Opu Hasnat

আজ ১৮ জানুয়ারী শনিবার ২০২০,

সুরমা নদীতে অবৈধ ইজারা বাতিল ও চাঁদাবাজি বন্ধের দাবীতে মানববন্ধন সুনামগঞ্জ

সুরমা নদীতে অবৈধ ইজারা বাতিল ও চাঁদাবাজি বন্ধের দাবীতে মানববন্ধন

সুনামগঞ্জের জামালগঞ্জ উপজেলার দক্ষিণ কামলাবাজ থেকে মান্নান ঘাট বাজার পর্যন্ত সুরমা নদীতে বিআই ডব্লিউটির ইজারা বাতিল ও চাঁদাবাজি বন্ধের দাবীতে হাজারো শ্রমিক ও ব্যবসায়ীরা মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

বৃহষ্পতিবার দুপুর আড়াইটায় উপজেলার লালপুর বাজার সংলগ্ন জামালগঞ্জ-সেলিমগঞ্জ সড়কের দুই পাশে প্রায় ঘন্টা ব্যাপী মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে এলাকার হাজারো শ্রমিকসহ বালুপাথর ব্যবসায়ী ও নারী শ্রমিকরাও অংশ নেন পরে মানব বন্ধন বিক্ষোভে রূপ নেয়। ঘন্টা ব্যাপী মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, শ্রমিক সর্দার রিয়াজ উদ্দিন, সাফিকুল, হাবিবুর, টিটু, আলীরাজ, আমীর হোসেন, রূপ আলম, ব্যাবসায়ী শফিকুর ইসলাম, কামরুজ্জামান, আশিকুর রহমান, আমিরুল ইসলাম, বিটু তালুকদার, রুবেল পার প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, জামালগঞ্জে চলতি সুরমানদীর দুই তীরে বালি পাথর সংগ্রহকারী ব্যবসায়ী ও শ্রমিকরা চাঁদাবাজদের জন্য পথে বসছেন। বৈরব-আশুগঞ্জ থেকে বিআইডব্লিউটির নামে ৩ মাসের পরিক্ষামূলক একটি আদেশ নামা দেখিয়ে জামালগঞ্জের ঘাগটিয়া গ্রামের অব্দুস ছালাম তার লোকজন নিয়ে জোরপূর্বক অবৈধ ভাবে চাঁদা হাতিয়ে নিচ্ছে। চাঁদা না দিলে শ্রমিকদের মারধরসহ নানা ভাবে লাঞ্ছিত করছে। এতে করে ব্যবসায়ীরা তাদের ব্যবসা পরিচালনা করতে না পারায় শ্রমিকরাও কর্মহীন হয়ে পরিবার পরিজন নিয়ে অনাহারে দিন যাপন করছেন। বারু-পাথর বহনকারী নৌকায় এলাকার হাজার-হাজার শ্রমিকের কর্মসংস্থানের মাধ্যমে সংসার চালিয়ে আসছেন। হঠাৎ করে আব্দুস ছালামের নেতৃত্বে কয়েকজন নদীপথে শ্রমিকদের কাছ থেকে চাঁদা আদায় করছে। এতে শ্রমিক ও ব্যবসায়ীদের মারাত্মক ক্ষতি হচ্ছে। চাঁদা দিতে অস্বীকার করলে জোর-জুলুম করে মারধরসহ শারিিরক ভাবে নির্যাতন করছে। টাকার জন্য চাঁদাবাজরা নৌকার বালি লোড-আনলোড করতে বাঁধা দিচ্ছে। ইজারাদার আব্দুস ছালামের বিরুদ্ধে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে ৭০ জন শ্রমিক সর্দার ও ব্যবসায়ী স্বাক্ষরিত একটি লিখিত অভিযোগও দিয়েছেন। 

শ্রকিরা আরো জানান, চাঁদাবাজি বন্ধ না হলে এলাকায় কাজ কর্ম প্রায় বন্ধের পথে এতে হওয়ায় হাজারো শ্রমিক পরিবার পরিজন নিয়ে বিপাকে পড়েছেন। এভাবে গায়ের জোরে চাঁদা আদায় করলে ব্যাবসা বন্ধ হবে, এতে সরকারের লাখ-লাখ টাকা রাজস্ব হারানো সহ শ্রমিকদের মানবেতর জীবন যাপন করতে হবে। দ্রুত ইজারা বাতিলসহ চাঁদাবাজি বন্ধ করে শ্রমিকদের কাজের সুবিধা ও ব্যবসায়ীদের ব্যাবসা পরিচালনা করতে সরকারের উর্দ্ধতন কর্তৃ পক্ষের নিকট জোর দাবী জানান।

অপরদিকে, নদীপথে নিরাপদে যাতায়ারে দাবীতে ‘বাংলাদেশ কার্গোট্রলান বাল্কহেড শ্রমিক ইউনিয়ন (রেজি:নং-২১১২) এর নবগঠিত সুনামগঞ্জ জেলা শাখা কমিটিরও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার শেষ বিকেলে জামালগঞ্জের লালপুর বাজারে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন নবগঠিত জেলা কমিটির সভাপতি মো: হাবিবুর রহমান। জেলা কমিটির উপদেষ্ঠা তুহিন আলমের সার্বিক সহযোগীতায় ও জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল আলমের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, রাংলাদেশ কার্গোট্রলান বাল্কহেড শ্রমিক ইউনিয়নের কেন্দ্রী সভাপতি মো: জাহাঙ্গীর আলম বেপারী। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, জামালগঞ্জ উপজেরা পরিষদের চেয়ারম্যান বীরমুক্তিযোদ্ধা ইউসুফ আল-আজাদ, লালপুর বাজারের বিশিষ্ট ব্যাসায়ী আব্দুর রাজ্জাক, স্থানীয় ইউপি সদস্য শুক্কুর আলী, প্রমুখ।
   
এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রিয়াংকা পাল বলেন, বিষয়টি প্রথমে আমি মৌখিক ভাবে শুনেছি। শ্রমিক সর্দাররা ও ব্যবসায়ীরা লিখিত অভিযোগ করেছেন, খোঁজ নিয়ে জেলা প্রশাসক স্যারের নির্দেশে পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে।

এই বিভাগের অন্যান্য খবর