Opu Hasnat

আজ ১২ নভেম্বর মঙ্গলবার ২০১৯,

কালীগঞ্জে ইউনিলিভার বাংলাদেশ’র ডিপোতে দুর্ধর্ষ ডাকাতি ঝিনাইদহ

কালীগঞ্জে ইউনিলিভার বাংলাদেশ’র ডিপোতে দুর্ধর্ষ ডাকাতি

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ শহরের ইউনিলিভার বাংলাদেশ’র ডিপো এ আর ট্রেডার্সে এক দুর্ধর্ষ ডাকাতি সংঘঠিত হয়েছে। ৮/১০ জনের একদল ডাকাত অস্ত্রের মুখে প্রতিষ্ঠানের নাইটগার্ড, ২জন পথচারী ও ট্রাকের চালক ও হেলপারকে রশি দিয়ে বেধে রুমের তালা ভেঙ্গে ট্যাব ও নগদ টাকাসহ ২০ হাজার টাকার মালামাল লুট করে। তবে কৌশলে মুক্ত হয়ে নাইট গার্ডের চিৎকারে ডিপোর হিসাব বিভাগের ক্যাশ ভোল্টে প্রবেশ করতে পারেনি ডাকাতরা। প্রতিষ্ঠানের সিসিটিভি ফুটেজে ডাকাতদলের কর্মকান্ড দেখা গেছে। শনিবার দিবাগত রাত পৌনে ৩ টার দিকে শহরের ভূষন রোডস্থ ফুড গোডাউনের সামনে এ ডাকাতির ঘটনাটি ঘটে। 

এ আর ট্রেডার্সের ম্যানেজার কে এ কবির জানান, রাত ২.৪০ মিনিটের দিকে ৮-১০ জনের একদল ডাকাত তাদের ২ তলা অফিসে প্রবেশ করে। তারা অন্ত্রের মুখে অফিসের নাইটগার্ড, গাড়ীর চালক ও হেলপারকে রশি দিয়ে বেধে অফিস রুমের তালা ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করে। এরপর তারা সিসিটিভির লাইন বিচ্ছিন্ন সহ হার্ডডিস্ক ভেবে ওয়াইফাই রাউটার খোলার পর টাকার ভোল্ট খুজতে থাকে। কিন্তু কিছুসময় পর নাইটগার্ড কৌশলে তার হাতের বাধন খুলে দৌড়ে পালিয়ে রাস্তায় এসে চিৎকার করতে থাকে। এ সময় অবস্থা বেগতিক দেখে ডাকাতদল পালিয়ে যায়। তবে ডাকাতদল প্রতিষ্ঠানের হিসাব বিভাগের ভোল্টে ঢুকতে না পারায় বড় ধরনের ক্ষতি না হলেও তারা মোবাইল ট্যাবসহ প্রায় ২০ হাজার টাকার মালামাল নিয়ে গেছে। তারা পালিয়ে যাবার সময় শাবল ও সেলাই রেঞ্জ ফেলে রেখে গেছে। এ ঘটনার প্রায় আধা ঘন্টা পর খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে আসে। তারা প্রতিষ্ঠানটি পর্ষবেক্ষন ও পথচারীদেরকে মুক্ত করেন। 

নাইটগার্ড মহাসিন জানান, ডাকাতরা প্রথমে প্রতিষ্ঠানে প্রবেশ করেই তাকে রশি দিয়ে বেধে ফেলে। এর আগে প্রতিষ্ঠানের সামনের রাস্তা দিয়ে যাতায়াতকারী দু’জন পথচারী মটরগাড়ি চালক লিটন ও গ্যারেজ ব্যবসায়ী দরবেশকে গলায় দা ধরে মোবাইল ও নগদ টাকা কেড়ে নেয়। এবং তাদেরকে হাত পা মুখ বেধে পার্শ্ববর্তী তুষার গার্ডেন নামে একটি পরিত্যক্ত ভবনের মধ্যে আটকে রাখে। এরপরই ডাকাতদল তাদের ইউনিলিভার প্রতিষ্ঠানে প্রবেশ করে ডাকাতি শুরু করে। 

কালীগঞ্জ থানার অফিসার্স ইনচার্জ মাহফুজুর রহমান জানান, পুলিশ খবর পেয়েই ভোরে প্রতিষ্ঠানটিতে গিয়েছিল। তবে ডাকাতরা ডাকাতি করতে পারেনি বলে জানালেও পুলিশ ওই প্রতিষ্ঠানের সিসিটিভির ফুটেজ পর্যবেক্ষণ করে ব্যাবস্থা নিবেন বলে জানান। 

এই বিভাগের অন্যান্য খবর