Opu Hasnat

আজ ১২ নভেম্বর মঙ্গলবার ২০১৯,

আসাদুজ্জামান নূর-ডালিয়া বসুর আবৃত্তিতে মুগ্ধ দর্শক বিনোদন

আসাদুজ্জামান নূর-ডালিয়া বসুর আবৃত্তিতে মুগ্ধ দর্শক

জনপ্রিয় অভিনেতা আবৃত্তিশিল্পী আসাদুজ্জামান নূর ও কলকাতার নন্দিত আবৃত্তিশিল্পী ডালিয়া বসু সাহার আবৃত্তিতে মুগ্ধ হল ঢাকার দর্শক। হেমন্তের সন্ধ্যা এই সন্ধ্যায় ধানমন্ডির ১৫ নম্বরের ছায়ানট সংস্কৃতি ভবনে বসেছে কবিতার আসর। সেখানে মুহূর্ত আলোকিত করেছেন দেশের অনেক গুণী ব্যক্তি। তাদের কথাবার্তা আর কবিতা আবৃত্তিতে মুখরিত যেন পুরো ছায়ানট।

এমন মুগ্ধকর আয়োজন হয়েছে ‘যদি এই বাংলায় আসো’ শিরোনামের একটি কবিতার অ্যালবামের প্রকাশনার জন্য। যেখানে ভরাট কণ্ঠে আবৃত্তি করেছেন বরেণ্য অভিনেতা ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব আসাদুজ্জামান নূর। তার সঙ্গে কলকাতার জনপ্রিয় বাচিকশিল্পী ডালিয়া বসু সাহা। শুক্রবার সন্ধ্যায় ছায়ানটে প্রকাশিত হয় জি সিরিজের ব্যানারে তৈরি হওয়া কবিতার এই অ্যালবাম।

‘যদি এই বাংলায় আসো’-এর প্রকাশনায় উপস্থিত ছিলেন জনপ্রিয় অভিনেতা ও আবৃত্তিশিল্পী আসাদুজ্জামান নূর, কলকাতার ডালিয়া বসু সাহা, কবি ও সাবেক সিনিয়র সচিব শ্যাম সুন্দর সিকদার, জি সিরিজ-অগ্নিবীণার কর্ণধার নাজমুল হক ভুঁইয়া খালেদ ও প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিব মোঃ তোফাজ্জল হোসেন মিয়া। 

অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন শুদ্ধমঞ্চ-এর সাধারণ সম্পাদক মসিউদ্দিন খান সমীর। তার শুভেচ্ছা বক্তব্যর পর আবৃত্তিশিল্পী আসাদুজ্জামান নূর, ডালিয়া বসু ও কবি রাম চন্দ্র দাশকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান আজকের বিজনেস বাংলাদেশ পত্রিকার নিউজ ইনচার্জ বাবুল হৃদয়সহ আবৃত্তির বেশ কিছু সংগঠন।

কবিতা আবৃত্তি আগে আসাদুজ্জামান নূর বলেন, ‌আমি আসলে বহু বছর ধরে কবিতার চর্চা করি না। এটা তো চর্চার ব্যাপার, তাই এখন আবৃত্তি করতে গেলে দুই-তিন রকমের আওয়াজ হয়ে যায় কণ্ঠের। তবু রাম চন্দ্র দাসের কথায় তার কবিতার অ্যালবামে কণ্ঠ দিলাম। সময়-সুযোগ হলে আপনারা সেটা শুনবেন।

কলকাতার আবৃত্তিকার ডালিয়া বসু সাহা বলেন, একটি কবিতার অ্যালবামের জন্য এতো মানুষের সমাগম, আমি সত্যিই অভিভূত। রাম চন্দ্র দাসের কবিতাগুলো একদম এই সময়ের জন্য প্রাসঙ্গিক। আমাদের জীবনের নানা রকম অনুভূতি আর অভিজ্ঞতার কথা উঠে এসেছে এখানে। আর আসাদুজ্জামান নূর-দার কথা কী বলব! আমি যখন শুনলাম তার সঙ্গে কাজ করব, রীতিমতো ভয় পেয়ে গিয়েছিলাম। এত গুণী একজন মানুষের সাথে কাজ করা আমার জন্য বিরাট পাওয়া। সংশ্লিষ্টদের ধন্যবাদ আমাকে এই সুযোগটি দেয়ার জন্য৷

কবি রাম চন্দ্র দাসের একটি কবিতা আবৃত্তি করে প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিব তোফাজ্জল হোসেন মিয়া বলেন, রাম চন্দ্র দাস আমার খুব পুরনো বন্ধু। আমরা একসঙ্গে বহু দিন কাজ করেছি। সে ভালো গান গাইতে পারে, লিখতেও পারে৷ কিন্তু এত ভালো কবিতাও লেখে, সেটা প্রথম দিকে টের পাইনি। ইতোমধ্যে তার তিনটি কবিতার বই প্রকাশিত হয়েছে। আমি সেগুলো পড়ে মুগ্ধ হয়েছি ৷ তার কবিতার এই আবৃত্তি অ্যালবামের জন্য আমার অনেক শুভকামনা রইল।

কবিতার এই অ্যালবাম সাজানো হয়েছে কবি রাম চন্দ্র দাস-এর কবিতা দিয়ে। এতে মোট ১০টি কবিতা রয়েছে। এগুলোর শিরোনাম হচ্ছে- ‘আমি এই যুগের মেয়ে যদি’, ‘যদি এই বাংলায় আসো’, ‘অপর বেলায়’, ‘দাবায়ে রাখতে পারবে না’, ‘ইয়ে’, ‘শ্যামল সন্ধ্যার কাব্য’, ‘রবি-নজরুলের বঙ্গদর্শন’, ‘শুধু শান্তি চাই’, ‘গ্রেডার্থী’ ও ‘টাক’।

‘যদি এই বাংলায় আসো’ কবিতার অ্যালবামটি উৎসর্গ করা হয়েছে নুসরাত জাহান রাফিকে। ফেনীর এই তরুণীকে গায়ে আগুন দিয়ে হত্যা করা হয় তারই মাদ্রাসার ছাদে। যেই ঘটনায় গোটা দেশে আলোড়ন তৈরি হয়।

আবৃতি শেষে গান পরিবেশনের মধ্যেদিয়ে অনুষ্ঠান শেষ হয়। হেমন্তের এই রাতে দর্শক ভিন্নরকম সাধ নিয়ে বাড়ি ফেরে।