Opu Hasnat

আজ ১৯ এপ্রিল শুক্রবার ২০১৯,

পাইকগাছায় বৃদ্ধার বাড়ীতে হামলা ও ভাংচুর, আটক ৪ খুলনা

পাইকগাছায় বৃদ্ধার বাড়ীতে হামলা ও ভাংচুর, আটক ৪

পাইকগাছায় দুর্বৃত্তরা হতদরিদ্র বৃদ্ধার বসতবাড়ীতে হামলা চালিয়ে বসতঘর ও বিভিন্না মালামাল ভাংচুর করে ব্যাপক ক্ষতিসাধন করেছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ৪ হামলাকারীকে আটক ও তাদের ব্যবহৃত ৪টি মটরসাইকেল উদ্ধার করেছে।

থানা পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানাগেছে, উপজেলার সিলেমানপুর গ্রামের হতদরিদ্র বৃদ্ধা সখিনা বেগমের সাথে বসতবাড়ীর ২৫ শতক জমি নিয়ে প্রতিবেশী ভাই আব্দুল গাজীর সাথে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। এ নিয়ে মিমাংসার জন্য কয়েক দফা শালিশী বৈঠক হলেও কোন সমাধান মেলেনি। প্রতিবেশীদের অভিযোগ বৃদ্ধার ৩ ছেলে যশোরে ইটের ভাটায় কর্মরত থাকাবস্থায় শনিবার সকাল ৯টার দিকে আব্দুল গাজীর ছেলে ইউসুপ-ইউনুছের নেতৃত্বে বহিরাগত কয়েকজন দুর্বৃত্ত সখিনার বসতবাড়ীতে হামলা চালায়। এ সময় তারা সখিনাকে মারপিট করে বেঁধে রেখে বসতঘর, ভাংচুর ও বিভিন্ন মালামাল তছনছ করে। এছাড়া তারা সখিনার এইচএসসি পরীক্ষার্থী পুতনির ব্যবহৃত পোশাক বই-খাতা পার্শ্বের পুকুরে ফেলে দেয়। 

আহত সখিনা অভিযোগ করেন, হামলাকারীরা আমাকে বেধে রেখে মারপিট করে এবং ভাংচুর করে ব্যাপক ক্ষতিসাধন করে। কলেজ ছাত্রী কেয়া জানান, প্রাইভেট পড়ে বাড়ী ঢুকে দেখি ভাংচুর চলছে, দাদী সখিনার হাত-বাঁধা কান্না কাটি করছে সব কিছুই তছনছ। আমি প্রতিবাদ করলে হামলাকারীরা আমাকে মারপিট করে। খবর পেয়ে থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই আবু সাঈদ, প্রভাষ মিত্র, লিটন অধিকারী সহ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে অভিযান চালিয়ে ইউসুফ গাজী, মোস্তফা, মঞ্জুয়ারা ও হাফিজাসহ ৪ দুর্বৃত্তকে আটক করেন এবং তাদের ব্যবহৃত ৪টি মটরসাইকেল উদ্ধার করেন। এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টেরপেয়ে হামলাকারী অনেকেই পালিয়ে যান। 

ওসি এমদাদুল হক শেখ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, বৃদ্ধার বসতবাড়ীতে হামলার এ ঘটনা অত্যান্ত দুঃখ-জনক। এ ঘটনায় আটক ৪ জন সহ যারা এর সাথে জড়িত রয়েছে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

এই বিভাগের অন্যান্য খবর