Opu Hasnat

আজ ৮ ডিসেম্বর রবিবার ২০১৯,

বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয় ঘিরে ছাত্রদলের বহিষ্কৃতদের বিক্ষোভ রাজনীতি

বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয় ঘিরে ছাত্রদলের বহিষ্কৃতদের বিক্ষোভ

১২ নেতার বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার ও সংগঠনের সদস্যপদের জন্য বয়সসীমা প্রত্যাহারের দাবিতে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ করছেন ছাত্রদলের বিক্ষুব্ধরা।
বয়সসীমা নির্ধারণ না করে ধারাবাহিক কমিটি গঠনের দাবিতে চলমান কর্মসূচির অংশ হিসেবে আজও নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নিয়েছেন তারা। দাবী না মানা হলে লাগাতার আন্দোলনের হুশিয়ারি দিয়েছেন তারা। আগামী ১৫ জুলাই ছাত্রদলের কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

এর আগে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে কমিটির পক্ষে ছাত্রদল নেতাকর্মীরা অবস্থান নেন। পরবর্তী সময় দুপুর পৌনে ১২টার দিকে বিক্ষুব্ধ কর্মীরা মিছিল সহকারে নয়াপল্টন কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে তাদের সামনে আসলে কমিটির পক্ষের নেতাকর্মীরা কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের ভেতরে চলে যায়। তারপর থেকেই ছাত্রদলের বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা তাদের অবস্থান কর্মসূচি শুরু করে।

আগামী ১৫ জুলাই ছাত্রদলের কাউন্সিলের জন্য ভোট গ্রহণের যে তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে তা বাতিলের দাবি জানিয়েছেন তারা। একই সঙ্গে আন্দোলনকারীদের যাদের বহিষ্কার করা হয়েছে অবিলম্বে তাদের বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহারের দাবি জানানো হয়।

সোমবার (২৪ জুন) দুপুরে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন শেষে বিক্ষুদ্ধ ছাত্রদল নেতাদের পক্ষে এ দাবি জানান ওমর ফারুক মুন্না।

এই ছাত্রদল নেতা বলেন, ‘দলের হাইকমান্ডের প্রতি আহ্বান থাকবে আমাদের দাবি মেনে নিয়ে পুনঃতফসিল ঘোষণা করা হোক। তা না হলে আমাদের আন্দোলন অব্যাহত থাকবে।’

১২ নেতার বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহারসহ বয়সসীমা তুলে দিয়ে নিয়মিত কমিটির দাবিতে সোমবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সহস্রাধিক নেতাকর্মীর একটি মিছিল নয়াপল্টনে এসে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে দুপুর পর্যন্ত কর্মসূচি পালন করে। বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নিয়ে বিভিন্ন শ্লোগান দিতে থাকেন। 

এসময় তারা কার্যালয়ের কলাপসিবল গেট বন্ধ করে দেন। অন্যদিকে আন্দোলনকারীদের যেকোনও ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা প্রতিহত করতে কার্যালয়ের ভেতরে ছাত্রদল, যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দল ও মহানগর বিএনপির কয়েকশ নেতাকর্মী অবস্থান নেন। কার্যালয়ের আশপাশেও অবস্থান নেন ছাত্রদল ও বিএনপির অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা।  

আন্দোলনকারীরা কার্যালয়ের গেট আটকানোর সময় দু’পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা তৈরি হয়। ভেতরে অবস্থানরত ও বাইরের আন্দোলনকারী ছাত্রদল নেতাকর্মীদের মধ্যে টানাহেঁচড়ার ঘটনাও ঘটে।

পরে দুপুরে পুনঃতফসিল দাবি করে কর্মসূচি অব্যাহত রাখার ঘোষণা দেন বিক্ষুদ্ধ ছাত্রদল নেতারা। আগামীকাল মঙ্গলবার আবারও নয়াপল্টনে কর্মসূচি পালন করার কথা জানানো হয় বিক্ষোভ থেকে। 

এই বিভাগের অন্যান্য খবর