Opu Hasnat

আজ ২১ নভেম্বর বৃহস্পতিবার ২০১৯,

দীঘিনালায় সংঘাত বন্ধ ও ঐক্যের দাবিতে সমাবেশ খাগড়াছড়ি

দীঘিনালায় সংঘাত বন্ধ ও ঐক্যের দাবিতে সমাবেশ

‘অবিলম্বে ভাইয়ে ভাইয়ে সংঘাত বন্ধ কর’ ও ‘মুক্তির লক্ষে জাতীয় ঐক্য গড়ে তুলুন’ এসব দাবি সম্বলিত শ্লোগানে ইউপিডিএফ, পিসিজেএসএস ও পিসিজেএসএস (এমএন লারমা) এই তিন দলের মধ্যে ঐক্যের দাবিতে মিছিল-সমাবেশ করেছে দীঘিনালা উপজেলার সাধারণ জনগণ।

শুক্রবার (১১ অক্টোবর ২০১৯) সকালে দীঘিনালা এলাকাবাসীর ব্যানারে উপজেলার পৃথক দু’টি স্থানে (উদোল উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ ও বাবুছড়া মুখ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ) এলাকার সর্বস্তরের জনগণ মিছিল-সমাবেশ মিলিত হয়। এ সময় মিছিল-সমাবেশে অংশগ্রহণকারীরা ঐক্যের দাবি জানিয়ে বিভিন্ন শ্লোগান দেয় এবং প্লাকার্ড বহন করে। 

প্ল্যাকার্ডগুলোতে ‘ইউপিডিএফ-পিসিজেএসএস-পিসিজেএসএস (লারমা) ঐক্য চাই’, ‘বৃহত্তর জুম্ম জাতীয় ঐক্য গড়ে তুলুন’, ‘জুম্মদের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টির ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে সোচ্চার হোন’, ‘যারা সংঘাত চায় তারা জাতির শত্রু, ‘নিজেদের মধ্যে সংঘাত নয় বাঁচার জন্য লড়াই চাই’, ‘ভাইয়ে ভাইয়ে হানাহানি বন্ধ কর’... ইত্যাদি শ্লোগান লেখা ছিল।

সকাল সাড়ে ৯টায় উদাল বাগান উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠিত সমাবেশে উদাল বাগান মহিলা কার্বারী চম্পা চাকমার সঞ্চালনায় এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন দীঘিনালা ইউপির সাবেক মেম্বার কৃপা রঞ্জন চাকমা। এছাড়া সমাবেশে এলাকার বিভিন্ন গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। 

অপরদিকে, সকাল সাড়ে ১০টায় বাবুছড়া মুখ উচ্চ বিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বাবুছড়া নুয়ো আদাম কার্বারী পূর্ণ চন্দ্র চাকমার সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন বাবুছড়া ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের মেম্বার শান্তি প্রিয় চাকমা ও ৪, ৫, ৬নং ওয়ার্ড মহিলা মেম্বার প্রতিভা চাকমা।

বক্তারা বলেন, জুম্ম দলগুলোর মধ্যেকার চলমান সংঘাত জাতির জন্য অভিশাপ। সংঘাত ধ্বংস ছাড়া কোন কিছুই সৃষ্টি করে না। ভাইয়ের হাতে ভাই খুন হলে কখনো জাতির অধিকার অর্জিত হয় না। অধিকার আদায়ের লক্ষে জুম্ম দলগুলোকে অবশ্যই চলমান সংঘাত বন্ধ করে বৃহত্তর জাতীয় ঐক্য গড়ে তুলতে হবে।

বক্তারা আরো বলেন, জুম্ম দলগুলোর মধ্যেকার সংঘাতের কারণে জাতি চরম ক্ষতির শিকার হচ্ছে। কিন্তু শাসকশ্রেণী এই সংঘাতকে জিইয়ে রাখতে নানা কৌশল অবলম্বন করে জাতি ধ্বংসের ষড়যন্ত্র অব্যাহত রেখেছে। কাজেই শাসকশ্রেণীর এই পাতানো ফাঁদ থেকে জুম্ম দলগুলোকে বেরিয়ে আসতে হবে।

তারা বলেন, ইউপিডিএফ-পিসিজেএসএস-পিসিজেএসএস(লারমা) যদি ঐক্যবদ্ধভাবে আন্দোলন করে তাহলে জনগণ ঘরে বসে থাকবে না। জাতির বৃহত্তর স্বার্থে জনগণ আন্দোলনে অংশগ্রহণ করবে। তাই আমরা অবিলম্বে সংঘাত বন্ধ করে বৃহত্তর ঐক্য গড়ে তোলার জন্য জুম্ম দলগুলোর প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি। দীঘিনালা এলাকাবাসীর পক্ষে-গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম সহ-সাধারণ সম্পাদক বরুন চাকমা স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।