Opu Hasnat

আজ ১৮ জুলাই বৃহস্পতিবার ২০১৯,

ব্রেকিং নিউজ

খালেদা জিয়ার মুক্ত না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন : শামা ওবায়েদ ফরিদপুর

খালেদা জিয়ার মুক্ত না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন : শামা ওবায়েদ

বিএনপির ঢাকা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক শামা ওবায়েদ ইসলাম রিংকু বলেছেন, বিগত ২৯ ডিসেম্বর রাতে এইদেশে যেভাবে ভোট ডাকাতি হয়েছে তারপরে আর কোনদিন এই সরকারের আমলে সুষ্ঠ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন হওয়া সম্ভব নয়। দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগার থেকে মুক্ত করার জন্য আমরা জাতীয় নির্বাচনে গিয়েছিলাম। সেই নির্বাচন ছিলো বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার আন্দোলনের নির্বাচন। যতোদিন পর্যন্ত বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে পারবো না ততোদিন আমাদের এই আন্দোলন চলবে। এই আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতা থেকে না যাওয়া পর্যন্ত বিএনপির সকল নেতাকর্মীকে মাঠে থাকতে হবে।

বিএনপির সাবেক মহাসচিব, সাবেক মন্ত্রী ও মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক কেএম ওবায়দুর রহমানের ১২তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে নগরকান্দা উপজেলার লস্করদিয়া ইউনিয়নে ওবায়েদ চত্বরে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। 

শামা ওবায়েদ বলেন, ৩০ জানুয়ারী দেশে কোন নির্বাচন হয় নাই। সারা পৃথিবীর কাছে এটি পরিস্কার। বিশ্বের সকল দেশ থেকে ৩০ জানুয়ারীর নির্বাচনের ব্যাপারে তদন্ত করার জন্য প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দেয়া হয়েছে। ওই নির্বাচন যদি সত্যিই সুষ্ঠ হতো তাহলেতো তারা তদন্তের কথা বলতেন না।

নগরকান্দা বিএনপির সাবেক সভাপতি গিয়াসউদ্দিন মন্ডলের সভাপতিত্বে সভায় আরো বক্তব্য দেন ফরিদপুর জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মোদাররেস আলী ঈসা, সাংগঠনিক সম্পাদক রশিদুল ইসলাম লিটন, সহ-সভাপতি শহিদ পারভেজ, জেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক এ্যাড. ঘাবিবুর বহমান হাবিব, জেলা যুবদলের সাবেক সভাপতি আফজাল হোসেন খান পলাশ, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের আহ্বায়ক সৈয়দ জুলফিকার হোসেন জুয়েল, মাদারিপুর জেলা বিএনপির সভাপতি আরিফ হাওলাদার, সালথা উপজেলা বিএনপির সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান তালুকদার, নগরকান্দা উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সাইফুর রহমান মুকুল, সহ-সভাপতি হাবিবুর রহমান বাবুল তালুকদার, উপজেলা চেয়ারম্যান সৈয়দ শাহিনুজ্জামান শাহিন, পৌর বিএনপির সভাপতি আসাদুজ্জামান আসাদ, যুবদলের কেন্দ্রিয় নেতা হাফিজুর রহমান শরীফ, জেলা যুবদলের সভাপতি রাজিব হোসেন, সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গির হোসেন, বিএনপি নেতা রফিকুজ্জামান অনু, উপজেলা শ্রমিক দলের সভাপতি মাসুদ রানা প্রমুখ।

এর আগে নেতৃবৃন্দ মরহুম কেএম ওবায়দুর রহমানের কবরে পুস্পমাল্য অর্পণ করেন এবং রুহের মাগফিরাত কামনা করে মোনাজাত করেন।