Opu Hasnat

আজ ২২ ফেব্রুয়ারী শনিবার ২০২০,

ব্রেকিং নিউজ

রাজবাড়ীতে লাউ চাষে লাভবান কৃষক কৃষি সংবাদরাজবাড়ী

রাজবাড়ীতে লাউ চাষে লাভবান কৃষক

রাজবাড়ীতে মেটাল ও ডায়না জাতের লাউ চাষ করে ভাগ্য বদলেছে কৃষকের। আবহাওয়া অনুকুলে থাকায় ফলন হয়েছে বেশি। তাছাড়া বাজার মূল্য ভালো পাওয়ায় হাসি ফুটেছে কৃষকের মুখে। 

রাজবাড়ী সদর উপজেলার চন্দনী ইউনিয়নের আফড়া এলাকার কৃষক আনসার আলী। এক সময় ঘোরার গাড়ি চালিয়ে সংসার চালাতেন তিনি। ঘোরার গাড়ি চালানো বাদ দিয়ে তার নীজের দেড় বিঘা জমিতে এ বছর লাউ চাষ করেছেন। এতে সব মিলিয়ে তার খরচ হয়েছে পনের হাজার টাকা। এ পর্যন্ত তিনি এক লক্ষ টাকার লাউ বিক্রি করেছেন। আরো অন্তত ৫০ হাজার টাকা বিক্রি করতে পারবেন বলে আশা করছেন তিনি। শুধু আনসার আলী নয়, লাউ চাষে ভাগ্য ফিরেছে একই এলাকার কৃষক পরিমল দাস, ফিরোজ আহম্মেদ, মিজুসহ শত শত কৃষকের।

রবিবার সকালে সদর উপজেলার চন্দনী ইউনিয়নের আফড়া এলাকার গিয়ে দেখাযায়, সেখানে মাঠের পর মাঠ অন্যান্য শীত কালীন সবজির পাশাপাশি পাল্লা দিয়ে লাউ চাষ হয়েছে। যে যার মতো করে ক্ষেতের পরিচর্যায় ব্যস্ত। 

এ সময় কথা হয় কৃষক আনসার আলীর সাথে তিনি বলেন, এ বছর লাউ চাষে আমার ভাগ্য বদল হয়েছে। খরচের চেয়ে কয়েক গুন বেশি লাভ হয়েছে। তাছাড়া লাউয়ের কোন রোগ বালাইও দেখা যায়নি। বাজারে দামও পাওয়া যাচ্ছে চড়া। এমন বাজার থাকলে আমি আরো অন্তত ৫০ হাজার টাকার লাউ বিক্রি করতে পারবো। 

আফড়া গ্রামের কৃষক পরিমল দাস বলেন, এ বছর লাউ এর যে ফলন হয়েছে তা বিগত ১০ বছরেও হয়নি। এখন বাজারে প্রতিটি লাউ বিক্রি হচ্ছে কমপক্ষে ৫০ টাকা। কৃষি অফিসের আরো সহযোগিতা পাওয়া গেলে আগামী বছর লাউ চাষ আরো বাড়বে।

অপর কৃষক ফিরোজ আহম্মেদ বলেন, এ বছর কৃষক পেয়াজের ভালো দাম  পেয়েছে। লাউয়ের ভালো দাম পেয়েছে। সারা দেশেই লাভবান হয়েছে কৃষক। রাজবাড়ীতে কৃষিপন্য মজুদ করার মতো কোন হিমাগার নেই। যদি কৃষক কৃষি পন্য হিমাগগারে রাখতে পারতো তবে আরো লাভবান হতো। তাছারা কৃষি প্রনোদনা বাড়ানোর দাবীও করেন তিনি। 

রাজবাড়ী সদর উপজেলার চন্দনী ইউনিয়নের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মানিক দাস বলেন, লাউ উচু ও বেলে দোয়াশ মাটিতে ভালো হয়। লাউ চাষে ভালো মানের জাত ও রোগ বালাই সম্পর্র্কে কৃষকদের নানা পরামর্শ প্রদান করা হয়েছে। যে কারনে কৃষক ভালো ফলন ও দাম পেয়ে খুশি। 

রাজবাড়ী সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোঃ বাহাউদ্দিন শেক বলেন, রাজবাড়ী জেলার ৪২ টি ইউনিয়নে এ বছর ৪’শ হেক্টর জমিতে লাউ চাষ হয়েছে। রাজবাড়ীর লাউ জেলার চাহিদা মিটিয়ে ঢাকাসহ বিভিন্ন এলাকায় পাঠানো হয়। লাউ চাষে কৃষকদের প্রনোদনা, প্রশিক্ষন ও প্রদর্শনী দেওয়া হচ্ছে। তাছারা মাঠকর্মীরা নিয়মিত রোগ বালাই হচ্ছে কিনা পরিক্ষা করছেন।