Opu Hasnat

আজ ২৬ আগস্ট সোমবার ২০১৯,

দুর্গাপুরে একটি ব্রীজের অভাবে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে পর্যটকদের নেত্রকোনা

দুর্গাপুরে একটি ব্রীজের অভাবে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে পর্যটকদের

জেলার দুর্গাপুর সদর ইউনিয়নের উত্তর ফারংপাড়া বটতলা গ্রামে ১টি ব্রীজের অভাবে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে এলাকাবাসী ও পর্যটকদের। এ বিষয়টি স্থানীয় জনপ্রতিনিধিগন দেখেও না দেখার ভান করছেন বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর।

এ বিষয়ে মঙ্গলবার সরেজমিনে দেখাগেছে, উত্তর ফারংপাড়া গ্রামে একমাত্র বিজয়পুর ভবানীপুর সিমান্তে চলাচলের একমাত্র রাস্তার উপর নির্মিত ব্রীজটি দীর্ঘদিন ধরে ভেঙ্গে অকেজো থাকায় জনচলাচলের চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। দুর থেকে আসা পর্যটকদের চলাচলেও হচ্ছে নানা অসুবিধা। সীমান্ত রক্ষীদের চলাচলেও হিমসিম খেতে হচ্ছে প্রতিনিয়ত। এলাকাবাসীদের দাবী এ ব্রীজটি নির্মাণে নানা ক্রুটি ছিল বলেই অল্প ক’দিনের মধ্যেই উত্তরের অংশের দুটি পিলার ভেঙ্গে পড়ায় যোগাযোগ বিছিন্ন হয়ে যায়। বর্ষা মৌসুমে স্থানীয়দের নানা কষ্ট সহ্য করে পার হতে হয় এ রাস্তা। তাঁদের দাবী, আগত বর্ষার পূর্বেই যেন এ ব্রীজের কাজ পুণঃনির্মান শুরু করা হয় এ ব্যাপারে দুর্যোগ ও ত্রাণ মন্ত্রনালয়ের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন স্থানীয়রা। 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় বাসিন্দা বলেন, আমরা কি পরিমান কষ্ট করছি এই ব্র্রীজটির জন্যে তা স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান চেয়েও দেখে না। বেশ কয়েকবার টিআর বরাদ্দ দেয়ার পরেও কোন কাজ হয়নি। উদ্যোগ নিলেই এ রাস্তাার উপর ব্রীজটি নির্মাণ করা সম্ভব।

স্থানীয় ইউপিচেয়ারম্যান শাহিনুর আলম সাজু বলেন, ব্রিজটি নিার্মাণের ব্যাপারে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের সাথে কথা হয়েছে, বরাদ্দ পেলেই কাজ শুরু করা হবে।

ব্রীজ নির্মাণের ব্যাপারে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জান্নাতুল ফেরদৌস ঝুমা তালুকদার বলেন, ইতোমধ্যে আমি খোঁজ নিয়েছি, ব্রীজটি নির্মাণ করা অত্যন্ত জরুরী এবং দ্রুত নির্মানে উদ্যোগ নেওয়া যায় সে ব্যবস্থা করা হবে। আগামী বরাদ্দে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে কাজ শুরুর দরপত্র আহবান করা হবে।