Opu Hasnat

আজ ২১ নভেম্বর বৃহস্পতিবার ২০১৯,

দৈনিক হাওরাঞ্চলের কথা’র প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত মিডিয়াসুনামগঞ্জ

দৈনিক হাওরাঞ্চলের কথা’র প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত

সুনামগঞ্জ থেকে প্রকাশিত দৈনিক হাওরাঞ্চলের কথা’ পত্রিকার ৩য় বর্ষে প্রর্দাপণ উপলক্ষে কেক কাটা ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার বিকেল ৫ টায় শহরের শহীদ জগৎজ্যোতি পাঠাগার মিলনায়তনে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, সুনামগঞ্জ-৪ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ মো: মতিউর রহমান।

দৈনিক হাওরাঞ্চলের কথা’র সম্পাদক ও প্রকাশক মাহতাব উদ্দিন তালুকদারের সভাপতিত্বে ও পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার একে মিলন আহমদের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, সাবেক সংরক্ষিত মহিলা সংসদ সদস্য ও প্রেসক্লাবের সভাপতি পিপি এড. শামছুন্নাহার বেগম শাহানা, আসক ফাউন্ডেশনের জেলা সভাপতি মোঃ ফজলুল হক, আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধালীগের সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা এড. আসাদুল্লাহ সরকার, সদর থানার পরিদর্শক (অপারেশন) মোঃ মোরশেদ আলম, জেলা সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি ও মোহনা টেলিভিশনের জেলা প্রতিনিধি কুলেন্দু শেখর দাস তালুকদার, দৈনিক আজকের সুনামগঞ্জ পত্রিকার সম্পাদক আবেদ মাহমুদ চৌধুরী, নয়া দিগন্তর’র জেলা প্রতিনিধি তৌহিদ চৌধুরী প্রদীপ, মান্নার গাও ইউপি চেয়ারম্যান আবু হেনা আজিজনূর মোহাম্মদ স্বজন ও সম্পাদক পুত্র মাহবুবুর রহমান তালুকাদার প্রমুখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ মতিউর রহমান বলেন, বস্তুনিষ্ট সংবাদ পরিবেশন করা একজন সাংবাদিকের দায়িত্ব। বর্তমান সরকারের প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় থাকার কারনে মত প্রকাশের স্বাধীনতায় বিশ্বাসী বলেই ৪০ টির মত টেলিভিশন চ্যানেলের অনুমতি দিয়েছেন। এতে স্বাধারণ মানুষের মতমত তুলে ধরতে পারছেন। তিনি সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ডগুলো তুলে ধরে গঠনমুলক সমালোচনা করার আহবান জানান। হাওরাঞ্চলের কথা পত্রিকার সমৃদ্ধি ও দীর্ঘাযু কামনা করে নিপিড়িত মানুষের সমস্যা ও সমাধানে করণীয় বিষয়ে তুলেধরার জন্য সাংবাদিকদের আহবান জানান।  

চলতি বছরে সাংবাদিকতায় রির্পোটিং কাজে পেশাগত দায়িত্ব পালনে কর্মদক্ষতার পরিচয় দেয়ায় বর্ষসেরা প্রতিনিধি হিসেবে সুনামগঞ্জ জেলা সাংবাদিক ফোরাম সভাপতি,মোহনা টেলিভিশন, দৈনিক অধিকার ও দৈনিক সবুজ সিলেটের সুনামগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি কুলেন্দু শেখর দাস তালুকদারকে সেরা প্রতিনিধি হিসেবে সম্মাননা ক্রেষ্ট তুলে দেন অতিতিরা।