Opu Hasnat

আজ ১৬ ডিসেম্বর সোমবার ২০১৯,

দামুড়হুদায় ছাত্রী ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ, শিক্ষক আটক চুয়াডাঙ্গা

দামুড়হুদায় ছাত্রী ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ, শিক্ষক আটক

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার মসলিশপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক শাহিনুজ্জামান শাহিনের বিরুদ্ধে একই বিদ্যালয়ের ৪র্থ শ্রেনীর ছাত্রী ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। শিক্ষককে বাঁচাতে স্কুলে সালিশ বৈঠকের আয়োজন করা হয়। স্থানীয় সাংবাদিক ছবি তুলতে গেলে তাকে লাঞ্ছিত করা হয়। রোববার বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে স্কুল চত্বরে এই ঘটনা ঘটে। স্কুল ছাত্রীর মা’ বাদী হয়ে শিক্ষকের বিরুদ্ধে দামুড়হুদা মডেল থানায় মামলা দায়ের করেছে। পুলিশ অভিযুক্ত শিক্ষক শাহিনুজ্জামান শাহিনকে আটক করেছে ।

স্থানীয়রা জানায়, দীর্ঘদিন ধরে শিক্ষক শাহিন স্কুল ছাত্রীকে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল। রোববার (১৭.১১.১৯) স্কুল ছুটির পর ঐ শিক্ষক শিশু ছাত্রীকে ফুসলিয়ে ধর্ষনের চেষ্টা করে। বিষয়টি স্কুল ছাত্রী তার পরিবারের কাছে জানালে মেয়ের বাবা স্কুল কতৃপক্ষকে জানায়। স্কুল কতৃপক্ষ বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে শিক্ষককে বাঁচাতে মিমাংসার জন্য সালিশ বৈঠকে বসে। এসময় উত্তেজিত জনতা শিক্ষকের উপর চড়াও হয়ে তাকে মারধোর করতে থাকে তখন চুয়াডাঙ্গা থেকে প্রকাশিত দৈনিক সমায়ের সমীকরন পত্রিকার নিজেস্ব প্রতিবেদক রোকুনুজ্জামান রোকন ছবি উঠাতে যায়। এসময় স্কুল পরিচালনা কমিটির সভাপতি সেলিম উদ্দীন খুশিসহ কয়েকজন সদস্যর নির্দ্দেশে মসলিশপুর গ্রামের মৃতু করিম মন্ডলের ছেলে ফরিদ (৪৫), আঃ রশিদের ছেলে ছানাউল্লা (৪৩)সহ অজ্ঞাত ২/৩ জন মিলে অভিযুক্ত শিক্ষক ও সাংবাদিক রোকনকে টেনে হেছড়ে মাঠের ভিতরে নিয়ে বেধড়ক মারপিট করে ও রোকনের কাছে থাকা সাড়ে ৭ হাজার নগদ টাকা, একটি এটিএম কার্ড ও তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়। তখন রোকন নিজেকে বাঁচাতে দামুড়হুদা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুকুমার বিশ্বাস কে ফোন করলে তিনি দ্রুত ফোর্স পাঠিয়ে রোকনকে উদ্ধার করে ও লম্পট শিক্ষক শাহিনকে আটক করে থানা হেফাজতে রাখা হয়। রাত ১১টার দিকে স্কুল ছাত্রীর মা’বাদী হয়ে সহকারী শিক্ষক শাহিনুজ্জামান শাহিনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে। 

অপরদিকে, সাংবাদিক রোকনুজ্জামান রোকন বাদী হয়ে স্কুল পরিচালনা কমিটির সভাপতি সেলিম উদ্দীন খুশিসহ তিন জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত ২/৩জন জনের নামে দামুড়হুদা মডেল থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

দামুড়হুদা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুকুমার বিশ্বাস ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, অভিযুক্ত সহকারী শিক্ষক কে আটক করা হয়েছে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।