Opu Hasnat

আজ ১৩ ডিসেম্বর শুক্রবার ২০১৯,

মুন্সীগঞ্জে দাফনের দশ মাস পর যুবকের লাশ উত্তোলন মুন্সিগঞ্জ

মুন্সীগঞ্জে দাফনের দশ মাস পর যুবকের লাশ উত্তোলন

মুন্সীগঞ্জের সদর উপজেলার রামপাল ইউনিয়নের সিপাহীপাড়া কবরস্থান থেকে ময়নাতদন্তের জন্য দাফনের ১০মাস ৬দিন পর মো.রুবেল নামের এক যুবকের মৃতদেহ উত্তোলন করা হয়েছে।  মুন্সীগঞ্জ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের নির্দেশনায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কে.এম. রফিকুল ইসলামের তত্বাবধানে নিহতের মায়ের উপস্থিতিতে রোববার দুপুরে লাশের দেহাবশেষ উত্তোলন করা হয়। 

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ২০১৮ সালের ১৪ই সেপ্টেম্বর রাতে সদর উপজেলার সিপাহীপাড়া এলাকার মৃত হুমায়ন তালুকদারের পুত্র মো. রুবেলের বসতবাড়ীতে রহস্যজনক মৃত্যু ঘটে। পরদিন সকালে স্ত্রী’র বাড়ীর লোকজন সিপাহীপাড়া কবরস্থানে রুবেলকে ময়নাতদন্ত ছাড়াই দাফন করে। এ ঘটনায় সন্দেহ হলে নিহতের মা রহিমা বেগম বাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করলে চলমান মামলায় পরবর্তীকে নিহতের স্ত্রী ফাহিমা, শ্বাশুড়ী শ্যামলী ও শ্যালক এমরানকে গ্রেফতার করে পুলিশ। বর্তমানে তারা জেলা হাজতে রয়েছে। পরিবর্তীতে দাফনকৃত লাশ উত্তোলন করে ময়নাতদন্তের নির্দেশ দেয় আদালত।

মামলা বাদী রহিমা বেগম জানান, ঘটনার দিন আমি বাড়ীতে ছিলাম না, আমার ছেলেকে বিষ খাইয়ে মেরে ফেলা হয়েছে। ঘটনার দিন রাতে রুবেল আমাকে কল দিয়ে তাকে বিষ খাওয়ানোর কথা জানিয়েছিলো। পরদিন আমি বাড়িতে আসার আগেই ছেলের বউ ও স্ত্রী’র বাড়ির লোকজন মিলে রুবেলকে দাফন করে। ছেলে হত্যার বিচারের দাবীতে আমি আদালতে ঘুরছি। আমি এর সুষ্ঠ বিচার চাই।

এ বিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই একরামুল হাসান বলেন, আদালতের নির্দেশে লাশ উত্তোলন করা হচ্ছে। 

এ প্রসঙ্গে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কে.এম.রফিকুল ইসলাম জানান, আদালতের নির্দেশে ময়নাতদন্তের জন্য লাশটি উত্তোলন করা হয়েছে। লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।