Opu Hasnat

আজ ২৩ সেপ্টেম্বর সোমবার ২০১৯,

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দকযুদ্ধে’ ২ ডাকাত নিহত কুষ্টিয়া

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দকযুদ্ধে’ ২ ডাকাত নিহত

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দকযুদ্ধে’ ২ ডাকাত নিহত হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ২টি এলজি গান, ৪ রাউন্ড গুলি ও একটি রামদা উদ্ধার করেছে। এ ঘটনায় ২ পুলিশ আহত হয়েছেন। 

আজ মঙ্গলবার ভোরে উপজেলার ডাংমড়কা-আদাবাড়িয়া সড়কের কাটাদহ মাঠের মধ্যে ‘বন্দুকযুদ্ধের’ এ ঘটনা ঘটে।

দৌলতপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. নজরুল ইসলাম জানান, উপজেলার ডাংমড়কা-আদাবাড়িয়া সড়কের কাটাদহ মাঠের মধ্যে দু’দল ডাকাত অভ্যন্তরীন কোন্দলে নিজেদের মধ্যে গোলগুলিতে লিপ্ত হয়েছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে দৌলতপুর থানার এস আই সাইফুলের নেতৃত্বে পুলিশের টহল টিম ঘটনাস্থলে অভিযান চালায়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ডাকাত দল পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। 

এসময় নিজেদের জান-মাল রক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি চালালে ‘বন্দুকযুদ্ধের’ একপর্যায়ে ডাকাতরা পালিয়ে যায়। ঘটনাস্থল থেকে ২জন ডাকাতকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে দৌলতপুর উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাদের মৃত ঘোষান করেন। পরে খোঁজখবর নিয়ে পুলিশ নিহত ডাকাতদের পরিচয় জানান। নিহতরা গড়ুড়া গ্রামের মছের উদ্দিনের ছেলে মুফাজ্জেল হোসেন ওরফে মুফা (৪২) এবং কৈপাল গ্রামের আব্দুর রহিমের ছেলে মহাবুল (৪০)। এ ঘটনায় দৌলতপুর থানার এসআই আসাদুল ও কনষ্টেবল জিয়া আহত হয়েছেন। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ২টি এলজি গান, ৪ রাউন্ড গুলি ও একটি রামদা উদ্ধার করেছে। ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ডাকাতদের বিরুদ্ধে দৌলতপুর থানায় ডাকাতি ও ছিনতাইসহ বিভিন্ন অপরাধের একাধিক মামলা রয়েছে। নিহতদের সুরতহাল শেষে ময়নাতদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরন করা হয়েছে।