Opu Hasnat

আজ ১২ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার ২০১৯,

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজের ১২০ বছর পূর্তি শিক্ষাকুমিল্লা

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজের ১২০ বছর পূর্তি

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজের ১২০ বছর পূর্তি অনুষ্ঠান পালন করা হয়েছে। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে দিনব্যাপী নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। রবিবার (২৪ নভেম্বর ) সকালে কুমিল্লা সদর আসনের সাংসদ আ ক ম বাহার উদ্দিন বাহার বেলুন উড়িয়ে উৎসবের শুভ উদ্বোধন করেন। এসময় কলেজের অধ্যক্ষ, নবীন-প্রবীন শিক্ষার্থীরা সহ আরো অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথি কুমিল্লা সদর আসনের সাংসদ ও কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আ ক ম বাহার উদ্দিন বাহার বলেন, কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজেই জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্ন বাস্তবায়ন হয়েছে। এ কলেজের ছাত্র মন্ত্রী পরিষদ সচিব, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ^বিদ্যালয়ের উপাচার্য, দূর্নীতি দমন কমিশনের চেয়ারম্যন হয়েছেন। রাষ্ট্রের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে রয়েছে এ কলেজের অনেক ছাত্র।

এমপি বাহার আরো বলেন, দেশ স্বাধীন না হলে এটা সম্ভব ছিল না। পাকিস্তানের সময় বাঙ্গালীরা কোথাও সুযোগ পায় নাই, জাতির জনকের নেতৃত্বে দেশ স্বাধীন হওয়ায় আজ তা সম্ভব হয়েছে। তিনি মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় সকল শিক্ষার্থীদের দেশ পরিচালনায় তৈরি হওয়ার আহবান জানান।

১৮৯৯ সালের ২৪ নভেম্বর রায় বাহাদুর আনন্দচন্দ্র রায় কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজ প্রতিষ্ঠা করেন। কলেজটির নামকরণ করা হয়েছিল তৎকালীন ব্রিটেনের রানী ভিক্টোরিয়ার নামানুসারে।

শিক্ষা-সংস্কৃতির বিকাশে ব্রিটিশ ভারতে প্রথম পর্যায়ে যে কয়টি কলেজ প্রতিষ্ঠা করা হয়, কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজ তার অন্যতম।

বর্তমানে কলেজটি দুটি অংশে বিভক্ত। কান্দিরপার রানীদীঘির পাড়ে কলেজের ইন্টারমিডিয়েট শাখা এবং ধর্মপুরে অনার্স শাখা অবস্থিত। প্রায় ২৭ হাজার শিক্ষার্থীর পদচারণায় কলেজটি মুখরিত হয় প্রতিদিন। ২২টি বিষয়ে অনার্স ও ১৯টি বিষয়ে মাস্টার্স পড়ানো হয় এখানে। এ কলেজে রয়েছে ১২টি সক্রিয় সাংস্কৃতিক সংগঠন। সংগঠনগুলো শিক্ষা ও সংস্কৃতির বিকাশে অবদান রাখছে।

কুমিল্লা সদর-৬ আসনের সংসদ সদস্য আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার এর ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় আধুনিকতার সঙ্গে সমান তালে পাল্লা দিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে কলেজটি। এখানকার প্রতিটি ভবনের ডিজাইন সত্যিই মনোমুগ্ধকর। এছাড়া হৃদয়ে বঙ্গবন্ধু ম্যুরাল, অডিটোরিয়াম, মুক্তমঞ্চ (নির্মাণাধীন), স্বাধীনতা স্তম্ভ¢, আনন্দচন্দ্র রায়ের প্রতিকৃতি, শহীদ মিনার, কলেজ ক্যান্টিন, কলেজ লেক, রানীরদীঘি, কবি নজরুল ইসলাম হল, নওয়াব ফয়জুন্নেছা হল, মুতাহের হোসেন চৌধুরী লাইব্রেরি এ কলেজের সৌন্দর্য বাড়িয়েছে।

অনুষ্ঠানে কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মোঃ রুহুল আমিন ভূইয়া’র সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন কুমিল্লা বিশ^বিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর এমরান কবির চৌধুরী, কলেজের উপাধ্যক্ষ প্রফেসর ড. আবু জাফর খান, কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের  বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর বিজয় কৃষ্ণ রায়, সংবর্ধিত গুনীজন দুর্নীতি দমন কমিশন এর সাবেক চেয়ারম্যান গোলামুর রহমান, মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক সমাজ সেবক বীর মুক্তিযুদ্ধা নাজমুল হাসান পাখি, সাবেক মন্ত্রীপরিষদ সচিব মোঃ আবদুল আজিজ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের সাবেক উপাচার্য বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রফেসর ডাঃ প্রাণ গোপাল দত্ত, জাগ্রত মানবিকতার সাধারন সম্পাদক তাহসিন বাহার সূচনা, কুমিল্লা মহানগর ছাত্রলীগের আহবায়ক  আবদুল আজিজ সিহানুক, কুমিল্লা মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারন সম্পাদক  সাদেকুর রহমান পিয়াস, কুমিল্লা  কোতোয়ালি  থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকতা আনোয়ারুল হক, কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের শিক্ষক, ছাত্র-ছাত্রী ও অভিভাবকবৃন্দ।

এ অনুষ্ঠান উপলক্ষে ৫জন কৃতি শিক্ষার্থীকে সম্মাননা দেয়া হয়।