Opu Hasnat

আজ ১৬ অক্টোবর বুধবার ২০১৯,

আলোচিত রিফাত হত্যা মামলার চার্জশিট গ্রহণ বরগুনা

আলোচিত রিফাত হত্যা মামলার চার্জশিট গ্রহণ

আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যা মামলার চার্জশিট গ্রহণ করেছেন আদালত। বুধবার বরগুনার জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম গাজী চার্জশিট গ্রহণ করেন। আদালত পলাতক নয় আসামির বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন।

এদিন আদালতে গ্রেপ্তার আসামিদের হাজির করা হয়। জামিনে থাকা ৭নং আসামি আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি ও ১৪নং আসামি আরিয়ান শ্রাবণ আদালতে উপস্থিত হন।

দুপুর আড়াইটার দিকে আদালতের বিচারক মামলার চার্জশিট গ্রহণ করেন। এ সময় তিনি পলাতক নয় জন আসামির বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করে ৩ অক্টোবর মামলার পরবর্তী তারিখ ধার্য করেন।

মামলার বাদীপক্ষের আইনজীবী মুজিবুল হক কিসলু জানান, এই মামলায় দুটি ভাগে ২৪ জনকে আসামি করে প্রতিবেদন জমা দিয়েছেন পুলিশের তদন্ত কর্মকর্তা। তাদের মধ্যে ১০ জনের জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ও ১৪ জনের শিশু আদালতে বিচার হবে।

জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে বিচারের জন্য ১০ আসামির মধ্যে  রিফাত ফরাজীকে ১নং আসামি করা হয়েছে। মামলার প্রধান সাক্ষী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি ৭নং আসামি। শিশু আদালতে বিচারের জন্য রিশান ফরাজীকে ১নং আসামি করা হয়েছে। 

আদালতে ছয় আসামি- আল কাইয়ুম ওরফে রাব্বি আকন, রেজোয়ান আলী খান হৃদয় ওরফে টিকটক হৃদয়, মো.  হাসান, রাফিউল ইসলাম রাব্বি, মো. সাগর ও কামরুল হাসান সায়মুনের পক্ষে জামিনের আবেদন করা হয়। শুনানি শেষে তাদের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করা হয়েছে।

রিফাত হত্যা মামলায় মোহাইমিনুল ইসলাম সিফাত (১৯), মো.  মুসা (২২), রাকিবুল হাসান রিফাত হাওলাদার (১৫), মো. নাইম (১৭), রাকিবুল হাসান নিয়ামত (১৫), সাইয়েদ মারুফ বিল্লাহ ওরফে মহিবুল্লাহ (১৭), মারুফ মল্লিক (১৭) ও প্রিন্স মোল্লাসহ (১৫) সহ নয় আসামি এখনো গ্রেপ্তার হয়নি। পলাতক এ সকল আসামির বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত।

উল্লেখ্য, গত ২৬ জুন সকালে প্রকাশ্যে বরগুনা সরকারি কলেজ গেটের সামনে রিফাত শরীফকে কুপিয়ে জখম করা হয়। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পর ওই দিন বিকেলে তার মৃত্যু হয়।