Opu Hasnat

আজ ২২ অক্টোবর মঙ্গলবার ২০১৯,

কেন্দ্রীয় ঈদগাহ জামে মসজিদে নামাজ আদায় করলেন পরিকল্পনামন্ত্রী

সুনামগঞ্জের ১৭ স্থানে ঈদুল আজাহার জামাত অনুষ্ঠিত সুনামগঞ্জ

সুনামগঞ্জের ১৭ স্থানে ঈদুল আজাহার জামাত অনুষ্ঠিত

মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব ঈদুল আজাহা উপলক্ষে সুনামগঞ্জের ১৭টি স্থানে ঈদের জামায়াত অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার সকাল ৮টায় শহরের কেন্দ্রীয় শাহ ঈদগাহ জামে মসজিদে নামাজ আদায় করেন সুনামগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য ও পরিকল্পনামন্ত্রী আলহাজ এম এ মান্নান। 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন হাইকোর্টের বিচারপতি মিসবাহ উদ্দিন রুমি, সুনামগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য এড. পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ, পুলিশ সুপার মোঃ মিজানুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোঃ শরিপুর ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোঃ হারুণুর রশিদ। 

এদিকে, সকাল সাড়ে ৮টায় শহরের তেঘরিয়া ঈদগাহ জামে মসজিদে নামাজ আদায় করেন সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ নুরুল হুদা মুকুট, জেলা যুবলীগের সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক মোঃ আসাদুজ্জামান সেন্টু পৌরসভার সাবেক ভারপ্রাপ্ত মেয়র ও জেলা যুবলীগের সিনিয়র সদস্য নুরুল ইসলাম বজলু, আরফিন নগর জামে মসজিদের নামাজ আদায় করেন সুনামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র নাদের বখত। 

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন- জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক এড. হায়দার চৌধুরী লিটন, সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক নুরুল ইসলাম নুরুল, সহ সভাপতি নাদীর আহমদ, জেলা পরিষদের সদস্য মোঃ জহিরুল ইসলাম, সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ শহীদুর রহমান, ওসি তদন্ত মোঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন, ডিবি ওসি কাজী মোক্তাদির হোসেন চৌধুরী, ডিআইও ওয়ান আনোয়ার হোসেন মৃধাসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা।  

নামাজ শেষে উপস্থিত সকল ধর্মপ্রান মুসলমানরা দেশ জাতি ও বিশ্ব মুসুলিম উম্মার সুখ শাস্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করে বিশেষ মোনাজত করা হয়। 

পরিকল্পনামন্ত্রী আলহাজ এম এ মান্নান দেশবাসীকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার তরফ থেকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন, শেখ হাসিনার সরকার দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুুষের কল্যাণে নিরলসভাবে কাজ করে চলেছেন। তিনি বলেন আমাদের মধ্যে রাজনৈতিক মতভেদ থাকতে পারে কিন্তু আমার জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যে স্বপ্নঁ নিয়ে ১৯৭১ সালে এদেশের মানুষকে সাথে নিয়ে যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেছিলেন একটি স্বনির্ভর অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ হবে। যেখানে রাস্তাঘাট, স্কুল কলেজ মসজিদ মাদ্রাসা ও মন্দির র্নিমাণ করে প্রতিটি ধর্মের মানুষ নির্বিঘ্নে তাদের ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠান পালন করবেন। তিনি  রাজনৈতিক মতভেদের  উধের্ব উঠে দেশের মানুষের কল্যাণে সবাইকে একত্রিত হয়ে কাজ করার আহবান জানান। 

এই বিভাগের অন্যান্য খবর