Opu Hasnat

আজ ১৩ ডিসেম্বর শুক্রবার ২০১৯,

চট্টগ্রামে বৃষ্টিতেও বৃক্ষ প্রেমিকদের পদচারণায় বৃক্ষমেলা জমজমাট চট্টগ্রাম

চট্টগ্রামে বৃষ্টিতেও বৃক্ষ প্রেমিকদের পদচারণায় বৃক্ষমেলা জমজমাট

চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় উত্তর বন বিভাগ ও কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর যৌথ আয়োজনে নগরীর লালদিঘী মাঠে গত শনিবার থেকে শুরু হয়েছে ১৫ দিন ব্যাপী বৃক্ষরোপণ অভিযান, বনজ ও ফলদ বৃক্ষমেলা। প্রবল বৃষ্টির মধ্যেও বৃক্ষ প্রেমিকদের পদচারণায় জমজমাট হয়ে উঠেছে এ মেলা। সবুজে সবুজে ছেয়ে গেছে লালদিঘীর মাঠ। মেলার এরারের প্রতিপাদ্য বিষয়  হচ্ছে-“শিক্ষায় বন প্রতিবেশ, আধুনিক বাংলাদেশ”।

মেলা ঘুরে দেখা গেছে, টবের গাছে কাঁচা পাখা ফল, ফুল ও অর্কিড ক্যাকটাস নার্সারীর স্টলগুলোকে মনোরম করে তুলেছে। বন বিভাগের আকর্ষণীয় মডেলে পাহাড়, জনপদ, ঝুম, লেক, মৎস্য চাষ, বিভিন্ন বাগান, কেবল কার, বন্যপ্রাণী, বাংলাদেশ বন গবেষণা ইনস্টিটিউট এর বাঁশ চাষ পদ্ধতি ও নির্মাণ কৌশল মডেল, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের ফলদ প্রদর্শনী ইত্যাদি মেলায় আগত দর্শক ও ক্রেতাদের মুগ্ধ করেছে। এ বৃক্ষমেলায় বনজ, ফলদ, শোভাবর্ধণকারী, বিরল, বিলুপ্তপ্রায়, বনসাইসহ দেশী-বিদেশী প্রজাতির চারা দেখা গেছে। ক্রেতারা মেলার বিভিন্ন নার্সারী ঘুরে ঘুরে দেখছেন ও পছন্দসই গাছের ও দেশী-বিদেশী ফলের চারা ক্রয় করছেন।

চট্টগ্রাম উত্তর বন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা বখতিয়ার নুর সিদ্দিকী জানান, ঝড় বৃষ্টি উপেক্ষা করে লালদিঘীর মাঠে ১৫ দিন ব্যাপী বৃক্ষমেলার আয়োজন করা হয়েছে। এবারের মেলায় বনজ, ফলদ, বিরল, বিলুপ্তপ্রায়, দেশী-বিদেশী প্রজাতির চারা  রয়েছে। হরেক রকমের প্রদর্শনী দেখে মেলায় আগত দর্শনার্থীদের আকৃষ্ট করে তুলবে। যে কেউ অন্ততঃ একটি চারা ক্রয় করতে ইচ্ছে পোষন করবে। সকলের সহযোগিতা পেলে এ মেলার সুনাম সর্বত্র ছড়িয়ে পড়বে ও মেলার আয়োজন স্বার্থক হবে। 

মেলায় বন বিভাগের তথ্যকেন্দ্রে শহর রেঞ্জ কর্মকর্তা রেজাউল আলম জানান, এ মেলায় চট্টগ্রাম উত্তর বন বিভাগের নিয়ন্ত্রণ ও তথ্য কেন্দ্র, পুলিশ কন্ট্রোলরুম স্থাপনসহ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, বাংলাদেশ বন গবেষণা ইনস্টিটিউট, বন্যপ্রাণী ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগ, ন্যাশনাল নার্সারী, বনরূপা নার্সারী,  বাহাদুর নার্সারী, বাংলাদেশ নার্সারী, ফতেয়াবাদ নার্সারী, কসমো নার্সারী-১, কসমো নার্সারী-২, চিটাগাং নার্সারী-১, চিটাগাং নার্সারী-২, পুষ্পকলি নার্সারী, সবুজ বিপ্লব নার্সারী, চন্দন নগর বনফুল নার্সারী,  পুষ্প নার্সারী, আর.এন.জে নার্সারী, ব্র্যাক নার্সারী, কাশবন নার্সারী, সবুজ চট্টগ্রাম, চট্টগ্রাম বাগান পরিবার, ক্লে-ক্রাফট, মনের খেয়াল, বনসাই বাড়ী, তিলোত্তমা, কর্ণফুলীর কোলে সবুজের আঁচলে ও  প্রাকৃতিক মধুসহ সরকারী-বেসরকারী ৫০ টি স্টল স্থাপন করা হয়েছে। 

চট্টগ্রাম উত্তর বন বিভাগের সিনিয়র নকশাকার দেবাশীষ দত্ত জানান, এ মেলা দর্শক ও ক্রেতাদের জন্য প্রতিদিন সকাল ৯ টা হতে রাত ৯ টা পর্যন্ত উন্মুক্ত থাকবে।