Opu Hasnat

আজ ১২ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার ২০১৯,

ঢাকা মহানগর আ.লীগ উত্তরের নেতৃত্বে বজলু-কচি, দক্ষিণে মান্নাফি-হুমায়ুন রাজনীতি

ঢাকা মহানগর আ.লীগ উত্তরের নেতৃত্বে বজলু-কচি, দক্ষিণে মান্নাফি-হুমায়ুন

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ঢাকা মহানগর শাখার নতুন নেতৃত্ব বেছে নিয়েছে। নবনির্বাচিতদের ম‌ধ্যে উত্ত‌রে সভাপ‌তি হ‌য়ে‌ছেন শেখ বজলুর রহমান এবং সাধারণ সম্পাদক হ‌য়ে‌ছেন এস এ মান্নান কচি। অন্য‌দি‌কে ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি আবু আহাম্মদ মোহাম্মদ মান্নাফি এবং সাধারণ সম্পাদ‌কের দা‌য়িত্ব পেয়ে‌ছেন হুমায়ুন ক‌বির।

শ‌নিবার বিকেলে ঢাকা মহানগর আওয়ামী লী‌গের উত্তর-দ‌ক্ষি‌ণ স‌ম্মেল‌নের দ্বিতীয় অধিবেশনে ঢাকা মহানগরের নতুন নেতার নাম ঘোষণা করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। এ সময় দল‌টির জ্যেষ্ঠ নেতারাও উপ‌স্থিত ছি‌লেন।

ঢাকা মহানগর নব নির্বাচিত সভাপতি শেখ বজলুর রহমান এর আগে উত্তরের সদ্য বিদায়ী কমিটির সহ সভাপতি ছিলেন। তার আগেও তিনি সহ সভাপতি ছিলেন।  এ ছাড়াও তিনি  ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ থেকে শুরু করে মোহাম্মদপুর থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, অবিভক্ত ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছেন ও সহ-সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন।

ঢাকা মহানগর নব নির্বাচিত এস এম মান্নান কচি সদ্য বিদায়ী কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। এ ছাড়াও তিনি  অবিভক্ত ঢাকা মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। অবিভক্ত ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও পুনর্বাসন সম্পাদক ছিলেন।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সদ্য বিদায়ী কমিটির সহ সভাপতি ছিলেন আবু আহমেদ মান্নাফি ও হুমায়ুন কবির দুজনই।

কমিটি ঘোষণার সময় আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, “ঢাকা মহানগর উত্তরে সভাপতি পদে আট জন, সাধারণ সম্পাদক পদে নয় জনের নাম প্রস্তাব হয়, আর দক্ষিণে সভাপতি পদে ১০ জন ও সাধারণ সম্পাদক পদে ১৩ জনের নাম প্রস্তাব হয়। আমরা সমঝোতার জন্য তাদেরকে ১০ মিনিট সময় দিয়েছি।’ 

‘কিন্তু সমঝোতা না হওয়ায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর নির্দেশে শাখা ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি শেখ বজলুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক এস এ মান্নান কচি ও দক্ষিণে সভাপ‌তি আবু আহাম্মদ মোহাম্মদ মান্নাফি, সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবিরকে নির্বাচিত করা হয়েছে। আমরা আশা করি আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর এই সিদ্ধান্ত আপনারা মেনে নেবেন।”

এর আ‌গে সকা‌লে সম্মেলনে উ‌দ্বোধন ক‌রে‌ন প্রধানমন্ত্রী শেখ হা‌সিনা। এই সম্মেলন থেকেই আগামী তিন বছরের জন্য নগর আওয়ামী লীগের দায়িত্ব পেলেন নবনির্বাচিতরা।
আগামী বছর জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শত বার্ষিকী ও ‘মুজিব বর্ষ’ উদযাপনকে সামনে রেখে দলের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ দুটি ইউনিট ঢাকা মহানগর উত্তর-দক্ষিণকে ঢেলে সাজানোর অংশ হি‌সে‌বে স‌ম্মেল‌নের মাধ্যমে নতুন নেতৃত্ব বে‌ছে নি‌লো আওয়ামী লীগ।

ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগকে উত্তর-দক্ষিণ দুটি ইউনিটে ভাগ করার আগে সর্বশেষ সম্মেলন হয় ২০১২ সালের ২৭ ডিসেম্বর। তবে নানা জটিলতায় আটকে যায় কমিটি গঠন প্রক্রিয়া। এর তিন বছর পর ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগকে দু’ভাগে বিভক্ত করা হয়।

২০১৬ সালের ১০ এপ্রিল একেএম রহমতুল্লাহকে সভাপতি ও সাদেক খানকে সাধারণ সম্পাদক করে মহানগর উত্তর এবং আবুল হাসনাতকে সভাপতি ও শাহে আলম মুরাদকে সাধারণ সম্পাদক করে মহানগর দক্ষিণের কমিটি ঘোষণা করা হয়।