Opu Hasnat

আজ ১৪ নভেম্বর বৃহস্পতিবার ২০১৯,

খাস জমি বন্দোবস্ত না পাওয়ায় মানবেতর জীবনযাপন করছে ১০ টি পরিবার সুনামগঞ্জ

খাস জমি বন্দোবস্ত না পাওয়ায় মানবেতর জীবনযাপন করছে ১০ টি পরিবার

সরকারী খাস জমি বন্দোবস্ত না পাওয়ায় মানবেতর জীবনযাপন করছে সদর উপজেলার গৌরারং ইউনিয়নের ইনাতনগর গ্রামের ১০ টি পরিবার। জানাযায়, প্রায় ১৫ বছর আগে ইনাতনগর গ্রাম সংলগ্ন সুরমা নদীর ভাঙ্গনের কবলে পড়ে ভুমিহীন হয়ে পড়ে পুরিবারগুলো। বাড়ী-ঘর নদীতে বিলীন হওয়ার কারনে আশ্রয় নেয় ইনাতনগর গ্রামের সড়কের পাশে সরকারি খাস ভুমিতে। ছোট ছোট ঘর করে সন্তানাদি নিয়ে বসবাস করছে। ২০১৫ সালে গৌরারং ইউনিয়নের এনায়েতনগর মৌজাস্থিত দাগ নং ২৫২, জেএল নং ৩৩ এর ১৩.৫০ একর ভুমি নদী ভাঙ্গন কবলিত পরিবারগুলো বন্দোবস্ত পাওয়ার জন্য জেলা প্রশাসক বরাবরে আবেদন করে। কিন্তু আমলাতান্ত্রিক জঠিলতার কারনে বন্দোবস্ত প্রক্রিয়া আটকে আছে। 

এদিকে, উল্লেখিত ভুমির মালিকানা দাবী করে এনায়েতনগর গ্রামের মাঝহাটির করম আলী ও দক্ষিণ হাটির তালেব আলীসহ একটি প্রভাবশালী মহল বাড়ীহারা অসহায় পরিবারগুলোকে নানাভাবে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে আসছে। ভুমিহীন পরিবারগুলো হলো ইনাতনগর গ্রামের জালাল উদ্দিন, জামাল উদ্দিন, এশদ আলী, নুরুন্নেছা, আজমত আলী, আজিজুর রহমান, আলী আহমদ, জিয়াউর রহমান, গোল আহমদ। 

ভুমিহীন নুরুন্নেছা বলেন, প্রায় ১৫ বছর ধরে রাস্তার পাশে সরকারি জায়গায় ঘর করে বসবাস করছি। গ্রামের কিছুলোক প্রতিদিন হুমকি দেয়, বাড়ির পাশে গাছ লাগালে কেটে ফেলে। খুব কষ্টে আমাদের সন্তানাদি চলতে হচ্ছে। সরকারী খাস জায়গাটুকু আমাদের বন্দোবস্ত দেয়ার জন্য সরকারের কাছে দাবী জানাই। 

ভুমিহীন আলী হোসেন বলেন, দীর্ঘদিন ধরে বন্দোবস্ত পাওয়ার অফিসে অফিসে ঘুরছি কিন্তু কেন জানি আটকে আছে। ভুমিহীন হিসেবে আমাদের ১০ টি পরিবারে মাথাগুজার টাই করে দেয়ার জন্য সরকারে কাছে জোর দাবী জানাই।