Opu Hasnat

আজ ৮ ডিসেম্বর রবিবার ২০১৯,

চট্টগ্রাম রেঞ্জে এসপি মিনাসহ পুলিশের ২৯ অফিসার-ফোর্স পুরস্কৃত চট্টগ্রাম

চট্টগ্রাম রেঞ্জে এসপি মিনাসহ পুলিশের ২৯ অফিসার-ফোর্স পুরস্কৃত

বাংলাদেশ পুলিশ চট্টগ্রাম রেঞ্জের মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভা নগরীর হালিশহরস্থ জেলা পুলিশ লাইন্সের সিভিক সেন্টারে রেঞ্জ ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক বিপিএম-বার, পিপিএম-এর সভাপতিত্বে অপরাধ পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।  সভার শুরুতে চট্টগ্রাম জেলা জেলা পুলিশের উন্নয়ন ও সাফল্যের সংকলন “অগ্রযাত্রা” স্মরণিকার মোড়ক উন্মোচন করেন ডিআইজি। সভায় বিগত অক্টোবর/২০১৯  মাসে  জঙ্গিবাদ, অস্ত্র, মাদক নির্মূল, ওয়ারেন্ট তামিল, মামলা দ্রুত নিস্পত্তি, অপরাধ নিয়ন্ত্রণে দক্ষতা, গুরুত্বপূর্ণ আলোচিত মামলার মামলার রহস্য উদঘাটন, নিয়মিত মামলার আসামি গ্রেফতার, পরোয়ানা তামিল ও কোর্টে প্রসিকিউশন পক্ষের মামলা পরিচালনাসহ সার্বিক বিবেচনায় ভালো কাজের জন্য  ১৭ ক্যাটাগরিতে রেঞ্জের ২৯ জন  অফিসার-ফোর্সকে পুরস্কৃত করা হয়েছে। 

শ্রেষ্ঠ জেলার পুরস্কার নিয়েছেন চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ সুপার নুরেআলম মিনা বিপিএম-বার, পিপিএম। এ ছাড়াও বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে যারা নির্বাচিত হয়েছেন তারা হলেন- শ্রেষ্ঠ সার্কের অফিসার নোয়াখালী সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কাজী মোঃ আবদুর রহিম,  শ্রেষ্ঠ কোর্ট ইন্সপেক্টর  কুমিল্লা কোর্ট পুলিশ পরিদর্শক সালাহউদ্দিন আল মাহমুদ, শ্রেষ্ঠ ট্রাফিক ইউনিট কুমিল্লা জেলা টিআই (প্রশাসন) মোঃ কামাল উদ্দিন (১ম) ও ফেনী জেলা টিআই (প্রশাসন) আলাউদ্দিন (২য়), শ্রেষ্ঠ থানা নোয়াখালী জেলার সুধারাম মডেল থানা (পুলিশ পরিদর্শক মোঃ নবীর হোসেন), শ্রেষ্ঠ ডিবি ইউনিট কুমিল্লা জেলা গোয়েন্দা শাখা (১ম) ও নোয়াখালী জেলা গোয়েন্দা শাখা  (২য়), শ্রেষ্ঠ ডিবি অফিসার নোয়াখালী জেলার  গোয়েন্দা শাখার এস.আই মোঃ জাকির হোসেন ও কুমিল্লা জেলার  গোয়েন্দা শাখার এস.আই কামাল হোসেন,  শ্রেষ্ঠ মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা চট্টগ্রাম জেলার চন্দনাইশ থানার এসআই মোঃ গোলাম মোস্তফা,  নোয়াখালী জেলা গোয়েন্দা শাখার এসআই মোঃ সাঈদ মিয়া, হাতিয়া থানার এসআই মোঃ ইকবাল হোসেন, কুমিল্লা জেলা গোয়েন্দা শাখার এসআই মোঃ সহিদার রহমান ও এসআই নন্দন চন্দ্র সরকার, শ্রেষ্ঠ কমিউনিটি পুলিশিং অফিসার  কুমিল্লা জেলার কোতোয়ালী মডেল থানার এসআই মোঃ খালেকুজ্জামান, শ্রেষ্ঠ এসআই কুমিল্লা জেলার কোতোয়ালী মডেল থানার মোঃ শাহাবুর আলম, শ্রেষ্ঠ মাদক উদ্ধারকারী অফিসার কুমিল্লা জেলা গোয়েন্দা শাখার এসআই মোঃ সাইদুর রহমান ও খাগড়াছড়ি জেলার নাইক্ষ্যং থানার এসআই এনামুল হক,  অবৈধ অস্ত্র-গুলি উদ্ধারকারী অফিসার বান্দরবান জেলার  আলীকদম থানার এসআই আমিনুল ইসলাম, কক্সবাজার জেলার টেকনাফ মডেল থানার এসআই সাব্বির আহমদ ও লক্ষপিুর জেলার চন্দ্রগঞ্জ থানার এসআই মোঃ মজিবুর রহমান, শ্রেষ্ঠ ডিএসবি ওয়াচার নোয়াখালী এএসআই মোঃ সাদ্দাম হোসেন, শ্রেষ্ঠ ওয়ারেন্ট তামিলকারী অফিসার নোয়াখালীর  সোনাইমুড়ি থানার এসআই আল-আমিন ও  চট্টগ্রামের রাউজান থানার এসআই আরাফাত বিন ইউসুফ, শ্রেষ্ঠ এএসআই নোয়াখালীর সুধারাম মডেল থানার  সাইফুল ইসলাম ও কুমিল্লার চান্দিনা থানার ইসমাঈল হোসেন এবং শ্রেষ্ঠ কমিউনিটি পুলিশিং মনোনীত সদস্য লক্ষীপুর সদর মডেল থানার কমিউনিটি পুলিশিং সেলের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ এহতেশাম হায়দার বাপ্পী। মাসের অপরাধ পর্যালোচনা সভায় তাদের প্রত্যেকের  হাতে পুরস্কার তুলে দেন অনুষ্ঠানের সভাপতি চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক বিপিএম (বার), পিপিএম।

সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- ডিআইজি পদে পদোন্নতিপ্রাপ্ত পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি (অপারেশন এন্ড ক্রাইম) মোহাম্মদ আবুল ফয়েজ, অ্যাডিশনাল ডিআইজি পদে পদোন্নতিপ্রাপ্ত জেলা পুলিশ সুপার নুরেআলম মিনা (চট্টগ্রাম), মোঃ মাহাবুবর রহমান (চাঁদপুর), এবিএম মাসুদ হোসেন (কক্সবাজার), মোহাম্মদ জাকির হোসেন মজুমদার (বান্দরবান), মোহাঃ আহমার উজ্জামান (খাগড়াছড়ি), মোঃ আলমগীর কবীর (রাঙ্গামাটি), মোঃ আলমগীর হোসেন (নোয়াখালী), ড.এএইচএম কামরুজ্জামান (লক্ষীপুর), খোন্দকার নুরুন্নবী (ফেনী), সৈয়দ নুরুল ইসলাম (কুমিল্লা), মোহাম্মদ আনিসুর রহমান (ব্রাহ্মণবাড়ীয়া), রেঞ্জের  বিভিন্ন জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপারগণ,  রেঞ্জ অফিসের  অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপারেশন এন্ড ক্রাইম) মাহমুদা বেগম, সহকারী পুলিশ সুপার মান্না দে, সহকারী পুলিশ সুপারগণ  ও  থানাসহ বিভিন্ন পর্যায়ের পুলিশ পরিদর্শকগণ।  

অপরাধ পর্যালোচনা সভায় চট্টগ্রাম রেঞ্জের সার্বিক আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি ও অপরাধ সূচক নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়। গত সেপ্টেম্বর এবং অক্টোবর মাসে সংঘটিত অপরাধের মাত্রা তুলনামূলকভাবে পর্যালোচনা করা হয়। এতে সেপ্টেম্বর মাসের চেয়ে অক্টোবর মাসে রেঞ্জের বিভিন্ন জেলায় ডাকাতি, দস্যুতা, খুন, অপরাধজনক বল প্রয়োগ, নারী নির্যাতন, চুরিসহ সম্পত্তি সংক্রান্ত অপরাধ সংঘটনের মাত্রা বৃদ্ধির হার লক্ষ্য করা যায়। রেঞ্জ ডিআইজি এ ধরণের অপরাধ নিয়ন্ত্রণে রাখার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট পুলিশ সুপার’দের নির্দেশ প্রদান করেন। এছাড়া নারী ও শিশু নির্যাতন, সিঁধেল চুরি এবং গরু চুরির প্রবণতা তুলনামূলকভাবে হ্রাস পাওয়ায় তিনি সন্তোষ প্রকাশ করেন এবং এ ধরণের অপরাধ আরো কমিয়ে আনার পদক্ষেপ গ্রহণের পরামর্শ প্রদান করেন। অব্যাহত পুলিশি অভিযানের মুখে অবৈধ অস্ত্র ও মাদক চোরাকারবারীদের দৌরাত্ব অক্টোবর মাসে তুলনামূলকভাবে কমে আসায় সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে অস্ত্র ও মাদক বিরোধী অভিযান আরো জোরদার করার নির্দেশ প্রদান করেনতিনি।  উপস্থিত সকল অফিসার-ফোর্সকে জনবান্ধব পুলিশি ব্যবস্থার মাধ্যমে আইন-শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণ, মাদক ও অস্ত্র উদ্ধার এবং জঙ্গিবাদ নির্মূলে আন্তরিকভাবে কাজ করার আহ্বান জানান ডিআইজি। 

অপরদিকে, চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের উন্নয়ন ও সাফল্যের তিন বছর উপলক্ষে ‘অগ্রযাত্রা’ সংকলনের মোড়ক উন্মোচন করা হয়েছে। নগরীর হালিশহরস্থ  জেলা পুলিশ লাইন্সের সিভিক সেন্টারে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে স্মরণিকার মোড়ক উন্মোচন করেন পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের মাননীয় ডিআইজি  খন্দকার গোলাম ফারুক, বিপিএম(বার), পিপিএম। 

চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ সুপার নুরেআলম মিনা বিপিএম(বার) পিপিএম-এর সভাপতিত্বে অনুষ্টিত ‘অগ্রযাত্রা’ সংকলনের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন  ডিআইজি পদোন্নতি প্রাপ্ত চট্টগ্রাম রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি (অপারেশন্স এন্ড ক্রাইম)  মোহাম্মদ আবুল ফয়েজ। এছাড়া চট্টগ্রাম রেঞ্জের ১১টি জেলার পুলিশ সুপারবৃন্দ, কমান্ড্যান্ট, আর.আর.এফ, সকল সার্কেল অফিসার এবং অফিসার ইনচার্জগণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। ৩৪৪ পৃষ্ঠার চার রঙা সংকলনটিতে চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের ইতিহাস, গত ৩ বছরে অভিযান, অস্ত্র ও মাদক উদ্ধার, জঙ্গিবাদ বিরোধী উদ্যোগ, উন্নয়নমূলক প্রকল্প ও জনহিতকর কর্মকাণ্ড এবং সাফল্য ও অর্জন তথ্য ও চিত্রে তুলে ধরা হয়েছে। 

প্রধান অতিথি ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক এ ধরণের তথ্যবহুল সংকলনের জন্য চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ সুপারসহ সম্পাদনা পরিষদকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, ব্যস্ত ও গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে থেকেও এ ধরণের একটি সংকলন প্রকাশ করা নি:সন্দেহে দূরুহ কাজ। চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ এ ক্ষেত্রে অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। এ ধরণের স্মরণিকার মাধ্যমে পুলিশের জনহিতকর ও কল্যাণমূলক কর্মকাণ্ড জনসম্মূখে প্রচারের প্লাটফর্ম তৈরি হয়েছে। তিনি আরও বলেন, যে অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রায় বাংলাদেশ এগিয়ে চলছে, অগ্রগতির সে ধারাকে সমুন্নত রাখতে সকলকে দায়িত্ব নিতে হবে। জনপ্রত্যাশা অনুযায়ী দেশে আধুনিক, ডিজিটাল ও জনবান্ধব পুলিশি সেবা নিশ্চিত করতে আমরা বদ্ধপরিকর। সে লক্ষ্যে জেলা পুলিশ ইউনিটগুলোর সামগ্রিক উন্নয়নে নানামুখী কর্মকাণ্ড অব্যাহত রয়েছে। তিনি অন্যান্য জেলা পুলিশকেও এ ধরণের সৃজনশীল কাজে মনোনিবেশ করার অনুরোধ করেন।