Opu Hasnat

আজ ৮ এপ্রিল বুধবার ২০২০,

কালকিনিতে প্রধান শিক্ষকের বেত্রাঘাতে ছাত্র হাসপাতালে মাদারীপুর

কালকিনিতে প্রধান শিক্ষকের বেত্রাঘাতে ছাত্র হাসপাতালে

মাদারীপুরের কালকিনিতে শিক্ষকের বেত্রাঘাতে আহত হয়ে মারুফ মৃধা(১৪) নামে এক ছাত্র হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। সে সৈয়দ আবুল হোসেন একাডেমীর অষ্টম শ্রেনীর ছাত্র। আজ মঙ্গলবার দুপুরে শ্রেনী কক্ষে বসে এ ঘটনা ঘটে। তবে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষকের দাবি, ওই ছাত্র শ্রেনী কক্ষে বসে বকুনি দেয়ায় তাকে শাসন করা হয়েছে।

ভুক্তভোগী পরিবারের অভিযোগ ও হাসপাতাল সুত্রে জানাগেছে, পৌর এলাকার উত্তর রাজদী গ্রামের কবির মৃধার স্কুল পড়ুয়া ছেলে মারুফ মৃধা তার কয়েকজন সহপাঠিদের সঙ্গে একত্র হয়ে অষ্টম শ্রেনীর রেজিষ্টেশন ফরম বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাছে জমা দিতে গিয়ে হুড়োহুড়ি করে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বিএম হেমায়েত হোসেন শ্রেনী কক্ষে প্রবেশ করে শুধু মারুফ মৃধাকে বেত্রাঘাত করে এবং লাথি মেড়ে শ্রেনী কক্ষ থেকে বের করে দেয় বলে অভিযোগে জানাযায়। এতে করে মারুফ মৃধা গুরুতর অসুস্থ হয়ে পরে। খবর পেয়ে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

ভুক্তভোগী ছাত্রের বড় ভাই হাজবি মৃধা সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করে বলেন, ফরম জমা দেয়ার সময় সব ছাত্রদের সাথে মারুফ জাগোর দেয়ায় হেমায়েত স্যার ক্ষিপ্ত হয়ে শুধু মারুফকে প্রচন্ড পিটিয়েছে। এবং স্কুল থেকে লাথি মেড়ে বেড় করে দিয়েছে। আমরা যদি এ ঘটনা কাউকে জানাই তাহলে আমার ভাইকে স্কুল থেকে বহিস্কার করে দেবে বলে হেমায়েত স্যার হুমকি দেয়। আমরা হেমায়েত স্যারের বিচার চাই।

অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক বিএম হেমায়েত হোসেন বলেন, মারুফ মৃধা শ্রেনী কক্ষে বসে গালিগালাজ করায় তাকে আমি শাসন করেছি।

এ ব্যাপারে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ মাহাবুবুর রহমান বলেন, আমি বিষয়টি পুরোপুরি জানিনা। তবে আমি এখন জেনেছি, বিষয়টি সমাধান করার চেষ্টা করবো।