Opu Hasnat

আজ ২০ অক্টোবর রবিবার ২০১৯,

দ্বাদশ বিশ্বকাপের পর্দা নামবে আজ খেলাধুলা

দ্বাদশ বিশ্বকাপের পর্দা নামবে আজ

ক্রিকেট বিশ্বকাপের আজ সেই মাহেন্দ্রক্ষণ। প্রায় দেড় মাস ও ৪৭ ম্যাচের লড়াই শেষে বিশ্বকাপ ক্রিকেট যুদ্ধের শেষ প্রান্তে দাঁড়িয়ে দ্বাদশ আসরটি। আজ ফাইনাল দিয়ে পর্দা নামবে দ্বাদশ বিশ্বকাপ ২০১৯ এর। এবারের আসরের ৪৮তম ও শেষ ম্যাচে বাংলাদেশ সময় ৩টা ৩০ মিনিটে লর্ডসে মুখোমুখি হচ্ছে স্বাগতিক ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ড। শিরোপা নির্ধারনী ম্যাচে লড়বে এই দু’দল। ফাইনাল শেষে আজকের উদযাপনটা হবে একেবারেই অন্যরকম। কারন ফাইনালের দু’দলের কেউই আগে কখনো শিরোপা জয়ের স্বাদ পায়নি। এমনকি ২৩ বছর পর বিশ্বকাপ পেতে যাচ্ছে নতুন চ্যাম্পিয়নকে। এজন্য লর্ডসের মত ফাইনালে মঞ্চে নিজেদের সেরাটা দিতে প্রস্তুতি সেড়েছে ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ড।

ফাইনালের মঞ্চে নিজেদের তৈরি করতে অস্থির হয়ে উঠেছেন ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ডের খেলোয়াড়রা। গতকাল স্থানীয় সময় সকাল ১০টায় অনুশীলন শুরু করে ইংল্যান্ড। প্রথমে শরীর গরম করে, ব্যাট-বল হাতে নেটে নেমে পড়েন ইংল্যান্ডের দুই ওপেনার জেসন রয় ও জনি বেয়ারস্টো। প্রায় ৩০ মিনিট ব্যাটিং করলেন তারা। নেটের অনুশীলনেও বেশ মারমুখী দেখালো রয়কে।

সেমিফাইনালের মত ফাইনালের মঞ্চে বিধ্বংসী রুপ দেখাতে চান রয়। দুই ওপেনারের সাথে পাশের নেটে ব্যাটিং নিয়ে ব্যস্ত জো রুট-জশ বাটলার। তাদের ব্যাটিং শেষে দীর্ঘক্ষণ অনুশীলন পর্ব সাড়লেন অধিনায়ক ইয়োইন মরগান। ব্যাটিং অনুশীলন করেই ফিল্ডিং-এ নেমে পড়েন মরগান। অল্প কিছুক্ষণ ফিল্ডিং শেষে সংবাদ সম্মেলনের জন্য নিজেকে তৈরি করে ফেললেন মরগান। তবে তখন লর্ডসের মাঠের পাশে ফিল্ডিং অনুশীলনে ব্যস্ত সময় কাটিয়েছেন দলের অনন্যারা।

মরগানের সংবাদ সম্মেলন শেষেই সাংবাদিকদের প্রশ্নের মুখোমুখি হন নিউজিল্যান্ডের অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। প্রায় ২৫ মিনিটে সংবাদ সম্মেলন শেষে অনুশীলন নেমে পড়ে কিউইরা। তাদের অনুশীলনে দেখা গেল সাবেক অধিনায়ক ব্রেন্ডন ম্যাককালামকে। হাইভোল্টেজ ম্যাচের আগে দলের খেলোয়াড়দের সাথে কথোপকথনে ব্যস্ত ছিলেন ম্যাককালাম।

ইংল্যান্ডের মত ৩ ঘন্টা অনুশীলন করেছে নিউজিল্যান্ডও। অনুশীলন শেষে মাঠের মধ্যে ১৫ মিনিটের মিটিং সাড়ে কিউইরা। মিটিং পর্ব সেরে ড্রেসিংরুমে ফিরে যায় নিউজিল্যান্ড।

দশটি দেশকে নিয়ে গেল ৩০ মে লন্ডনের কেনিংটন ওভালে ইংল্যান্ড-দক্ষিণ আফ্রিকার ম্যাচ দিয়ে পর্দা ওঠে দ্বাদশ বিশ্বকাপের। লিগ পর্বে প্রত্যকটি দল একে অপরের বিপক্ষে মুখোমুখি হয়। লিগ পর্বের মোট ৪৫টি ম্যাচ শেষে সেরা চার দল জায়গা কওে নেয় সেমিফাইনালে। দলগুলো হলো- ভারত, অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ড। শেষ চারে উঠতে পারেনি- পাকিস্তান, শ্রীলংকা, দক্ষিণ আফ্রিকা, বাংলাদেশ, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও আফগানিস্তান।

ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে সেমিফাইনালের ম্যাচ জিতে নেয় ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ড। প্রথম সেমিফাইনালে ভারতকে ১৮ রানে নিউজিল্যান্ড ও দ্বিতীয় সেমিতে ইংল্যান্ড ৮ উইকেটে হারায় অস্ট্রেলিয়াকে। ম্যানচেষ্টারের ওল্ড ট্রাফোর্ডে প্রথম সেমিতে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং বেছে নেয় নিউজিল্যান্ড। ৪৬ দশমিক ১ ওভারে ৫ উইকেটে ২১১ রান তুলে চাপে ছিলো নিউজিল্যান্ড। এরপর বৃষ্টির কারনে বন্ধ হয়ে যায় খেলা। পরবর্তীতে আর খেলা শুরু না হলে, রিজার্ভ’ডেতে গড়া ম্যাচটি। দ্বিতীয় দিন ভারতীয় বোলারদের নৈপুন্যে ৫০ ওভারে ৮ উইকেটে ২৩৯ রানের বেশি করতে পারেনি কিউইরা। জবাবে ব্যাট হাতে নেমে মহা বিপদে পড়ে ভারত। ৫ রানে ৩ উইকেট, ৯২ রানে ৬ উইকেট হারিয়ে বসে তারা। এতে ম্যাচ জয় সময়ের ব্যাপার ছিলো নিউজিল্যান্ডের। কিন্তু রবীন্দ্র জাদেজার ব্যাটিং দৃঢ়তায় লড়াইয়ে ফিরে ভারত। কিন্তু শেষদিকে, জাদেজা ৫৯ বলে ৭৭ ও ধোনি ৭২ বলে ৫০ রান করে ফিরে গেলে জয়ের স্বাদ পায় নিউজিল্যান্ড।

দ্বিতীয় সেমিতে বার্মিংহামের এডজবাস্টনে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং বেছে নেয় অস্ট্রেলিয়া। শুরু থেকেই ইংল্যান্ড বোলারদের তোপে পড়ে অসিরা। ১৪ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে বসে তারা। শুরুর ধাক্কাটা পরবর্তীতে সামাল দিলেও, শেষ পর্যন্ত ৪৯ ওভারে ২২৩ রানে গুটিয়ে যায় অসিরা। অস্ট্রেলিয়ার ২২৪ রানের টার্গেট স্পর্শ করতে হিমশিম খেতে হয়নি ইংল্যান্ডকে। ওপেনার জেসন রয়ের ৬৫ বলে ৮৫ রান ইংলিশদের জয় সহজ করে। ফলে সেমির ম্যাচ জিতে বিশ্বকাপের শ্রেষ্ঠত্ব অর্জনের লড়াইয়ের টিকিট পায় ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ড।

ইংল্যান্ড দল : ইয়োইন মরগান (অধিনায়ক), মঈন আলী, জোফরা আর্চার, জনি বেয়ারস্টো, জশ বাটলার, টম কারান, লিয়াম প্লাংকেট, লিয়াম ডসন, আদিল রশিদ, জো রুট, জেসন রয়, বেন স্টোকস, জেমস ভিন্স, ক্রিস ওকস ও মার্ক উড।

নিউজিল্যান্ড দল : কেন উইলিয়ামসন (অধিনায়ক), টম ব্লানডেল, ট্রেন্ট বোল্ট, কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম, লোকি ফার্গুসন, মার্টিন গাপটিল, ম্যাট হেনরি, টম লাথাম, কলিন মুনরো, জেমস নিশাম, হেনরি নিকোলস, মিচেল স্যান্টনার, ইশ সোধি, টিম সাউদি ও রস টেইলর। বাসস