Opu Hasnat

আজ ২৫ আগস্ট রবিবার ২০১৯,

কালকিনিতে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন মাদারীপুর

কালকিনিতে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন

মাদারীপুরের কালকিনিতে সম্প্রতি মহসিন মাতুব্বর (১৭) নামের এক তরুণ বিদ্যুৎস্পৃষ্টে দিনদুপুরে মাড়া যায়। আর এ ঘটনাকে পুজি করে অসহায় কৃষক মোঃ দুদু মিয়াসহ বেশ কয়েকজন নিরীহ লোকজনের নামে মামলা দিয়ে হয়রানি করে আসছে প্রতিপক্ষ। এ হয়রানির প্রতিবাদে ও পূনরায় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে নিহত তরুনের ময়না তদন্তের দাবিতে বৃহস্পতিবার সকালে স্থানীয় প্রেসক্লাবে এক সাংবাদিক সম্মেলন করেন ওই আসামী পক্ষের পরিবার।

লিখিত অভিযোগ সুত্রে জানাগেছে, উপজেলার চরফতে বাহাদুর গ্রামের আবদুল করিম মাতুব্বরের ছেলে মহসিন মাতুব্বর গত ১৩ জুন দুপুর ১২ টায় একটি কবুতরের খোপ নামাতে যায়। এসময় ওই খোপের সঙ্গে থাকা বৈদ্যুৎতিক তারে সখ লেগে মহসিন গুরুতর আহত হন। পরে স্থানীয় লোকজন তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত্যু ঘোষনা করেন। পরে নিহতের লাশ উদ্ধার করে কালকিনি থানা পুলিশ ময়না তদন্তের জন্য মাদারীপুর মর্গে প্রেরন করেন। ময়না তদন্ত শেষে নিহতের মরদেহ পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়ে। পরে মাদারীপুর সদর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ওই তরুনকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে বলে একটি সনদ প্রদান করেন। এ সনদ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ অনিয়ম-দূর্নীতির আশ্রয় নিয়ে প্রদান করেছেন বলে আসামী পক্ষ অভিযোগ করে জানান। 

এদিকে, ওই তরুনের মৃত্যুকে পুঁজি করে নিহতের বাবা করিম মাতুব্বর বাদী হয়ে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে একই এলাকার দিনমজুর কৃষক দুদু মিয়া, রাশেদ মাতুব্বর, এনায়েত মুন্সি ও জুনায়েত মুন্সিসহ ৮জনকে আসামী করে কালকিনি থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এ মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি এবং ওই মিথ্যা সনদ দেয়ার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেন আসামী পক্ষের পরিবার।

দুুদু মিয়া অভিযোগ করে বলেন, অনিয়মের আশ্রয় নিয়ে মাদারীপুর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ভুয়া সনদ প্রদান করেছেন এবং এদিকে আমরা মিথ্যা মামলার শিকার হয়ে পরিবার নিয়ে এলাকাছাড়া হয়েছি। বিদ্যুৎস্পৃষ্টে নিহত মহসিনের পূনরায় ময়না তদন্ত করার দাবি যানাই।

মামলার বাদী করিম মাতুব্বর বলেন, ডাক্তার সনদ দিয়েছে হত্যার তাই আমি হত্যা মামলা দায়ের করেছি।

মাদারীপুর সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার শসাঙ্ক চন্দ্র ঘোষ বলেন, বিবাদী পক্ষ দাবি করলে ওই তরুনের পূনরায় ময়না তদন্ত করা যাবে।

এ ব্যাপারে কালকিনি থানার ওসি মোঃ মোফাজ্জেল হোসেন বলেন, আমরা থানা কর্তৃপক্ষ পূনরায় ময়না তদন্তের জন্য আবেদন করেছি।