Opu Hasnat

আজ ১৮ জুলাই বৃহস্পতিবার ২০১৯,

ব্রেকিং নিউজ

প্রথমবারের মতো আঞ্চলিক ভাষায় ফিরে দেখা’র কবিতা উৎসব শিল্প ও সাহিত্যরংপুর

প্রথমবারের মতো আঞ্চলিক ভাষায় ফিরে দেখা’র কবিতা উৎসব

জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস ও মাদক মুক্ত সমাজ গঠন এবং সোনার বাংলা বিনির্মাণে সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক বিকাশের বিকল্প নেই। সেলক্ষ্যে ফিরে দেখা সাহিত্য পর্ষদ আইডিয়া প্রকাশনের সহযোগিতায় ‘শুদ্ধতার পথে চলি, মানব ধর্মের কথা বলি’ স্লোগানে গ্রামীণ জনপদে প্রথমবারের মতো আয়োজন করে ৩৮টি জেলার আঞ্চলিক ভাষায় ‘কবিতা উৎসব।’

শুক্রবার রংপুরের আমাশুকুকরুলের একটি কৃষি খামারে সাহিত্য-সংস্কৃতির চর্চা গ্রামীণ জন জীবনে পৌঁছে দেয়ার লক্ষে এ ব্যতিক্রম অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে বিভিন্ন জেলা শহর থেকে আসা কবিগণ আঞ্চলিক ভাষায় কবিতা পাঠ, আঞ্চলিক ভাষায় কবিতা লেখা প্রতিযোগিতা এবং গানসহ বিভিন্ন কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করেন। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ (হেডকোয়াটার্স) এর অতি: উপ-পুলিশ কমিশনার মোঃ আব্দুল্লাহ্-আল-ফারুক, লেখক রেজাউল করিম মুকুল, প্রফেসর মোহাম্মদ শাহ আলম, নেসকো লিঃ এর তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মোঃ রকিবুল ইসলাম, সাংবাদিক ও লেখক আফতাব হোসেন, লেখক মনোয়ারা বেগম, দেলওয়ার হোসেন রংপুরী,   হারাগাছ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কবি আব্দুর রশীদ,  ছড়াকার ও সাংবাদিক মাহবুব রহমান, উপন্যাসিক রানা মাসুদ, তাসমিন আফরোজ, মিঠা পুকুর উপজেলা শিক্ষা অফিসার আনোয়ারুল ইসলাম, কবি এমাদ উদ্দীন আহমেদ, বাদল রহমান, নূর-ই-হাসিন্দিশা, কামরুন্নাহার রেনু, কবি ও প্রাবন্ধিক মাসুদ মোস্তাফিজ, শিক্ষক মোর্শেদা বেগম, জয়নাল আবেদীন কবি হাই হাফিজ, ইসমত আরা, মোঃ শহিদুল ইসলাম, রাজ্জাক দুলাল, সুনীল সরকার, আবুল খায়ের, আবুর নাসের সিদ্দিক তুহিন, নাসরিন নাজ, আবুল কাশেম, মোয়াজ্জেমা আক্তার, কবি রাজ ইসমাইল মোল্লা, এ এসএম হাবীবুর রহমান, নাজিরা পারভীন, নন্দিতা মুখার্জি, লিনা রহমান, শাহিদা মিলকী, নাহিদা আফরোজ লিজা প্রমুখ।

গ্রামীণ জনপদে যেন সাহিত্য সংস্কৃতি চর্চার বিকাশ ঘটে। একই সাথে জঙ্গিবাদ-সন্ত্রাস ও মাদকমুক্ত এবং ধর্মনিরপেক্ষ সমাজ গঠনে মানুষ যেন সচেতন হয়।সেইলক্ষে একটু আলাদা করে ‘আঞ্চলিক ভাষায় কবিতা উৎসব’। অনুষ্ঠানে প্রায় হারিয়ে যাওয়া আঞ্চলিক ৩৮টি অঞ্চলের ভাষায় কাব্যগ্রন্থ, কবিতা পাঠ, বক্তব্য, প্রতিযোগিতা এবং গানের ও আয়োজন করা হয়। ফিরে দেখার এই কর্মসূচি পর্যায়ক্রমে বিভিন্ন গ্রামীণ জনপদে পালিত হবে।