Opu Hasnat

আজ ১৮ জানুয়ারী শনিবার ২০২০,

রাজবাড়ীতে কন্যাদের ফেরত চেয়ে মায়ের সংবাদ সম্মেলন রাজবাড়ী

রাজবাড়ীতে কন্যাদের ফেরত চেয়ে মায়ের সংবাদ সম্মেলন

রাজবাড়ীতে নীজেদের কন্যাদের এক নজর দেখতে ও ফিরে পেতে সংবাদ সম্মেলন করেছে  চার কন্যার চার মাতা। শুক্রবার সকালে রাজবাড়ী শহরের পৌর মিলেনিয়াম মার্কেটের দ্বিতীয় তলায় ওই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন, যৌনকর্মী নূর আক্তারের মা মোছাঃ রুমা আক্তার। এ সময় তিনি বলেন, দৌলতদিয়া যৌন পল্লীতে আমার জন্ম। যৌন পল্লীতে থাকা অবস্থায় আমার ২ ছেলে ও ৩ মেয়ের জন্ম হয়। আার বড় মেয়ে নুর আক্তার গত ২ বছর যাবৎ নীজের ইচ্ছায় যৌন পেশায় লিপ্ত আছে। গত ২৫ নভেম্বর বিকেলে গোয়ালন্দ থানা পুলিশ ও সাদা পোশাকে কিছু লোক উপস্থিত হয়। এ সময় তারা আমার মেয়ে নুর আক্তার, পল্লীর অন্য মেয়ে ফারজানা আক্তার, বৈশাখি আক্তারসহ ৫ জনকে থানায় নিয়ে যায়। কিছু ক্ষনের মধ্যে আমরা থানায় গিয়ে জানতে পারি বাংলাদেশ জাতীয় মহিলা আইনজীবি সমিতির কর্মরত ব্যক্তিরা আমাদের মেয়েদের নিয়ে গেছে। আমাদের মেয়েদের কোথায় নিয়ে গেছে ঠিকানা জানতে চাই। তবে গোয়ালন্দ ঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ কোন উত্তর না দিয়ে বলে তারা ভালো আছে। পরে একটি মোবাইল নম্বর দেয়। ওই নাম্বারে ফোন করার পর বিভিন্ন ভাবে ঘোরাতে থাকে এরপর চারদিন পর মেয়ের সাথে কথা বলতে পারি। কিন্তু তারা বলেন আমরা ভালো নেই। আমাদের এখান থেকে নিয়ে যাও। এরপর আর তাদের সাথে যোগাযোগ করতে পানি নি। এরপর গোয়ালন্দ ঘাট থানায় যোগাযোগ করে জানতে পারি তারা আগারগাও বাংলাদেশ জাতীয় মহিলা আনজীবি সমিতির কাছে আছে। গত ২ ডিসেম্বর তারিখে আমরা শেরে বাংলা নগর থানায় উপস্থিত হয়ে সহযোগিতা চাই। আমাদের কথা শুনে তাৎক্ষনিকভাবে তারা আগারগাও বাংলাদেশ জাতীয় মহিলা আনজীবি সমিতির কার্র্যালয়ে গিয়ে অফিসের লোকদের থানায় নিয়ে আসে। এ সময় আমাদের মেয়েরা তাদের কাছে আছে বলে স্বীকার করে। এবং শেরে বাংলা নগর থানায় অফিসার ইনচার্জ এর উপস্থিতিতে ৩ ডিসেম্বর আমাদের মেয়েদের বুঝিয়ে দেওয়ার কথা বলে। কিন্তুু আজও পর্যন্ত আমাদের মেয়েদের বুঝিয়ে দেয়নি। তাই আমরা রাজবাড়ীর ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার সংবাদকর্মীদের মাধ্যমে সংবাদ সম্মেলন করে মেয়েদের ফিরিয়ে আনার জোর দাবী জানাচ্ছি।