Opu Hasnat

আজ ২৩ সেপ্টেম্বর সোমবার ২০১৯,

গোয়ালন্দে সরকারী ক্যনেল উদ্ধারে অভিযান রাজবাড়ী

গোয়ালন্দে সরকারী ক্যনেল উদ্ধারে অভিযান

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে বন্ধ হয়ে যাওয়া সরকারী ক্যানেল (জলাধার) উদ্ধারে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান শুরু হয়েছে। 

শুক্রবার বিকেলে গোয়ালন্দ উপজেলার ছোটভাকলা ইউনিয়নের স্বরূপার চক গ্রামে এই উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভুমি) আব্দুল্লাহ আল মামুন।

জানাযায়, গোয়ালন্দ উপজেলার জমিদার ব্রীজ হতে রাজবাড়ী সদর উপজেলার খানখানাপুরগামী আঞ্চলিক সড়কের ছোটভাকলা ইউনিয়নের স্বরূপার চক গ্রামে পানির প্রবাহ ঠিক রাখার জন্য নির্মিত ব্রীজের দুই পাশে দোকান ঘর তৈরী করা হয়েছে। এছাড়া ওই ব্রীজের নিচ দিয়ে প্রবাহিত ক্যানেল ভরাট করে ওই এলাকার বিভিন্ন বসত বাড়ি থেকে সড়কে উঠার জন্য রাস্তা নির্মাণ করা হয়েছে। এ কারণে ওই ক্যানেল দিয়ে পানির প্রবাহ সম্পুর্ন বন্ধ হয়ে গেছে। কিছু দিনের মধ্যে ওই ক্যানেলের কোন অস্তিত্ব আর খুঁজে পাওয়া যাবে না। 

এ পরিস্থিতিতে গত এক সপ্তাহ আগে সেখানে নব নির্মিত একটি মার্কেটের নির্মাণ কাজ বন্ধ করার নির্দেশ দেয় প্রশাসন। সেই নির্দেশ উপেক্ষা করে মার্কেটের নির্মাণ কাজ চালিয়ে যায় স্থানীয় গোলজার মোল্লার ছেলে আব্দুল করিম মোল্লা। এ সংবাদের ভিত্তিতে সেখানে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয়।

মার্কেট নির্মানকারী আব্দুল করিম মোল্লা জানান, তার পৈত্রিক জমির উপর দিয়ে সরকারী রাস্তা নির্মান করা হয়েছে। তাই তিনি সরকারী জমিতে দোকান ঘর তুলছিলেন। শুধু তিনি না, অনেকেই এ ধরনের দোকান ঘর তুলে দীর্ঘদিন ধরে নির্বিঘ্নে ব্যবসা করছেন বলে তিনি জানান।

ক্যানেল ভরাট করে বাড়িতে যাতায়াতের রাস্তা নির্মান করা আবুল শেখ, জানান, এই ক্যানেল অনেক আগেই বন্ধ হয়ে গেছে। কোথাও কোথাও এ ক্যানেলের কোন অস্তিত্ব খুজে পাওয়া যাবে না। এ সময় তিনি দাবি করেন ক্যানেলের পানি প্রবাহের জন্য শুধু তাদেরকে ক্ষতিগ্রস্থ না করে যাদের স্থাপনা আছে সকলের স্থাপনাই উচ্ছেদ করতে হবে।

সহকারী কমিশনার (ভুমি) আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, অন্তত ৩০ ফুট প্রশস্ত এই ক্যানেলটি অবৈধ দখলদারদের কবলে পড়ে বন্ধ হয়ে গেছে। সকল দখলদারদের উচ্ছেদ করে ক্যানেলটি পুনঃখননের জন্য প্রকল্প প্রস্তাব পানি উন্নয়ন বোর্ডে পাঠানো হবে।