Opu Hasnat

আজ ২৬ আগস্ট সোমবার ২০১৯,

যাদুকাটা নদীর বালুমহালের কোয়ারী দখল নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ২০ সুনামগঞ্জ

যাদুকাটা নদীর বালুমহালের কোয়ারী দখল নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ২০

সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার যাদুকাটা নদীর লাউড়েরগড় এলাকার বালুচরের কোয়ারী দখল নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষে ২০ জন আহত হয়েছে। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় লাউড়েরগড় বালুচরে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। 

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বাদাঘাট ইউনিয়নের ডালারপাড় গ্রামের মৃত ইউনুছ মিয়ার ছেলে মোঃ জামাল উদ্দিন গংদের সাথে একই ইউনিয়নের ছড়ারপাড় গ্রামের মাদু মিয়ার ছেলে আক্কাছ আলী গংদের লাউড়েরগড় এলাকায় বালুর কোয়ারীর দখল নিয়ে প্রথমে কথা কাটাাকটি হয়। এরই এক পর্যায়ে উভয়পক্ষের লোকজন দেশীয় দাড়াঁলো রামদা ডেগার বল্লমসহ বিভিন্ন ধরনের অন্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে উভয়পক্ষের কমপক্ষে ২০ জন আহত হন। আহতরা বলেন আক্কাছ আলীর পক্ষে আক্কাছ আলী, তার ছেলে ইউনুছ আলী (৩৫), ওহেদ আলী (২৫), জাহেদ আলী (২৫), লাউড়রেগড় গ্রামের আব্দুল হামিদের ছেলে মেদর আলী (৩৮), তার সহোদর আব্দুল কুদ্দুছ (৫৫)। বাকি আহতদের নাম ও পরিচয় এখনো জানা সম্ভব হয়নি। আহত সবাই গুরুতর হওয়ায় তাদেরকে সুনামগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। 

উল্লেখ্য, গত কয়েক মাস ধরে প্রশাসনের অনুমতি ছাড়াই  এই যাদুকাটা নদীর লাউড়েরগড়, ঘাগটিয়া, বিন্নাকুলি, গড়খাটি ও ফাজিলুপুর এলাকায় এই গ্রুপগুলো কয়েকটি ভাগে বিভক্ত হয়ে অবৈধভাবে প্রতিদিন  এখানে শত শত ড্রেজার ও বোমা মেশিন লাগিয়ে লক্ষ লক্ষ টাকার বালু ও পাথর উত্তোলন করে নিয়ে আসছিল। ইতিমধ্যে অবৈধভাবে এই বালু মহাল থেকে  বালু ও পাথর উত্তোলন করে একেকজন আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ বণে গেছেন। এই বালু মহালের দখল নিয়েই মূলত আজকের  এই সংঘর্ষ।  

এ ব্যাপারে তাহিরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ  মোঃ আতিকুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান খবর পেয়ে পুলিশকে ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে।