Opu Hasnat

আজ ১৭ অক্টোবর বৃহস্পতিবার ২০১৯,

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার অভিযান

সিরাজদিখানে সরকারি খাল ভরাট করে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ মুন্সিগঞ্জ

সিরাজদিখানে সরকারি খাল ভরাট করে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ

মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানে সরকারি খাল ভরাট করে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ করা চলছে। প্রায় ১০ কোটি টাকা পরিমানের জায়গা দখল করেছে কয়েকজন প্রভাবশালী। এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে বিষয়টি অবহিত করেন স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান। খবর পেয়ে দুপরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশফিকুন নাহার অভিযান করে ২ দিনের মধ্যে স্থাপনা সরিয়ে নেয়ার নির্দেশ দেন।

জেলার সিরাজদিখান বাজার ও থানা সংলগ্ন সার পট্টির পাশে ৬০ ফিট প্রস্থ ও প্রায় ৪ শত ফিট দৈর্ঘ্য খালের জায়গা দখল হয়ে যায়। থানার পাশে কিছু জায়গা বালু দিয়ে  ভরাট করায় সুযোগে গত কিছুদিন আগে রাতের আধারে বালু দিয়ে খালটি ভরাট করে ফেলে। এতে বাজারের ড্রেনেজ ব্যবস্থা বন্ধ হয়ে যায়। বাজার দোকান মালিক আক্তার, উপজেলা আওয়ামীলীগ সহ-সভাপতি দলিল উদ্দিন, সিরাজ মোল্লা, জাকির মুন্সী, রশুনিয়া ইউপি সদস্য মমতাজ মেম্বার, মোস্তাফিজুর রহমান তালুকদার, মঈনউদ্দিন ও ইসলাম শেখ খাল ভরাট করে স্থাপনা নির্মাণ করেছেন। এ বিষয়ে দোকান মালিকদের কাছে জানতে চাইলে তারা কোন কথা বলতে রাজী হননি।

রশুনিয়া ইউপি চেয়ারম্যান ও বাজার উন্নয়ন কমিটির সভাপতি ইকবাল হোসেন জানান, বাজারের পূর্ব পাশে একটি মাত্র বড় খাল ছিল। দুঃখের বিষয় খালটি বালু দিয়ে ভরাট করে দখল করা হয়েছে। 

থানা ওসি (প্রশাসন) ফরিদ উদ্দিন জানান, বিষয়টি বাজার কামটি ও ভূমি সংক্রান্ত তারা দেখবেন পুলিশ চাইলে আমি দেব।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশফিকুন নাহার  জানান, সিরাজদিখান বাজার ও থানা সংলগ্ন যে খালটি আছে। সেখানে কিছু দোকান মালিকরা অবৈধ স্থাপনা করেছে। যা কিনা বাজার ও ড্রেনেজ ব্যবস্থাপনায় খুবি ক্ষতিকারক। অভিযান চালিয়েছি প্রয়োজনে উচ্ছেদের ব্যবস্থা নেয়া হবে। 

এই বিভাগের অন্যান্য খবর