Opu Hasnat

আজ ২৩ অক্টোবর বুধবার ২০১৯,

দৌলতদিয়া ও দেবগ্রামে অবাধ-সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনে বদ্ধ পরিকর প্রশাসন রাজবাড়ী

দৌলতদিয়া ও দেবগ্রামে অবাধ-সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনে বদ্ধ পরিকর প্রশাসন

সারা দেশের আলোচিত-সমালোচিত গুরুত্বপূর্ণ রাজবাড়ী জেলার গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া ও দেবগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন সোমবার (১৬ সেপ্টেম্বর)। এই নির্বাচনকে কেন্দ্র করে চলছে ব্যাপক জল্পনা-কল্পনা। সাধারন ভোটারদের একটাই প্রশ্ন ? ‘নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে তো?’

এ রকম একটি পরিস্থিতিতে নির্বাচনের আগের দিন রবিবার দফায় দফায় নির্বাচনে সংশ্লিষ্টদের সাথে বৈঠক করেছেন রাজবাড়ীর জেলা প্রশাসক দিলসাদ বেগম ও পুলিশ সুপার মোঃ মিজানুর রহমানসহ র‌্যাব, বিজিবি, আনছারসহ প্রশাসনের কর্মকর্তারা। বৈঠকে নির্বাচনে দায়িত্ব পালনকারীদের অবাধ-সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ ভাবে নির্বাচন পরিচালনার দিক নির্দেশনা প্রদান করা হয়। 

রবিবার বেলা ১২ টায় গোয়ালন্দ ঘাট থানায় নির্বাচনে দায়িত্ব পালনকারী পুলিশ সদস্য ও আনছার সদস্যদের কঠোর ভাবে নির্বাচনী আচরনবিধি সমুন্নত রাখতে নির্দেশনা প্রদান করেন পুলিশ সুপার মোঃ মিজানুর রহমান। এরপর গোয়ালন্দ উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে কর্তব্যরত প্রিজাইডিং অফিসার ও বিভিন্ন বাহিনীর সদস্যদের দিক নির্দেশনা মুলক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

গোয়ালন্দ উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুবায়েত হায়াত শিপলুর সভাপতিত্বে মত বিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন রাজবাড়ীর জেলা প্রশাসক দিলসাদ বেগম। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন রাজবাড়ীর পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান, জেলা নির্বাচন কর্মকতা মোঃ হাবিববুর রহমান প্রমুখ। 

এ সময় নির্বাচনী পরিবেশ ও আইন সমুন্নত রাখতে সকলকে সর্বোচ্চ সতর্কতার সাথে দায়িত্ব পালন ও  যে কোন অনাকাঙ্খিত পরিস্থিতি মোকাবেলায় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী প্রস্তুত আছে জানিয়ে ভয়ভীতির উর্দ্ধে থেকে সংশ্লিষ্টদের দায়িত্ব পালনের নির্দেশ প্রদান করেন জেলা প্রশাসক দিলসাদ বেগম।

সভায় পুলিশ সুপার মোঃ মিজানুর রহমান বলেন, এ দু’টি নির্বাচন নিয়ে অনেকের মধ্যেই বিরূপ ধারনা আছে। কিন্তু এখনো পর্যন্ত নির্বাচন নিরপেক্ষ না হওয়ার মত কোন ঘটনা ঘটেনি। যাদের মধ্যে নির্বাচন সুষ্ঠু না হওয়ার আশঙ্কা আছে আগামী ১৭ তারিখে তাদের এই ধারনা ভুল বলে প্রমানিত করতে হবে।

জানা যানাগেছে. নদী ভাঙনের কারণে দৌলতদিয়া ও দেবগ্রাম ইউনিয়নের কয়েকটি ওয়ার্ড সম্পুর্ন নদী গর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। এতে করে ওয়ার্ড বিন্যাস ও সীমানা জটিলতা দেখা দেয়। এ প্রেক্ষিতে নির্ধারিত সময়ের ৩ বছর পর গোয়ালন্দ উপজেলা দৌলতদিয়া ও দেবগ্রাম ইউনিয়নে নির্বাচনের তারিখ নির্ধারন হয়েছিল ২৫ জুলাই। দীর্ঘ ৮ বছর পর ইউপি নির্বাচন, তাই নির্বাচনী এলাকায় সৃষ্টি হয়েছিল ব্যাপক প্রাণ চঞ্চলতা। কিন্তু আকষ্মিক বন্যার কারনে সেই প্রাণ চঞ্চলতায় ভাটা পড়ে। বন্যার পানিতে কয়েকটি ভোট কেন্দ্র ও আশপাশ এলাকা ডুবে যাওয়া নির্বাচনের মাত্র দুইদিন আগে গত ২৩ জুলাই নির্বাচন স্থগিত করে নির্বাচন কমিশন। ইউনিয়ন দু’টিতে ৫ জন চেয়ানম্যান এবং ৬০ জন সাধারন সদস্য (পুরুষ) ও ২০ জন সংরক্ষিত মহিলা সদস্য (মহিলা) সদস্য প্রতিদ্বন্দীতা করছেন। 

দৌলতদিয়ায় চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগ মনোনিত উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও দৌলতদিয়ার সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ নুরুল ইসলাম মন্ডল (নৌকা), বিদ্রোহী প্রার্থী যুবলীগ নেতা আব্দুর রহমান মন্ডল (আনারস) প্রতীক নিয়ে এবং দেবগ্রাম ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগ মনোনিত ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ হাফিজুল ইসলাম (নৌকা), বিদ্রোহী প্রার্থী সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ আতর আলী সরদার (আনারস) ও আব্দুল মান্নান মোল্লা (ঘোড়া প্রতীক) নিয়ে প্রতিদ্বন্দীতা করছেন। দৌলতদিয়া ইউনিয়নে মোট ভোটার সংখ্যা ২৫ হাজার ২৮৩ জন এবং দেবগ্রাম ইউপিতে ১১ হাজার ১০০ জন।