Opu Hasnat

আজ ১৮ জুলাই বৃহস্পতিবার ২০১৯,

ব্রেকিং নিউজ

পদ্মা সেতুর নবম স্প্যান বসছে শুক্রবার মুন্সিগঞ্জ

পদ্মা সেতুর নবম স্প্যান বসছে শুক্রবার

টেকনিক্যাল সমস্যার কারণে পদ্মা সেতুর নবম স্প্যান (সুপার স্ট্রাকচার) বসানোর কাজ পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। স্প্যান ‘৬ডি’ ৩৪ ও ৩৫ নম্বর পিলারের ওপর বসানোর কাজ বৃহস্পতিবার (২১মার্চ) সকালে শুরু হয়। তবে টেকনিক্যাল সমস্যার কারণে স্প্যানটি শুক্রবার সকালে বসানো হবে বলে জানিয়েছেন পদ্মা সেতুর সহকারী প্রকৌশলী হুমায়ুন কবির। 

পদ্মা সেতুর সহকারী প্রকৌশলী হুমায়ুন কবির জানান, তিয়ান-ই ক্রেনে করে ৬ডি স্প্যান ৩৪ ও ৩৫ নম্বর পিলারের কাছে গতকাল (বুধবার) আনা হয়। স্প্যানটি পিলারে উঠাতে হলে ক্রেনটিকে ভালো করে নোঙর করে নিতে হয়। এজন্য ক্রেনটি আটদিক থেকে নোঙর করা হয়। এরপরও নদী এলাকায় যেকোনও জলযান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা থাকে। গতকাল রাতে এ এলাকায় কিছুটা ঝড়-বৃষ্টির কারণে ক্রেনের একটি নোঙর ছিঁড়ে যায়, যা আজ সকালে আমাদের নজরে আসে। এখন পুনরায় নোঙর ঠিক করে ক্রেনটি ৩৪ ও ৩৫ নম্বর পিলার বরাবর পজিশন করতে বিকাল ৩টার মতো বেজে যাবে। যদি আবহাওয়া ভালো থাকে তাহলে শুক্রবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে পিলারে স্প্যান ( ৬ডি) উঠানো হবে।

স্প্যানটি বসানো হলে সেতুর জাজিরা প্রান্তে দৃশ্যমান হবে ১২০০ মিটার ও মাওয়া প্রান্তে দৃশ্যমান হবে ১৫০ মিটার। সব মিলিয়ে সেতুর ১৩৫০ মিটার দৃশ্যমান হবে।

বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্যরে স্প্যানটিকে ভাসমান ক্রেনের সাহায্যে স্প্যান বসানোর কার্যক্রম শুরু হয়। এর আগে বুধবার সকালেই মাওয়া কন্সট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে জাজিরা প্রান্তে আনা হয় স্প্যানটি।

প্রসঙ্গত, যে ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এ সেতুতে ৪২টি পিলারের ওপর বসবে ৪১টি স্প্যান। পদ্মা বহুমুখী সেতুর মূল আকৃতি হবে দোতলা। কংক্রিট ও স্টিল দিয়ে নির্মিত হচ্ছে এ সেতুর কাঠামো। জাজিরা প্রান্তে সেতুর ৩৫, ৩৬, ৩৭, ৩৮, ৩৯, ৪০, ৪১, ৪২ পিলারে সাতটি স্প্যান বসানো হয়েছে। আর মাওয়া প্রান্তে ৪ ও ৫ নম্বর পিলারে একটি অস্থায়ী স্প্যান রাখা হয়েছে।