Opu Hasnat

আজ ২৩ অক্টোবর বুধবার ২০১৯,

ব্যাটিং ব্যর্থতায় বাংলাদেশের স্বপ্ন ভঙ্গ খেলাধুলা

ব্যাটিং ব্যর্থতায় বাংলাদেশের স্বপ্ন ভঙ্গ

সাকিব আল হাসান ও শেষ দিকে মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন ছাড়া অন্যদের ব্যাটিং ব্যর্থতায় বিশ্বকাপে আজকের ম্যাচে ভারতের কাছে ২৮ রানে হেরে এবারের আসর থেকে বিদায় নিলো বাংলাদেশ। সেইসাথে আবারও স্বপ্ন ভঙ্গের বেদনায় কাঁদলো টাইগার ভক্তরা। এদিকে, বাংলাদেশকে হারিয়ে সেমিফাইনালে জায়গা করে নিলো ভারত।

মঙ্গলবার বার্মিংহামের এডজবাস্টনে ডু-অর-ডাই ম্যাচে টস ভাগ্যে জিততে পারেননি বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্বান্ত ভারতের। ব্যাট হাতে নেমে বাংলাদেশ বোলারদের দেখেশুনে খেলেন ভারতের দুই ওপেনার ইনফর্ম রোহিত শর্মা ও লোকেশ রাহুল।

বাংলাদেশের মিডিয়াম পেসার সৌম্য সরকারের বলে লিটন দাসকে ক্যাচ দিয়ে আউট হন রোহিত। ৭টি চার ও ৫টি ছক্কায় ৯২ বলে ১০৪ রান করেন তিনি। ৩০তম ওভারের দ্বিতীয় বলে দলীয় ১৮০ রানে রোহিত-রাহুলের জুটি ভাঙেন সৌম্য। রোহিতের বিদায়ের কিছুক্ষণ পর থামতে হয় রাহুলকেও। বাংলাদেশের পেসার রুবেল হোসেনে অফ-স্টাম্পের সামন্য বাইরের বলকে কাট করতে গিয়ে উইকেটে পেছনে ক্যাচ দেন রাহুল। ডান-দিকে ঝাপিয়ে পড়ে দারুন এক ক্যাচ নেন মুশফিকুর রহিম। রাহুল করেন ৭৭ রান। ৩৯তম ওভারে ভারত শিবিরে জোড়া আঘাত হানেন বাংলাদেশের কাটার মাস্টার মুস্তাফিজুর রহমান। দ্বিতীয় বলে ভারত অধিনায়ক কোহলিকে এবং চতুর্থ বলে হার্ডিক পান্ডিয়াকে তুলে নেন ফিজ। গেল পাঁচ ম্যাচে টানা হাফ-সেঞ্চুরি করা কোহলি এবার করেন ২৭ বলে ২৬ রান। পান্ডিয়াকে রানের খাতাই খুলতে দেননি মুস্তাফিজ। ২ বল মোকাবেলা করে আউট হন পান্ডিয়া। 

ভারতের রানের চাকা দ্রুত ঘুড়ানো ঋশভ পান্থকে সাজঘরে ফেরত পাঠান সাকিব। ৬টি চার ও ১টি ছক্কায় ৪১ বলে ৪৮ রান করেন পান্থ। দলকে ৩শ রানের কোটা অতিক্রম করার দায়িত্ব পান ভারতের সাবেক অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি ও দিনেশ কার্তিক।

কিন্তু শেষদিকে বল হাতে আরও ভয়ঙ্কর হয়ে উঠেন বাংলাদেশের মুস্তাফিজ। কার্তিককে ৮ ও ধোনিকে ৩৫ রানে বিদায় দেন তিনি। ততক্ষণে ভারতের রান তিনশ পেরিয়ে যায়। শেষ ওভারে ধোনি ও মোহাম্মদ সামিকে আউট করে ম্যাচে নিজের ৫ উইকেট পূর্ণ করেন মুস্তাফিজ। এতে ৫০ ওভারে ৯ উইকেটে ৩১৪ রান করে ভারত।

ফিজের বোলিং ফিগার ছিলো ১০ ওভার ১ মেডেন ৫৯ রান ৫ উইকেট। এছাড়াও বাংলাদেশের পক্ষে ১টি করে উইকেট নেন সাকিব-রুবেল-সৌম্য।

জবাবে এক প্রান্তে লড়াই করছিলেন মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। দারুণ ব্যাট করছিলেন। কিন্তু শেষ দিকে দলের কোনো ব্যাটসম্যানই সঙ্গ দিতে না পারায় হার নিয়েই মাঠ ছাড়তে হলো বাংলাদেশকে। ১২ বল আগেই ২৮৬ রানে গুটিয়ে গেল টাইগাররা।

মূলত বড় কোনো জুটি গড়তে না পারায় হারতে হলো টাইগারদের। সঙ্গে উইকেট বিসর্জনের গল্প তো রয়েছেই। একমাত্র পঞ্চাশ রানের জুটিটি এসেছে সপ্তম উইকেটে। তবে সাইফউদ্দিনের আগে এক প্রান্তে দারুণ লড়াই করেছিলেন সাকিব আল হাসান। তাকেও সঙ্গ দিতে পারেননি কেউ।

শেষ পর্যন্ত ব্যাট করে ৩৮ বলে ৫১ রানে অপরাজিত থেকেছেন সাইফউদ্দিন। কিন্তু তার লড়াই কেবল পরাজয়ের ব্যবধানই কমিয়েছে। সাকিবের ব্যাট থেকে আসে ৬৬ রান। ভারতের হয়ে দারুণ বোলিং করেছেন জাসপ্রিত বুমরাহ। ৫৫ রানের খরচায় উইকেট পেয়েছেন ৪টি। ৬০ রানের খরচায় ৩টি উইকেট নিয়েছেন হার্দিক পান্ডিয়া।