Opu Hasnat

আজ ১৪ ডিসেম্বর শনিবার ২০১৯,

বাংলাদেশকে হারিয়ে সিরিজ জিতলো শ্রীলঙ্কা খেলাধুলা

বাংলাদেশকে হারিয়ে সিরিজ জিতলো শ্রীলঙ্কা

৩ ম্যাচ সিরিজে এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ হারল বাংলাদেশ। সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই হোচট খায় বাংলাদেশ। সেখান থেকে আর ফেরত আসতে পারেনি টাইগাররা। মুশফিকুর রহিমের দৃঢ়তায় লড়াইয়ের পুজি পেলেও এ মাঠে জয়ের জন্য তা যথেষ্ট নয়। নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে মুশফিকের ৯৮ রানে ২৩৮ রান সংগ্রহ করে বাংলাদেশ। 

জবাবে ৭ উইকেটের জয় তুলে নেয় শ্রীলঙ্কা। শুরুটা ভালো  করেন লঙ্কানরা। ছন্নছাড়া বোলিংয়ে সুযোগ নিয়ে ওপেনিং জুটিতেই ৭১ রান সংগ্রহ করে স্বাগতিকরা। মিরাজের বলে বোল্ড হওয়ার আগে দিমুথ করুনারতেœ ২৯ বলে ১৫ রান করেন।

দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে করেন ৫৮ রান। ৮২ করা আভিস্কা ফার্নাদোকে তামিমের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে পাঠান মোস্তাফিজ। এর ১৭ রান পর লঙ্কান শিবিরে আবার আঘাত হানেন মোস্তাফিজ। এবার বিদায় করেন কুশল পেরেরাকে। আউট হওয়ার আগে কুশল পেরেরা করেন ৩০ রান। কুশল মেন্ডিস ও অ্যাঞ্জেলা মেন্ডিস জয় নিয়ে মাঠ ছাড়েন। কুশল মেন্ডিস করেন ৪১  ও অ্যাঞ্জেলা মেন্ডিস করেন ৫২ রান। 

এর আগে বাংলাদেশের ইনিংসের ২৬ রানেই ওপেনার সৌম্য সরকারের উইকেট হারায় বাংলাদেশ। ষষ্ঠ ওভারে এলবির ফাঁদে পড়েন এ ওপেনার। নুয়ান প্রদীপের বলে বিদায় নেওয়ার আগে বাঁহাতি এই ওপেনার ১৩ বলে একটি বাউন্ডারিতে করেন ১১ রান। 

দলীয় ৩১ রানের মাথায় বিদায় নেন বদলে দেয়া বাংলাদেশের কারিগরদের একজন তামিম ইকবাল। টানা ছয় ম্যাচে বোল্ড হয়ে ফিরলেন এ ওপেনার। আউটটা ছিলো দৃষ্টিকটু। ইসুরু উদানার বলে বোল্ড হওয়ার আগে বাঁহাতি এই ওপেনার ৩১ বলে দুই বাউন্ডারিতে করেন ১৯ রান। প্রথম পাওয়ার প্লেতে বাংলাদেশ দুই ওপেনারকে হারিয়ে তোলে ৩৫ রান।
 
মুশফিকের সঙ্গে ২১ রানের জুটি গড়ে বিদায় নেন মোহাম্মদ মিঠুন। দলীয় ৫২ রানের মাথায় মিঠুনের বিদায়ে বাংলাদেশ তৃতীয় উইকেট হারায়। সাকিবের অনুপস্থিতিতে তিন নম্বরে ব্যাট করতে নামা এই ব্যাটসম্যান ফিরেছেন ২৩ বলে ১২ রান করে।  আকিলা ধনাঞ্জয়ার বলে ক্যাচ তুলে দিয়েছেন কুসল মেন্ডিসের হাতে।

দলীয় ৬৮ রানে ফিরলেন মাহমুদউল্লাহও। আকিলা ধনাঞ্জয়ার বলে ক্লিন বোল্ড হয়ে ফিরলেন এ তারকা। ফেরার আগে করেন ১৮ বলে ৬ রান।  ব্যক্তিগত ৮ রান করে মুশফিক ওয়ানডে ক্যারিয়ারে ৬ হাজার রান স্পর্শ করেন।

গত ম্যাচে ফিফটি করা সাব্বির রহমান ফেরেন রান আউটে কাটা পড়ে। দলীয় ৮৮ রানে নিজের ভুলে সাজঘরে ফেরেন তরুণ এ ক্রিকেটার। তার ব্যাট থেকে আসে ১১ রান। ৪৩ রান করে নুয়ান প্রদীপের বলে করুনারত্নেকে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন মেহেদী হাসান মিরাজ। 

শেষ দিকে তাইজুলকে নিয়ে ৩০ রানের জুটি গড়েন মুশফিকুর রহিম। তাইজুল ৩ রান করে রানআউট হয়ে ফিরে আসেন।  মোস্তাফিজকে সঙ্গে নিয়ে খেলা শেষ করেন মুশফিক। মোস্তাফিজ করেন ২ রান।