Opu Hasnat

আজ ২৫ মে শনিবার ২০১৯,

চুয়াডাঙ্গার দুজন সন্ত্রাসীর গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার চুয়াডাঙ্গা

চুয়াডাঙ্গার দুজন সন্ত্রাসীর গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার


চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলার উথলী বেগমপুর মোড়ের ঝিঁঙেখালী মাঠে ইমরান হোসেন (৩২) ও একই উপজেলার বকুন্ডিয়া গ্রামের মাঠে লিটু (২৮) নামে  দুজন সন্ত্রাসীর গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। পুলিশ বৃহস্পতিবার সকালে লাশ দুটি উদ্ধার করে। 

প্রত্যক্ষদর্শী সুত্র জানা যায়, জীবননগর উপজেলার উথলী বেগমপুর মোড়ের ঝিঁঙেখালী মাঠে এদিন সকালে একটি গুলিবিদ্ধ লাশ পড়ে থাকতে দেখে ওই এলাকার লোকজন পুলিশকে খবর দেয়। জীবননগর থানা পুলিশ সেখানে পৌছানোর পর লাশ উদ্ধার করেন। অন্যদিকে এ ঘটনার কিছুক্ষণ পর পুলিশ এলাকাবাসী সুত্রে উপজেলার হাসাদহ ই্উনিয়নের বকুন্ডিয়া মাঠে আরো একটি গুলিবিদ্ধ লাশের খবর পায়। পুলিশ প্রথমদিকে লাশের পরিচয় না পেলেও সকাল দশটার পর পরই অজ্ঞাত ওই দুই লাশের পরিচয় জানতে পারে।

জীবননগর থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) ফেরদৌস ওয়াহিদ বলেন,জীবননগর উপজেলার উথলী বেগমপুর মোড়ের মাঠে উদ্ধারকরা লাশের পরিচয়ে জানান, তার নাম ইমরান হোসেন। ইমরান হোসেন জেলার আলমডাঙ্গা উপজেলা শহরের অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ কনস্টেবল আব্দুর রহমানের ছেলে। অন্যদিকে মহেশপুর উপজেলার অন্তগত বকুন্ডিয়া মাঠে উদ্ধারকরা লাশের পরিচয় হলো, তার নাম লিটু (২৮) সে আলমডাঙ্গা উপজেলার বাদেমাজু গ্রামের আনিসুর রহমানের ছেলে বলে স্থানীয় সুত্র থেকে জানা গেছে। লিটুর লাশ জীবননগর উপজেলার বকুন্ডিয়া মাঠে পাওয়া গেলেও ঘটনাস্থলটি ঝিনাইদহের মহেশপুর থানার অন্তর্গত হওয়ায় লাশ মহেশপুর থানা পুলিশ উদ্ধার করে নিয়ে যায়।

আলমডাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ মুন্সী আসাদুজ্জামান জানান, গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত ইমরানের বিরুদ্ধে অস্ত্র, মাদক ও ডাকাতিসহ ১৩ টি ও তারই সহযোগী লিটুর বিরুদ্ধে ৫টি মামলা রয়েছে। এ দুজনই সন্ত্রাসী কর্মকান্ড ছাড়াও বিভিন্ন অপকর্মের সঙ্গে জড়িত ছিলো। এরা কিভাবে গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হয়েছে তার কারন জানা যায়নি। তাছাড়া এদের পরিবারের পক্ষ থেকে আলমডাঙ্গা থানায় কোন নিখোঁজ ডাইরি করা হয়নি বলেও পুলিশ আরো জানায়।

এই বিভাগের অন্যান্য খবর