Opu Hasnat

আজ ৯ এপ্রিল বৃহস্পতিবার ২০২০,

প্রধানমন্ত্রীর ইচ্ছাতেই ‘ফরিদপুর এক্সপ্রেস’র নাম পরিবর্তন ফরিদপুর

প্রধানমন্ত্রীর ইচ্ছাতেই ‘ফরিদপুর এক্সপ্রেস’র নাম পরিবর্তন

ফরিদপুর-রাজবাড়ি রুটে চলাচলরত ট্রেন ‘ফরিদপুর এক্সপ্রেস’র নাম পরিবর্তন করে আগামী ২৬ জানুয়ারী থেকে ‘রাজবাড়ি এক্সপ্রেস’ করা হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পছন্দেই ‘ফরিদপুর এক্সপ্রেস’ থেকে এই রুটে চলাচলকারী ট্রেনটির নাম ‘রাজবাড়ি এক্সপ্রেস’ করা হচ্ছে বলে বাংলাদেশ রেলওয়ের উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার সকালে রাজবাড়ি থেকে ফরিদপুর স্টেশন হয়ে ভাঙ্গা উপজেলা পর্যন্ত রেল চলাচল সম্প্রসারণ পথ সরেজমিনে পরিদর্শন করতে এসে তারা একথা জানান। 

এসময় বাংলাদেশ রেলওয়ের চিফ অপারেটিং সুপারিন্টেন্ডেন্ট শহিদুল ইসলাম সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে জানান, ‘ফরিদপুর এক্সপ্রেস’র নাম পরিবর্তনের বিষয়টি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একান্ত নিজের পছন্দের। আমরা পাঁচটি নাম প্রস্তাব করে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে পাঠিয়েছিলাম। এরমধ্যে তিনি ‘রাজবাড়ি এক্সপ্রেস’ নামটি পছন্দ করেছেন।

এসময় রেলের অতিরিক্ত মহাব্যবস্থাপক ভজন কুমার পোদ্দার, সরকারী পরিদর্শক অসীম কুমার তালুকদার, বিভাগীয় পরিবহন কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল মামুন, বিভাগীয় ভুমি কর্মকর্তা মোঃ নুরুজ্জামান, বিভাগীয় কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল মামুন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। 

এসময় উপস্থিত জনতা এসময় ভাঙ্গা পর্যন্ত চালুর সিদ্ধান্ত নেওয়া ট্রেনটি রাজবাড়ি থেকে সকাল ৬টার পরিবর্তে ৭টায় ছাড়ার অনুরোধ জানান। অন্যথায় ট্রেনে যাত্রী সংখ্যা হ্রাস পাবে বলে তারা জানান। এছাড়া শহরের গুরুত্বপূর্ণ রাজেন্দ্র কলেজের অনার্স শাখা ও ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজসহ আরো কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান অবস্থিত হওয়ায় পুরাতন বায়তুল আমান স্টেশনে একটি স্টপেজ দেয়ারও অনুরোধ জানান। এব্যাপারে স্থানীয়দের পক্ষ হতে লিখিত আবেদন করা হলে যাত্রীদের চাহিদার এসব বিষয় ভেবে দেখা হবে বলে তারা জানান। 

বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা ২০ মিনিটে রাজবাড়ি থেকে ছেড়ে আসা একটি পরীক্ষামুলক ট্রেনে চেপে ফরিদপুর স্টেশনে পৌছান এসব কর্মকর্তা। এরপর ফরিদপুর স্টেশনে আধঘন্টার যাত্রাবিরতি দিয়ে তারা রওনা হন ভাঙ্গা স্টেশন অভিমুখে। এর মধ্য দিয়ে ফরিদপুর থেকে নতুন করে নির্মিত রেলপথে প্রথমবারের মতো কোন ট্রেন ভাঙ্গায় পৌছালো।

প্রসঙ্গত, দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর ২০১৪ সালের ২০ জুলাই হতে রাজবাড়ি হতে ফরিদপুর রুটে পুনরায় রেল যোগাযোগ শুরু হয়। তৎকালীন রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক ও সাবেক এলজিআরডি মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন এ রেল চলাচল উদ্বোধন করেন। তখন এই রেলগাড়ির নামকরণ করা হয় ‘ফরিদপুর এক্সপ্রেস’। বর্তমানে প্রতিদিন রাজবাড়ি-ফরিদপুর রুটে একটি ট্রেন সকাল ও সন্ধায় দুবার রেল চলাচল করছে। 

জানা গেছে, আগামী ২৬ জানুয়ারী হতে রাজবাড়ি থেকে ছেড়ে ট্রেন ফরিদপুর হয়ে যাবে ভাঙ্গা উপজেলা পর্যন্ত। ফরিদপুর স্টেশন মাস্টার মাসুদ রানা রনি জানান, প্রতিদিন সকাল ও সন্ধায় দুই দফায় ট্রেনটি চলাচল করবে। 

এই বিভাগের অন্যান্য খবর