Opu Hasnat

আজ ১০ ডিসেম্বর মঙ্গলবার ২০১৯,

মুন্সীগঞ্জে প্রতিমা মেলা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক মুন্সিগঞ্জ

মুন্সীগঞ্জে প্রতিমা মেলা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক

হিন্দু সম্প্রদায়ের প্রধান ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা। প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে। মুন্সীগঞ্জে বিজয়া দশমী উপলক্ষ্যে শতবর্ষের ঐতিহ্য সিরাজদিখান তালতলা বাজারের দশমী মেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ মেলাকে ঘিরে প্রতিবছরের ন্যায় প্রতিমা প্রতিযোগীতা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়। মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১১ টায় উপজেলার মালখানগর ইউনিয়নের তালতলা বাজারের লক্ষ্মী কালী মন্দিরে পুরস্কার বিতরণ করা হয়। 

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে পুরস্কার বিতরণ করেন জেলা প্রশাসক মো. মনিরুজ্জামান তালুকদার। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিরাজদিখান উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান হাজী মহিউদ্দিন আহমেদ, এডিসি (শিক্ষা) খান মো. নাজমুল সোয়েব, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশফিকুন নাহার। 

উপজেলা আওয়ামীলীগ মহিলা সম্পাদিকা ও পুজা উদযাপন কমিটির আহবায়ক সীমা রানী ব্যানার্জী’র সভাপতিত্বে আরো অতিথিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, এনডিসি রুফকুল ইসলাম, কমিশনার রিয়াজুল ইসলাম, কমিশনার ইলিয়াছ শিকদার, থানা অফিসার ইনচার্জ মো. ফরিদ উদ্দিন।

সহকারি অধ্যাপক প্রিয় শঙ্কর বন্দোপাধ্যায়ের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন জেলা হিন্দু-বৌদ্ধ- খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সুবীর চক্রবর্তী। 

এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা ও সাবেক লতব্দী ইউপি চেয়ারম্যান ফজলুল হক, উপজেলা আওয়ামীলীগ সাংগঠনিক সম্পাদক ও রশুনিয়া ইউপি চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন, উপজেলা আওয়ামীলীগ দপ্তর সম্পাদক ঢালী মো. শহিদুল ইসলাম, মালখানগর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি আনিছ মৃধা, সাধারণ সম্পাদক মাসুদ খান, লক্ষী কালী মন্দিরের সভাপতি সংগ্রাম দাস, সাধারণ সম্পাদক অনিল কুমার প্রমুখ।
 
অনুষ্ঠানে জেলার বিভিন্ন অঞ্চলের ৯ টি প্রতিমা অংশ গ্রহণ করে। দুই গ্রুপে পুরস্কার দেওয়া হয় ক গ্রুপে টঙ্গবিাড়ি উপজেলার শিলিমপুর প্রথম স্থান অধিকার করে ও সিরাজদিখান উপজেলার ইছাপুরা মন্ডপের প্রতিমা ২য় ও তালতলা মন্ডপের প্রতিমা ৩য় হয়। তাদেরকে এলইডি টেলিভিশন পুরাস্কার দেওয়া হয়।