Opu Hasnat

আজ ২৩ সেপ্টেম্বর সোমবার ২০১৯,

কুষ্টিয়ায় ডেঙ্গুতে আক্রন্ত ৬৪৪ জন, কারণ খুঁজছে মেডিকেল টিম কুষ্টিয়া

কুষ্টিয়ায় ডেঙ্গুতে আক্রন্ত ৬৪৪ জন, কারণ খুঁজছে মেডিকেল টিম

ঈদ-উল-আযহার পর থেকে কুষ্টিয়ায় বেড়েই চলেছে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা। প্রশাসন, সরকারী দপ্তর, স্বাস্থ্য বিভাগ, পৌরসভা, উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদ একযোগে চেষ্টা করছে জেলায় ডেঙ্গুর প্রকোপ কমানোর জন্য। ছিটানো হচ্ছে মশার ঔষুধ। তবে কোন কিছুই কাজে দিচ্ছে না। বেড়েই চলেছে ডেঙ্গু রোগির সংখ্যা। 

কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের দেওয়া তথ্য মতে এ পর্যন্ত ডেঙ্গু রোগে জেলায় আক্রান্ত হয়েছে ৬৪৪ জন। বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৫৭ জন। গত ২৪ ঘন্টায় আরো ১১জন ডেঙ্গু শনাক্ত হয়েছে। 

শুধুমাত্র দৌলতপুর উপজেলায় ৫৯ জন ডেঙ্গু রোগীকে শনাক্ত করা হয়েছে। এর মধ্যে শুধুমাত্র কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার আড়িয়া ইউনিয়নের ছাতারপাড়ার দাইড়পাড়া গ্রামেই ৪২জন ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হয়েছে।

এছাড়া শুক্রবার উপজেলার ইউসুফপুর গ্রামে ৭ জন, কমালপুর গ্রামে ২ জন, খলিষান্ডন্ডি গ্রামে ৬ জন ও মহিষকুন্ডি গ্রামে ২ জন। 

এদিকে একই পাড়ায় ৪২ জন ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত হওয়ায় তার কারণ অনুসন্ধানে কাজ শুরু করেছে স্বাস্থ্য অধিদফতরের রোগতত্ত¡, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)। এজন্য ঢাকা থেকে প্রতিষ্ঠানের ৪ সদস্যের একটি বিশেষজ্ঞ মেডিকেল টিম এসে কাজ করছেন কুষ্টিয়ায়।

শুক্রবার (৩০ আগস্ট) বিকেলে তারা কুষ্টিয়ায় আসেন। আজ শনিবার (৩১ আগস্ট) এবং রবিবার (০১ সেপ্টেম্বর) তারা কুষ্টিয়ায় কাজ করবেন বলে জানা গেছে। 

ঢাকা থেকে আসা আইইডিসিআর দলের প্রধান ডা. অনুপম সরকার জানান, আমরা শনিবার সকাল থেকেই রোগীদের সঙ্গে কথা বলেছি, নমুনা সংগ্রহে কাজ করছেন। ছাতারপাড়া গ্রামে এডিস মশার লার্ভা শনাক্তে কাজ চলছে। এখনই কিছু বলা যাবে না। নমুনা সংগ্রহের পর তা ঢাকায় নিয়ে গবেষণার পর ডেঙ্গু বিস্তারের আসল কারণ জানা যাবে।