Opu Hasnat

আজ ১ জুন সোমবার ২০২০,

বাজারে এলো ৫০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি ও কোয়াড ক্যামেরাযুক্ত ‘অপো এ৫ ২০২০’ তথ্য ও প্রযুক্তি

বাজারে এলো ৫০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি ও কোয়াড ক্যামেরাযুক্ত ‘অপো এ৫ ২০২০’

বাংলাদেশের বাজারে বিক্রয় শুরু হলো সাশ্রয়ী মূল্যে ৫,০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি এবং কোয়াড ক্যামেরাযুক্ত অপো এ৫ ২০২০। ‘মিরর ব্ল্যাক’ এবং ‘ড্যাজলিং হোয়াইট’ এ দুটি রঙের সংস্করণে ফোনটি পাওয়া যাচ্ছে ১৯,৯৯০ টাকায়।

দৈনন্দিন জীবনে ব্যবহার উপযোগিণা সম্পন্ন স্মার্টফোন ডিজাইনের ক্ষেত্রে বিশেষ সুনাম রয়েছে বিশ্বখ্যাত স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান অপো’র। ‘অপো এ৫ ২০২০’ বাজারে নিয়ে আসার মাধ্যমে আবারো বহাল রইলো এই সুনামের ধারা। সাশ্রয়ী মূল্যের এই স্মার্টফোনটি ডিজাইনের ক্ষেত্রে বিবেচনায় নেয়া হয়েছে অনেক কিছুই। বিশেষ করে যেসব গ্রাহক দীর্ঘ সময়ের জন্যে বাইরে অবস্থান করেন কিংবা নিয়মিত ভ্রমণ করেন তাদের ক্ষেত্রে ঘন ঘন ফোন চার্জ করে নেয়াটা বেশ ঝক্কির কাজ। এমন গ্রাহকদের চাহিদা প‚রণে অপো তাই নিয়ে এলো ৫,০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি যুক্ত অপো এ৯ ২০২০ স্মার্টফোনটি। বড় ব্যাটারি থাকায় একটানা ব্যবহারের ক্ষেত্রেও চার্জ শেষ হয়ে যাওয়ার আতঙ্ক থেকে এর ব্যবহারকারীরা থাকতে পারবে চিন্তামুক্ত। এছাড়াও নিয়মিত ভ্রমণকারীদের পছন্দের মুহ‚র্তগুলো ধারণ করে রাখতে ফোনটিতে স্থাপন করা হয়েছে চার ক্যামেরার সমন্বয়ে কোয়াড ক্যামেরা সেটআপ। ফোনটিতে থাকছে স্ন্যাপড্রাগন ৬৬৫ মোবাইল প্ল্যাটফর্ম, ৪ গিগাবাইট র‌্যাম এবং ১২৮ গিগাবাইট ইন্টারনাল মেমোরি। 

অপোর এই নতুন স্মার্টফোনটি প্রসঙ্গে অপো বাংলাদেশের ম্যানেজিং ডিরেক্টর মি. ডেমন ইয়াং বলেন, “বাংলাদেশের বাজারে অপো এ৫ ২০২০ বিক্রয় শুরু হওয়ায় আমরা বেশ আনন্দিত। স্মার্টফোন ডিজাইনের ক্ষেত্রে অপো সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব প্রদান করে দৈনন্দিন ব্যবহার উপযোগীতা রয়েছে এমন সব ফিচারের প্রতি। ৫,০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি আর কোয়াড ক্যামেরা থাকায় নিয়মিত ভ্রমণকারীদের দৈনন্দিন ব্যবহারে বেশ স্বস্তি দেবে সাশ্রয়ী মূল্যের এই স্মার্টফোনটি।”

অপো :
বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় স্মার্টফোন ব্র্যান্ড অপো এর ক্রেতাদের শিল্প ও উদ্ভাবনী প্রযুক্তির মিশেলে তৈরি পণ্য সরবরাহের জন্যে একটি নিবেদিত প্রতিষ্ঠান। তারুণ্য, নতুন ট্রেন্ড/প্রবণতা সৃষ্টি আর সৌন্দর্যের প্রতীক একটি ব্র্যান্ড হিসেবে ডিজিটাল জীবনযাত্রার আরো অসাধারণ অভিজ্ঞতা নিশ্চিত করতে অপো বরাবরই তার গ্রাহকদের জন্যে নিয়ে আসে সর্বোত্তম সেবা দিতে সক্ষম ইন্টারনেট অপটিমাইজড প্রোডাক্ট। এই ব্র্যান্ডের হাত ধরেই সূচনা হয় ‘সেলফি বিউটিফিকেশন’ এর এক নতুন যুগ। স্মার্টফোন জগতে নিজেদের এক ভিন্ন ভাবমূর্তি প্রতিষ্ঠায় ‘অপো’ নিয়ে এসেছে ‘মোটোরাইজড রোটেটিং’ ক্যামেরা, আল্ট্রা এইচডি ফিচার, ৫এক্স ডুয়াল ক্যামেরা জুম প্রযুক্তি। ২০১৬ সালে ‘অপো’র সেলফি-বিশেষজ্ঞ খ্যাত ‘এফ’ সিরিজ বাজারে আসার পরপরই স্মার্টফোন জগতে সেলফি তোলার প্রবণতা সৃষ্টিতে অগ্রগ্রামী ভ‚মিকা রাখে অপো। ২০১৭ সালে আইডিসি এর র‌্যাংকিং অনুসারে অপো বিশ্বের চতুর্থ সেরা স্মার্টফোন ব্র্যান্ড হিসেবে নির্বাচিত হয়। বর্তমানে ৪০টি দেশে ২০ কোটির অধিক গ্রাহক আর ৪,০০,০০০ এর অধিক স্টোর আর বিশ্বজুড়ে ৪টি রিসার্চ এন্ড ডেভেলপমেন্ট সেন্টারের মিশেলে বিশ্বজুড়েই তরুণদেরকে স্মার্টফোন ফটোগ্রাফিতে সর্বোৎকৃষ্ট অভিজ্ঞতা দিয়ে চলেছে অপো। ২০১৮ সালে ‘ফাইন্ড এক্স’ নিয়ে আসার মাধ্যমে অপো প্রবর্তন করে আজ অবধি বাজারে থাকা স্মার্টফোনগুলোর মাঝে সর্বোচ্চ ৯৩.৮% স্ক্রিন-টু-বডি অনুপাতের প্যানারমিক আর্ক ডিজাইনের ডিসপ্লে। এছাড়াও সম্প্রতি ‘আর১৭’ এর মাধ্যমে অপো নিয়ে এসেছে সুপার-ভোক ফ্ল্যাশ চার্জিং প্রযুক্তি।

এই বিভাগের অন্যান্য খবর