Opu Hasnat

আজ ২০ আগস্ট মঙ্গলবার ২০১৯,

ছাতক পৌর শহরে জলাবদ্ধতায় নাগরিক জীবন অতিষ্ঠ সুনামগঞ্জ

ছাতক পৌর শহরে জলাবদ্ধতায় নাগরিক জীবন অতিষ্ঠ

ছাতক পৌর শহরের মান প্রথম শ্রেনী হলেও সেবার মান নিম্ন মানের। আপরিকল্পিত ড্রেনেজ ব্যবস্থা পৌর কর্র্তৃপক্ষের নকশা অনুমোদন ছাড়াই যত্রতত্র বাসাবাড়ি বসতঘর, ভবন নির্মান ও পর্যাপ্ত পরিমান ড্রেন না থাকায় সুষ্ঠভাবে পানি নিষ্কাসন হচ্ছে না। ফলে শহরের ব্যস্ততম প্রধান সড়কের পাশে মদরিছ ম্যানশন ও ছাতক সরকারী বহুমুখী মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে, মহসিন ফিল্ড, উপজেলা পরিষদ চত্তর, বাগবাড়ি, মন্ডলীভোগ, চরেরবন্দ, মোগল পড়া, তাতিকোনা, বৌলা, শ্যামপাড়া, বাজনামহল, কুমনা ও বাঁশখালা সহ প্রতিটি ওয়ার্ডেই জলাবদ্ধতার ফলে নাগরিক জীবন অতিষ্ঠ। এসব এলাকায় হালকা থেকে ভারী বৃষ্টি হলেই জনচলালে নাগরিক জীবন অতিষ্ট হয়ে পড়ে। 

মঙ্গলবার সকালে বৃষ্টির পানিতে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হওয়ায় উপজেলা চত্তরে সেবা নিতে আসা লোকজনকে হাটু পানিতে পা টেনেটেনে অফিসে ডুকে অতিষ্ট হয়ে কর্মসম্পাদন করতে দেখা গেছে। পৌর সভার নূন্যাতম সেবাদানে ব্যার্থতার ফলেই পৌর নাগরিকরা জলাবদ্ধতায় অতিষ্ঠ হয়ে  সুষ্ট ভাবে ঘর থেকে বের হতে পারছেন না। পৌর শহরের বাসিন্দা বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ফারুক আহমদ চৌধুরী জানান পৌর কর্তৃপক্ষের উদাসিনতায় শহরে সড়ক বাতি নেই, সামান্য বৃষ্টি হলেই জলাবদ্ধতায় পুরু শহর ডুবুডুবু অবস্থায় নাগরিক জীবন অতিষ্ঠ, বাশখালা মহল্লার বাসিন্দা শামছু মিয়া জানান আমরা শুধু পৌর কর দিয়ে যাচ্ছি কিন্তু আমাদের ওয়ার্ডে চোখে পড়ার মত কোন উন্নয়ন কাজ হচ্ছে না। এ ব্যাপারে পৌর মেয়র আবুল কালাম চৌধুরীর সাথে আলাপ করলে তিনি জানান লোকজন পৌর কর্তৃ ক্ষের অনুমোদন ছাড়াই যে যার ইচ্ছে মত বাসাবাড়ি, ঘর দোয়ার নির্মান করায় শহরে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। নাগরিকরা সচেতন হলে এ সমস্যা থাকবে না।