি শিক্ষার্থী ও পরিবারের স্বজনদের নিয়ে গত বছর ধানেক সময় ধরে একটি কিশোর গ্যাং গড়ে তোলে। নিজ বিদ্যালয় ও বিদ্যালয় বহির্ভুত এলাকায় শরীফ সহ তার কিশোর গ্যাংর সদস্যরা ধারালো ছোড়া, চাকু লোহার পাঞ্চ, রড. কাঠের রোল নিয়ে প্রায়শই ঘুরাফেরা করে নিজেদের আধিপত্য জানান দিতে গিয়ে একাধিকবার নিরীহ শিক্ষার্থীকে মারধর সহ হুমকি ধামকি প্রদান করে আসছে। এ গ্যাং’র সদস্যদের দ্বারা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যাতায়াতগামী বহু ছাত্রী রাস্তাঘাটে এমনকি নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানেও  হয়রানী, বেপরোয়া বখাটেপনা ও ইভটিজিং’র শিকার হতে হয়েছে।

এ বাপারে তাহিরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো.আতিকুর রহমান অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, অভিযোগের তদন্ত রিপোর্ট পাওয়ার পর দোষীদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে। 

এই বিভাগের অন্যান্য খবর