Opu Hasnat

আজ ১৬ জুলাই মঙ্গলবার ২০১৯,

মুন্সীগঞ্জে সন্ত্রাসী হামলায় বাড়ীঘর ভাংচুর, লুটপাট : আহত ২০ মুন্সিগঞ্জ

মুন্সীগঞ্জে সন্ত্রাসী হামলায় বাড়ীঘর ভাংচুর, লুটপাট : আহত ২০

মুন্সীগঞ্জের চরাঞ্চলের মোল্লাকান্দি ইউনিয়নের নোয়াদ্ধা ঢালি কান্দি সহ কয়েকটি গ্রামের শতাধিক সন্ত্রাসী বাহিনি মোল্লাকান্দি ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক আজাহার মোল্লার নেতৃত্বে মুন্সীকান্দি গ্রামবাসীদের উপর দফায় দফায় হামলা চালিয়েছে। শনিবার সন্ধ্যার পরপর অতর্কিত এ হামলার ঘটনা ঘটে। এতে আজাহার মোল্লার লোকজন বিপুল পরিমান ককটেল বিস্ফোরন ও গুলি ছোরে মুন্সীকান্দি গ্রামের ইউপি সদস্য স্বপনের বসতবাড়ীসহ ৩০টি বাড়িতে চালানো হয় ব্যাপক ভাংচুর ও লুটপাট করে ওই সন্ত্রাসী বাহিনি। এতে প্রায় দুই শতাধিক ককটেল বিস্ফোরণেন ঘটনা ঘটে। এ সময় মুন্সীকান্দির দুই জন গুলিবিদ্ধসহ ২০ জন আহত হয়েছে ও ৩০ টি বসতঘরে ব্যাপক ভাংচুর  চালানো হয়েছে। এসময় স্বর্ণালংকার, নগত টাকা, টিভি ও মোবাইল ফোন লুটের অভিযোগ পাওয়া গেছে।  আহতদের মধ্যে রফি ঢালি ৫০কে  গুলিবিদ্ধ অবস্থায় মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।  অপর আহতদের মধ্যে স্বপন মেম্বারে স্ত্রী সুনিয়া বেগম (৩০), শাশুরি বিউটি বেগম (৫৫), ও ছোট বোন লিপি (৩২), প্রতিবন্ধী নার্গিস বেগম ৬০সহ আহতদের অন্যান্যদের বেসরকারী বিভিন্ন ক্লিনিকে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

সরেজমিনে জানা গেছে, মোল্লাকান্দি ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক আজাহার মোল্লা ও স্থানীয় বিএনপি নেতা উজির ঢালি ও সাথে মোল্লাকান্দি ইউপি সদস্য ও আওয়ামী লীগ নেতা স্বপনের ড্রেজারের চাঁদা নিয়ে দীর্ঘদিন যাবত বিরোধ চলে আসছিলো । এ বিরোধের জের ধরে এই সংর্ঘষের ঘটনা ঘটে বলে মুন্সীকান্দি গ্রামবাসীরা জানান। এই সংঘর্ষের ঘটনায় মোল্লাকান্দি ইউনিয়ন জুড়ে দু’পক্ষের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। 

এ প্রসঙ্গে ইউপি সদস্য স্বপন মেম্বার জানান, বিএনপি নেতা উজির আহম্মেদ লোকজন আমার বাড়ীতে হামলা চালিয়ে ২০ থেকে ৩০টি বাড়ী ঘরে ভাংচুর ও লুটপাট করেছে । ককটেল হামলা ও গুলি চালিয়ে ব্যাপক ক্ষয় ক্ষতি করেছে। 

মুন্সীকান্দির গ্রামবাসী আরো জানান ড্রেজার ব্যবসা ও এলাকার আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে নোয়াদ্দা গ্রামের ৭ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মেজবাউদ্দিন আহম্মেদ ও মোল্লাকান্দি ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক আজাহার মোল্লার এর সাথে মুন্সীকান্দি গ্রামের স্বপন মেম্বারের বিরোধ চলে আসছিলো। পরে সন্ধায় নোয়াদ্দা গ্রামের লোকজন স্বপন মেম্বারের বাড়ীতে হামলা চালিয়ে বাড়ীঘর ভাংচুর, ককটেল বিস্ফোরণ ও গুলি চালিয়ে বসত ঘরের ভিতর ঢুকে লুটপাট চালায়।  

পরে রোববার বিকেলে মোল্লাকান্দি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মহসিনা হক কল্পনার নেতৃত্বে মুন্সীকান্দির গ্রামের শতাধিক গ্রামবাসীদের নিয়ে সন্ত্রাসী আওয়ামীলীগ নেতা আজাহার মোল্লা ও তার সন্ত্রাসী বাহিনির সন্ত্রাসী হামলা-কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে বিচার দাবি করে মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রশাসক কার্যালয় থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করে জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সামনে এসে জড়ো হয়ে মানববন্ধন করেন। পরে জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান সন্ত্রাসীদের আইনগত উপযুক্ত শাস্তির ব্যবস্থা করবেন বলে আস্বস্ত করলে বিক্ষোদ্ধ গ্রামবাসী মানববন্ধন তুলে নেন।

এদিকে, মুন্সীকান্দির গ্রামবাসীরা মুন্সীগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মহিউদ্দিনের সাথে দেখা করে মোল্লাকান্দি ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক আজাহার মোল্লা ও তার সন্ত্রাসী বাহিনির পৈশাসিক হামলার বিবরন জানান। পরে মুন্সীগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মহিউদ্দিন আহমেদ হামলার স্বীকার মুন্সীকান্দির গ্রামবাসীদের জানান, সন্ত্রাসীরা যেই হোক তাদের বরিুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে তিনি সর্বপ্রকার সহযোগীতা করবেন।

প্রসঙ্গত, এ সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় মুন্সীগঞ্জ সদর থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।