Opu Hasnat

আজ ২২ ফেব্রুয়ারী শনিবার ২০২০,

ব্রেকিং নিউজ

যুব বিশ্বকাপে বাংলাদেশি দুই আম্পায়ার খেলাধুলা

যুব বিশ্বকাপে বাংলাদেশি দুই আম্পায়ার

এর আগে আইসিসি’র কোনো ইভেন্টেই ডাকা হয়নি বাংলাদেশের একাধিক আম্পায়ারকে। যুব বিশ্বকাপে ডাকা হত একজনকে। সেটা নিয়ে ক্রিকেটপ্রেমীদের মধ্যে একটা আক্ষেপ ছিল। অবশেষে সেই আক্ষেপ ফুরালো।

১৮ জানুয়ারি থেকে দক্ষিণ আফ্রিকায় শুরু হতে যাওয়া আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে ম্যাচ পরিচালনার জন্য ডাকা হয়েছে বাংলাদেশের দুইজন আম্পায়ারকে। তারা হলেন বিসিবির ইন্টারন্যাশনাল প্যানেল আম্পায়ার শরফোদ্দৌলা ইবনে শহীদ সৈকত ও মাসুদুর রহমান মুকুল।

মঙ্গলবারই তারা দক্ষিণ আফ্রিকার উদ্দেশ্যে রওয়ানা দিবেন।

যুব বিশ্বকাপে মুকুল প্রস্তুতি ম্যাচসহ মোট ৭টি ম্যাচে দায়িত্ব পালন করবেন। ১৩ জানুয়ারি জাপান-স্কটল্যান্ডের প্রস্তুতি ম্যাচে ফিল্ড আম্পায়ার হিসেবে থাকবেন তিনি। ১৪ জানুয়ারি ইংল্যান্ড-আফগানিস্তানের প্রস্তুতি ম্যাচে তিনি থাকবেন চতুর্থ আম্পায়ার। ১৫ জানুয়ারি জাপান ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রস্তুতি ম্যাচে ফিল্ড আম্পায়ারের দায়িত্ব পালন করবেন।

১৮ জানুয়ারি বিশ্বকাপের উদ্বোধনী দিনে অস্ট্রেলিয়া-ওয়েস্ট ইন্ডিজের ম্যাচে চতুর্থ আম্পায়ারের দায়িত্ব থাকবেন মুকুল। ২২ জানুয়ারি আফগানিস্তান-আরব আমিরাতের ম্যাচে ফিল্ড আম্পায়ার হিসেবে থাকবেন। ২৪ জানুয়ারি ভারত-নিউজিল্যান্ডের ম্যাচেও তাকে ফিল্ড আম্পায়ার হিসেবে দায়িত্ব পালন করতে দেখা যাবে। আর ২৫ জানুয়ারি মঙ্গুনুই ওভালে দক্ষিণ আফ্রিকা ও আরব আমিরাতের ম্যাচে চতুর্থ আম্পায়ারের দায়িত্ব পালন করবেন মুকুল।

এদিকে শরফোদ্দৌলা ইবনে শহীদ সৈকত প্রস্তুতি ম্যাচসহ মোট ৮টি ম্যাচে দায়িত্ব পালন করবেন যুব বিশ্বকাপে।

১২ জানুয়ারি নাইজেরিয়া-পাকিস্তানের মধ্যকার প্রস্তুতি ম্যাচে তিনি ফিল্ড আম্পায়ার থাকবেন। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ১৪ জানুয়ারি পাকিস্তানের পরের প্রস্তুতি ম্যাচে থাকবেন ফোর্থ আম্পায়ার হিসেবে। ১৫ জানুয়ারি ওয়েস্ট ইন্ডিজ-স্কটল্যান্ডের মধ্যকার প্রস্তুতি ম্যাচে ফিল্ড আম্পায়ার হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।

মূলপর্বে তিন ম্যাচে ফিল্ড আম্পায়ার হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন সৈকত।  এক ম্যাচ থাকবেন টিভি আম্পায়ার। আর একটি ম্যাচে থাকবেন চতুর্থ আম্পায়ার হিসেবে।

মাসুদুর রহমান মুকুল ২০০০ সাল থেকে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে আম্পায়ারিং শুরু করেন। আর ৪৩ শরফোদ্দৌলা ইবনে শহীদ সৈকত ২০০৭ সাল থেকে শুরু করেন। তাদের দু’জনেরই রয়েছে আন্তর্জাতিক ম্যাচ পরিচালনা করার অভিজ্ঞতা।