Opu Hasnat

আজ ২১ নভেম্বর বৃহস্পতিবার ২০১৯,

নতুন তিন ফ্ল্যাশ চার্জিং প্রযুক্তি আনল অপো তথ্য ও প্রযুক্তি

নতুন তিন ফ্ল্যাশ চার্জিং প্রযুক্তি আনল অপো

বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান অপো নতুন তিন ধরনের ফ্ল্যাশ চার্জিং প্রযুক্তি নিয়ে এসেছে। ৬৫ ওয়াট সুপার ভোক ফাস্ট চার্জ ২.০, ৩০ ওয়াট ওয়্যারলেস ভোক ফ্ল্যাশ চার্জ এবং ভোক ফ্ল্যাশ চার্জ ৪.০-এ তিনটি প্রযুক্তি ফাস্ট চার্জিংয়ে অপোর অবস্থান আরও সুসংহত করবে।

এর মধ্যে ৬৫ ওয়াট সুপার ভোক ২.০ প্রযুক্তি প্রথমবারের মতো ব্যবহার করা হবে অপো রেনো এইস স্মার্টফোনে। এই চার্জিং প্রযুক্তিতে মাত্র ৩০ মিনিটেই ৪,০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি ফুল চার্জ দেওয়া সম্ভব হবে। কাস্টমাইজড এবং অ্যাডভান্সড কমপোনেন্ট, ডিজাইনের পাশাপাশি এতে ব্যবহার করা হয়েছে গ্যালিয়াম নাইট্রাইড সেমিকন্ডাক্টর যা চার্জিংয়ের জন্য প্রয়োজনীয় সময়ের পরিমাণ যেমন কমাবে, তেমনি অ্যাডাপ্টরের আকারও ছোট হয়ে যাবে। এছাড়া এর অ্যাডাপ্টর, তার এবং এই প্রযুক্তি সমৃদ্ধ স্মার্টফোনে থাকছে পাঁচটি সুরক্ষা ফিচার।

বর্তমানে ওয়্যারলেস চার্জিংয়ের ব্যবহার বাড়ছে। এরই ধারাবাহিকতায় অপো এবার ওয়্যারলেস চার্জিংয়ে ব্যবহার করেছে ভোক প্রযুক্তি। অপোর ৩০ ওয়াট ওয়্যারলেস ভোক চার্জিং প্রযুক্তি ব্যবহার করে দ্রুত গতিতে ফোন চার্জ দেওয়া যাবে। অপোর ওয়্যারলেস ভোক চার্জার ব্যবহার করে ৪,০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের একটি ব্যাটারি চার্জ হতে সময় লাগবে ৮০ মিনিট। এটি কিউআই স্ট্যান্ডার্ড অনুযায়ী তৈরি করা হয়েছে। চার্জার গরম হওয়ার হাত থেকে রক্ষা করতে বিশেষভাবে এর হার্ডওয়্যার ডিজাইন করা হয়েছে। এছাড়া থাকছে আরও কিছু সুরক্ষা ফিচার। 

অন্যদিকে সম্পূর্ণ নতুনভাবে আনা হয়েছে ভোক ৪.০ চার্জিং প্রযুক্তি যা দেখা যাবে অপোর নতুন স্মার্টফোন কে৫-এ। এই চার্জিং প্রযুক্তিটি হবে পরবর্তী প্রজন্মের সবার জন্য সেরা চার্জিং সলিউশন। এর মাধ্যমে ৪,০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের একটি ব্যাটারি ৩০ মিনিটে ৬৭% চার্জ হবে এবং সম্প‚র্ণ চার্জ হতে সময় নেবে ৭৩ মিনিট যা এর আগের সংস্করণের তুলনায় ১২% দ্রæতগতির। আর এজন্য এতে ব্যবহার করা হয়েছে ভিএফসি অ্যালগরিদম। এই প্রযুক্তি এমনভাবে ডিজাইন করা হয়েছে যার ফলে স্মার্টফোন চার্জ দেওয়ার সময় গেম খেললেও ফোন গরম হবে না। 

অপোর নতুন তিন ভোক চার্জিং প্রযুক্তির বিষয়ে অপো বাংলাদেশের মার্কেটিং এবং পাবলিক রিলেশন্স ম্যানেজার ইফতেখার সানি বলেন, ‘ব্যবহারকারীদের স্মার্টফোন চার্জ দেওয়ার ধরনে বড় পরিবর্তন এনেছে ভোক ফ্ল্যাশ চার্জ প্রযুক্তি। ভবিষ্যতে ভোক, সুপার ভোক এবং ওয়্যারলেস ভোক প্রযুক্তির উন্নয়ন অব্যাহত রাখবে অপো’।

অপো:
বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় স্মার্টফোন ব্র্যান্ড অপো এর ক্রেতাদের শিল্প ও উদ্ভাবনী প্রযুক্তির মিশেলে তৈরি পণ্য সরবরাহের জন্যে একটি নিবেদিত প্রতিষ্ঠান। তারুণ্য, নতুন ট্রেন্ড/প্রবণতা সৃষ্টি আর সৌন্দর্যের প্রতীক একটি ব্র্যান্ড হিসেবে ডিজিটাল জীবনযাত্রার আরো অসাধারণ অভিজ্ঞতা নিশ্চিত করতে অপো বরাবরই তার গ্রাহকদের জন্যে নিয়ে আসে সর্বোত্তম সেবা দিতে সক্ষম ইন্টারনেট অপটিমাইজড প্রোডাক্ট। এই ব্র্যান্ডের হাত ধরেই সূচনা হয় ‘সেলফি বিউটিফিকেশন’ এর এক নতুন যুগ। স্মার্টফোন জগতে নিজেদের এক ভিন্ন ভাবমূর্তি প্রতিষ্ঠায় ‘অপো’ নিয়ে এসেছে ‘মোটোরাইজড রোটেটিং’ ক্যামেরা, আল্ট্রা এইচডি ফিচার, ৫এক্স ডুয়াল ক্যামেরা জুম প্রযুক্তি। ২০১৬ সালে ‘অপো’র সেলফি-বিশেষজ্ঞ খ্যাত ‘এফ’ সিরিজ বাজারে আসার পরপরই স্মার্টফোন জগতে সেলফি তোলার প্রবণতা সৃষ্টিতে অগ্রগ্রামী ভ‚মিকা রাখে অপো। ২০১৭ সালে আইডিসি এর র‌্যাংকিং অনুসারে অপো বিশ্বের চতুর্থ সেরা স্মার্টফোন ব্র্যান্ড হিসেবে নির্বাচিত হয়। বর্তমানে ৪০টি দেশে ২০ কোটির অধিক গ্রাহক আর ৪,০০,০০০ এর অধিক স্টোর আর বিশ্বজুড়ে ৪টি রিসার্চ এন্ড ডেভেলপমেন্ট সেন্টারের মিশেলে বিশ্বজুড়েই তরুণদেরকে স্মার্টফোন ফটোগ্রাফিতে সর্বোৎকৃষ্ট অভিজ্ঞতা দিয়ে চলেছে অপো। ২০১৮ সালে ‘ফাইন্ড এক্স’ নিয়ে আসার মাধ্যমে অপো প্রবর্তন করে আজ অবধি বাজারে থাকা স্মার্টফোনগুলোর মাঝে সর্বোচ্চ ৯৩.৮% স্ক্রিন-টু-বডি অনুপাতের প্যানারমিক আর্ক ডিজাইনের ডিসপ্লে। এছাড়াও সম্প্রতি ‘আর১৭’ এর মাধ্যমে অপো নিয়ে এসেছে সুপার-ভোক ফ্ল্যাশ চার্জিং প্রযুক্তি।