Opu Hasnat

আজ ১৬ নভেম্বর শনিবার ২০১৯,

কৃষকলীগের সভাপতি সমীর চন্দ ও সম্পাদক উম্মে কুলসুম স্মৃতি রাজনীতি

কৃষকলীগের সভাপতি সমীর চন্দ ও সম্পাদক উম্মে কুলসুম স্মৃতি

সমীর চন্দকে সভাপতি এবং উম্মে কুলসুম স্মৃতিকে সাধারণ সম্পাদক করে ৩ বছরের জন্য কৃষকলীগের কেন্দ্রীয় কমিটি ঘোষনা করা হয়েছে। এর আগের কমিটিতে তারা দু’জনই যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

বুধবার বিকেলে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে কাউন্সিল অধিবেশনে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নাম ঘোষনা করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

এর আগে সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশনে সভাপতি হিসেবে ১৩ জন এবং সাধারণ সম্পাদক হিসেবে ১১ জন প্রার্থী হওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেন। ওবায়দুল কাদেরসহ আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতারা প্রার্থীদের সঙ্গে বসে বেশ কিছুক্ষন বৈঠক করেন। পরে বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের নতুন সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের না ঘোষনা করেন।

এসময় আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কবির নানক ও আব্দুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, বিএম মোজাম্মেল হক, মক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক মৃণাল কান্তি দাস, দপ্তর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, উপ-দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে সকাল ১১ টায় ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে কৃষক লীগের দশম জাতীয় সম্মেলন শুরু হয়। আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পায়রা ও বেলুন উড়িয়ে এই সম্মেলনের উদ্বোধন করেন।

কৃষক লীগের সভাপতি মোতাহার হোসেন মোল্লার সভাপতিত্বে সম্মেলনের প্রথম অধিবেশনে বিশেষ অতিথি হিসেবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, সর্ব ভারতীয় কৃষাণ সভার সাধারণ সম্পাদক অতুল কুমার বক্তব্য রাখেন। সম্মেলনে সাংগঠনিক রিপোর্ট পেশ করেন এডভোকেট শামসুল হক রেজা। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন কৃষক লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কৃষিবিদ সমীর চন্দ। সম্মেলনের শুরুতে বিভিন্ন ধর্মগ্রন্থ থেকে পাঠ করা হয়।

১৯৭২ সালের ১৯ এপ্রিল দেশের অর্থনৈতিক মুক্তির কার্যক্রমে কৃষি ও কৃষকের উন্নয়নে কাজ করতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষক লীগ প্রতিষ্ঠা করেন। এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ছিলেন ১৫ আগস্টে শহীদ কৃষক নেতা আবদুর রব সেরনিয়াবাত। কৃষক লীগের নবম সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় ২০১২ সালের ১৯ জুলাই।

এদিকে, নতুন সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পেয়ে প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে গিয়ে সমীর চন্দ্র বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে গুরুদায়িত্ব আমাকে দিয়েছেন, তা অক্ষ‌রে অক্ষ‌রে পালন কর‌ব। বাংলার কৃষকের মুখে হাসি ফোটাতে কৃষকলীগ কার্যকর ভূমিকা রাখবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘একইসঙ্গে দলের সকল কর্মসূচি সফল করতে দলীয় নেত্রীর হাত শক্তিশালী করতে কৃষকলীগ অগ্রণী ভূমিকা রাখবে।’

নতুন সাধারণ সম্পাদক উ‌ম্মে কুলসুম বলেন, ‘আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হা‌সিনা আমাদের উপর আস্থা রেখে যে নতুন দায়িত্ব অর্পণ করেছেন, সেই আস্থার প্রতিদান দিতে আমরা প্রস্তুত রয়েছি। সারা বাংলার কৃষকদের সংগঠিত করে আরো শক্তিশালী হবে কৃষকলীগ।’

নতুন কমিটিকে স্বাগত জানিয়ে আগের কমিটির সভাপতি মোতাহার হোসেন মোল্লা বলেন, ‘‌নেত্রী যে নতুন কমিটি মনোনীত করেছেন, তাদেরকে অভিনন্দন জানাই। তাদের নেতৃত্বে কৃষক লীগ আরো বেশি সংগঠিত হবে বলে আমি বিশ্বাস করি। সংগঠনের অভিভাবক হিসেবে আমি সবসময় পাশে থাকব। যেকোনো প‌রি‌স্থি‌তি‌তে যেকোনো প্রয়োজনে কৃষক লী‌গের পাশে ছিলাম, আছি, ভবিষ্যতেও থাকব।’