Opu Hasnat

আজ ১৬ অক্টোবর বুধবার ২০১৯,

৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে স্যামসাং বাংলাদেশের অভিনব আয়োজন তথ্য ও প্রযুক্তি

৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে স্যামসাং বাংলাদেশের অভিনব আয়োজন

প্রায় ৫০ বছর আগে স্যামসাং সাদা-কালো টিভি উন্মোচন করেছিল। পরবর্তীতে মোবাইল ডিভাইস, কনজ্যুমার ইলেকট্রনিক্স এবং হোম অ্যাপলায়েন্স পণ্যে কাটিং-এজ প্রযুক্তি নিয়ে আসে প্রতিষ্ঠানটি। এই বর্ণাঢ্য পথচলায় স্যামসাং ইলেকট্রনিক্স তাদের উদ্ভাবনী পণ্যের মাধ্যমে বিশ্বব্যাপী বহু মানুষের হৃদয় জয় করেছে। স্যামসাং বিপুলসংখ্যক মানুষের জীবনধারায় নিয়ে এসেছে পরিবর্তন, যা প্রতিষ্ঠানটির চলমান উদ্ভাবন ছাড়া কখনোই সম্ভব হত না। মানুষের বাসায় এসেছে নিত্যনতুন টেলিভিশন কিংবা পকেটে উদ্ভাবনী প্রযুক্তির স্মার্টফোন এর অনন্য দৃষ্টান্ত।   

বৈশ্বিকভাবে স্যামসাং ইলেকট্রনিক্সের ৫০ বছর এবং বাংলাদেশে প্রতিষ্ঠানটির এক দশক পূর্তির এই শুভক্ষণে, স্যামসাং বাংলাদেশ অভিনব সব অফারে চালু করেছে একটি ক্যাম্পেইন। এই অফারের আওতায় ক্রেতারা স্যামসাং গ্যালাক্সি স্মার্টফোন এবং কনজ্যুমার ইলেকট্রনিক্স ক্রয়ের ক্ষেত্রে নিশ্চিত ক্যাশ ব্যাক সুবিধা পাবেন।

সীমিত সময়ের এই বিশেষ অফারে, স্যামসাং ক্রেতাদের চারটি স্মার্টফোন (গ্যালাক্সি এ৩০, গ্যালাক্সি এ৫০, গ্যালাক্সি এ৮০ এবং গ্যালাক্সি নোট নাইন) ক্রয়ের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ১০০% পর্যন্ত ক্যাশ ব্যাক সুবিধা দিচ্ছে। গ্যালাক্সি এ৩০ এবং গ্যালাক্সি এ৫০ ক্রয়ের ক্ষেত্রে নিশ্চিতভাবে সর্বনিম্ন ২০০০ টাকা, গ্যালাক্সি এ৮০ ক্রয়ের ক্ষেত্রে ১৮,০০০ টাকা এবং নোট নাইন ক্রয়ের ক্ষেত্রে ২০,০০০ টাকা ক্যাশব্যাক সুবিধা পাবেন। ক্রেতাদের পাঠানো এসএমএস-এর উপর ভিত্তি করে স্বয়ংক্রীয়ভাবে  সফটওয়্যারের মাধ্যমে ক্যাশ ব্যাকের টাকার পরিমান নির্ধারণ করা হবে।     

নির্ধারিত রেফ্রিজারেটর, টেলিভিশন, ওয়াশিং মেশিন, এয়ার কন্ডিশনার এবং মাইক্রোওভেন ক্রয়ের ক্ষেত্রে ক্রেতারা ৫০% পর্যন্ত ক্যাশ ব্যাক সুবিধা পাবেন। দুটি অফারই আগামী ০৪ অক্টোবর শুরু হয়ে শেষ হবে ১৩ অক্টোবর। ক্রেতারা পণ্য ক্রয়ের সময় শো-রুম থেকে এসএমএম পাঠানোর মাধ্যমে এই সুযোগ লাভ করতে পারবেন।

এ প্রসঙ্গে স্যামসাং বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক স্যাংওয়ান ইউন বলেন, “এটি আমাদের জন্য একটি বিশেষ অর্জন। কনজ্যুমার প্রযুক্তির ভবিষ্যত নির্মাণে স্যামসাং ইলেক্ট্রনিক্স নতুন দিগন্তের উন্মোচন করেছে। স্যামসাং-এর ৫০ বছর পূর্তি আমাদের জন্য বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ অর্থবহন করে। সফলতার সাথে এই দীর্ঘ পথচলায় আমাদের সঙ্গী হওয়ার জন্য আমরা ক্রেতাদের আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানাই। সেই সাথে আমরা আমাদের পার্টনার, প্রতিষ্ঠানে নিয়োজিত ব্যক্তিবর্গ এবং অংশীদারদেরও ধন্যবাদ জানাই। আমরা ভবিষ্যতেও আমাদের উন্নতির ধারা অব্যাহত রাখব এবং বাংলাদেশের ক্রেতাদের জন্য আধুনিক প্রযুক্তির উদ্ভাবন নিয়ে আসব। এ বছর স্যামসাং-এর ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে আমাদের সম্মানিত ক্রেতাদের স্যামসাং পণ্যে বিশেষ অফার দিতে পেরে আমরা সত্যিই আনন্দিত।”