Opu Hasnat

আজ ১১ ডিসেম্বর বুধবার ২০১৯,

এক বছর ঝুলে আছে কমিটি গঠনের ফাইল, ব্যহত হচ্ছে শিক্ষা কার্যক্রম দিনাজপুর

এক বছর ঝুলে আছে কমিটি গঠনের ফাইল, ব্যহত হচ্ছে শিক্ষা কার্যক্রম

দীর্ঘ এক বছর ধরে ঝুলে আছে পার্বতীপুর পৌর শহরের মনিরিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি গঠন কার্যক্রম। এতে স্থবির হয়ে পড়েছে বিদ্যালয়টির শিক্ষা, প্রশাসনিক ও অর্থনৈতিক কার্যক্রম। বিল বেতনে স্বাক্ষর নিতে ছুটতে হচ্ছে জেলা শিক্ষা অফিসারের নিকট। 

প্রধান শিক্ষকের অভিযোগ দিনাজপুর জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা শিক্ষক প্রতিনিধি মনোনয়ন আটকে রাখায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। জানা গেছে, মনিরিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের নিয়মিত ম্যানেজিং কমিটির মেয়াদ শেষ হয় গত বছরের ৮ সেপ্টেম্বর। মনিরিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের  প্রধান শিক্ষকের আবেদনের প্রেক্ষিতে দিনাজপুর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের ওই বছরের ১৯ সেপ্টেম্বর এ্যাডহক কমিটি গঠনের নির্দেশ দেয়। নিয়ম অনুযায়ী পার্বতীপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ৭ অক্টোবর অভিভাবক সদস্য মনোনয়ন প্রদান করেন। মনিরিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের  প্রধান শিক্ষক ওই দিনই শিক্ষক প্রতিনিধি মনোনয়ন চেয়ে তিনজন শিক্ষকের নাম দিয়ে জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তার নিকট আবেদন করে। তিনি তা আমলে না নিয়ে বিদ্যালয়ে কর্মরত সকল শিক্ষকের নামের তালিকা চেয়ে পাঠান। জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তার নির্দেশ মতো সকল শিক্ষকের নামের তালিকা ২০১৮ সালের ১৪ নভেম্বর জমা দেয়া হলেও রহস্যজনক কারণে দীর্ঘ প্রায় এক বছরেও শিক্ষক প্রতিনিধি মনোনয়ন দেওয়া হয়নি। উল্টো তিনি বিধি বহিভৃুতভাবে প্রধান শিক্ষককে বাধ্য করে নিজ স্বাক্ষরে রেজুলেশন করে বিদ্যালয়ের কর্মরত শিক্ষক সাগর কুমার রায় ও অনোনুমোদিত শাখা শিক্ষিকা সেবিনা ইয়াছমিনের উচ্চতর স্কেল প্রদানের জন্য রংপুর উপ-পরিচালক বরাবর আবেদন করেন। যদিও উপ-পরিচালক রংপুর ওই আবেদন নাকচ করেছেন।  

এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুর রউফ জানান, শিক্ষক প্রতিনিধি মনোনয়নের জন্য তিনি দিনাজপুর জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তার দপ্তরে এক বছর ধরে ঘুরছেন। কিন্তু জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা শিক্ষক প্রতিনিধি মনোনয়ন দিচ্ছে না। কেন দিচ্ছেন না তাও বলছেন না। যার ফলে কমিটি গঠন করা সম্ভব হচ্ছে না। ম্যানেজিং কমিটি না থাকায় বিদ্যালয়ে শিক্ষা সহ সবধরনের কার্যক্রম মারাত্মকভাবে ব্যহত হচ্ছে।

এ বিষয়ে দিনাজপুর জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম জানান, আমি এ বিষয়ে মতামত দিতে রাজী নই উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের চাপ আছে।