Opu Hasnat

আজ ১৬ সেপ্টেম্বর সোমবার ২০১৯,

আলীকদম প্রেসক্লাব কর্তৃপক্ষের বিবৃতি মিডিয়াবান্দরবান

আলীকদম প্রেসক্লাব কর্তৃপক্ষের বিবৃতি

আলীকদম (বান্দরবান) : বান্দরবান পার্বত্য জেলায় র্দীঘ ২১ বছর পূর্বে প্রতিষ্ঠিত আলীকদম প্রেসক্লাব নিয়ে একটি মহলের ষড়যন্ত্রের বিষয়ে বিবৃতি দিয়েছেন প্রেসক্লাব সভাপতি এবং দৈনিক যুগান্তর ও দৈনিক পূর্বকোণ প্রতিনিধি মমতাজ উদ্দিন আহমদ এবং সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক ইত্তেফাক প্রতিনিধি দেশমনি তঞ্চঙ্গ্যা। 

বিবৃতিতে তারা বলেন, আমরা গভীর উদ্বেগের সাথে লক্ষ্য করছি যে, গত ৮ আগস্ট ২০১৯ থেকে কয়েকটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল, দু’একটি দৈনিক পত্রিকা এবং ফেসবুকে আলীকদম প্রেসক্লাবের কথিত নতুন কমিটি গঠন সংক্রান্ত সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। এ ব্যাপারে আলীকদম প্রেসক্লাব কর্তৃপক্ষ দীর্ঘ পর্যবেক্ষণের পর প্রশাসন ও জনমনে বিভ্রান্তি নিরসনের লক্ষ্যে নিন্মোক্ত ব্যাখ্যা উপস্থাপন করছে- 

‘আজ থেকে ২১ বছর পূর্বে ১৯৯৮ খ্রিস্টাব্দে পেশাদার কয়েকজন সংবাদকর্মীর নিরলস প্রচেষ্টায় ‘আলীকদম প্রেসক্লাব’ প্রতিষ্ঠা লাভ করে। ১৯৯৯ সালে প্রেসক্লাবের অস্থায়ী কার্যালয় ছিলো আলীকদম উপজেলা গণপাঠাগার। ২০০০ সালে নিজস্ব জমিতে সর্বপ্রথম আলীকদম প্রেসক্লাবের টিনসেট ঘর নির্মিত হয়। ২০০৫, ২০০৭ এবং ২০১৬ সালে পর্যায়ক্রমে ত্রিতল ফাউন্ডেশনে চারকক্ষ বিশিষ্ট আলীকদম প্রেসক্লাবের ভবন নির্মাণ করা হয়। আলীকদম প্রেসক্লাবের ক্রমোন্নতি হয়েছে সদাশয় সরকারের অনুদান ও পেশাদার সাংবাদিকদের নিরলস প্রচেষ্টায়। 

উল্লেখ্য, ১৯৯৯ সালে আলীকদম প্রেসক্লাব এর গঠনতন্ত্র রচিত হয়। গঠনতন্ত্রের নিরিখে তিনবছর পর পর প্রেসক্লাবের নতুন কমিটি গঠিত হয়। 

গত ৮ আগস্ট আলীকদম হোটেল দৈনিক পূর্বদেশ পত্রিকার কথিত প্রতিনিধির সভাপতিত্বে প্রেসক্লাবের যে কমিটি গঠনের কথা অনলাইন পোর্টাল ও ফেসবুকে প্রচার করেছে তা সর্বৈব মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। কারণ আলীকদম হোটেল কর্তৃপক্ষ তাদের হোটেলে ৮ আগস্ট এ সংক্রান্ত বৈঠকের কথা অস্বীকার করেছেন। তাছাড়া দৈনিক পূর্বদেশ কর্তৃপক্ষ দ্ব্যর্থহীন ভাষায় ওই নামে আলীকদমে তাদের কোনো প্রতিনিধি নেই বলে জানিয়েছেন। 

যারা আলীকদম প্রেসক্লাবের কথিত কমিটি ঘোষণা করেছে তারা আলীকদম প্রেসক্লাবের কেউ নয়। এখানে উল্লেখ্য, ২০ বছর পূর্ব হতে আলীকদম প্রেসক্লাবের নিজস্ব কার্যালয় রয়েছে। অথচ এ ক্লাবের কথিত কমিটি গঠন করার ঘোষণা এসেছে একটি হোটেল থেকে! মিথ্যাচারের মাধ্যমেই কথিত কমিটি ঘোষণা হীনস্বার্থ চরিতার্থ করা ও বিকৃত মানসিকতার পরিচায়ক। মূলতঃ কতিপয় ব্যক্তি প্রেসক্লাবের স্বাধীনস্বত্ত্বাকে করায়ত্ব করার দুরভীসন্ধি নিয়ে কথিত কমিটি ঘোষণা করে জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করছে। 

বাংলাদেশে উপজেলা পর্যায়ে নিজস্ব জমিতে ভবন ও চত্ত্বর সম্বলিত যে ক’টি প্রেসক্লাব আছে তারমধ্যে আলীকদম প্রেসক্লাব অন্যতম। মূলত: প্রেসক্লাবে নিজস্ব জমি, অবকাঠামো ও ঐতিহ্যের প্রতি লোভের বশবর্তী হয়ে তারা প্রেসক্লাব প্রতিষ্ঠাদের বিরুদ্ধে লাগামহীন মিথ্যাচার করে যাচ্ছেন। অচিরেই এ প্রোপাগন্ডার বিরুদ্ধে প্রেসক্লাব কর্তৃপক্ষ আইনের আশ্রয় নিবেন। 

আমরা এ ব্যাপারে কাউকে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য অনুরোধ করছি।’