Opu Hasnat

আজ ১৮ নভেম্বর সোমবার ২০১৯,

অযোধ্যা মামলার রায়, মুসলমানদের আলাদা জমি দেয়ার নির্দেশ আন্তর্জাতিক

অযোধ্যা মামলার রায়, মুসলমানদের আলাদা জমি দেয়ার নির্দেশ

ঐতিহাসিক অযোধ্যা মামলার রায় ঘোষণা করা হয়েছে। অযোধ্যার বিতর্কিত জমিতে নির্মিত হবে রামমন্দির। এতে মুসলমানদের জন্য নতুন একটি মসজিদ নির্মাণে আলাদা জমি বরাদ্দ দিতে নির্দেশ দিয়েছেন ভারতের সুপ্রিম কোর্ট।

এনডিটিভি জানিয়েছে, প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ এর নেতৃত্বে শীর্ষ আদালতের পাঁচ বিচারপতির সাংবিধানিক বেঞ্চ শনিবার সর্বসম্মতিক্রমে এই রায় ঘোষনা করেন। 

রায়ে বলা হয়েছে, শর্তসাপেক্ষে বাবরি মসজিদের বিতর্কিত ওই জমি পাবে সনাতন ধর্মাবলম্বীরা। তাদের জন্য একটি মন্দির নির্মাণে উক্ত ২ দশমিক ৭৭ একর জমি সরকারি ট্রাস্টকে প্রদান করতে হবে।

অন্যদিকে অযোধ্যা শহরেই উপযুক্ত স্থানে মুসলমানদের জন্য বরাদ্দ করতে হবে একটি পাঁচ একরের প্লট।

সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডের  আইনজীবী জাফরাইব জিলানি বলেন, ‘‘আমরা সুপ্রিম কোর্টের রায়কে সম্মান জানাই। তবে এই রায়ে আমরা সন্তুষ্ট নই। পরবর্তী পদক্ষেপ নিয়ে আমরা চিন্তাভাবনা করব।’’ তবে কাউকে কোনও প্রতিবাদ-প্রতিরোধের রাস্তায় না যাওয়ার আবেদনও জানিয়েছেন জাফরাইব। 

অন্যদিকে, হিন্দু মহাসভার আইনজীবী বরুণ কুমার সিংহ বলেছেন, ‘‘এটা ঐতিহাসিক রায়। এই রায়ের মধ্যে দিয়ে সুপ্রিম কোর্ট বৈচিত্রের মধ্যে ঐক্যের বার্তা দিয়েছে।’’

প্রধান বিচারপতি ছাড়াও বেঞ্চে রয়েছেন বিচারপতি এসএ বোবদে, ডিওয়াই চন্দ্রচূড়, অশোক ভূষণ এবং এস আব্দুল নাজির। রায় পড়ে শোনান প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ। 

রায়ে শীর্ষ আদালত জানিয়েছে, বিতর্কিত মূল বিতর্কিত জমি পাবে ‘রাম জন্মভূমি ন্যাস’। এই জমিতে মন্দির তৈরিতে কোনও বাধা নেই। তবে কেন্দ্রকে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ তিন মাসের মধ্যে একটি ট্রাস্ট গঠন করতে হবে। ওই ট্রাস্টের তত্ত্বাবধানেই থাকবে বিতর্কিত মূল জমি। কী ভাবে, কোন পদ্ধতিতে মন্দির তৈরি হবে, তারও পরিকল্পনা করবে ট্রাস্ট। 

অন্য দিকে সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডকে বিকল্প ৫ একর জমি দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে প্রধান বিচারপতির বেঞ্চ। নির্দেশে বলা হয়েছে, গুরুত্বপূর্ণ কোনও জায়গায় ওই জমির বন্দোবস্ত করতে হবে সরকারকে। আনন্দবাজার