Opu Hasnat

আজ ১৯ নভেম্বর মঙ্গলবার ২০১৯,

কুষ্টিয়া ও মুন্সিগঞ্জে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ২ সারাবাংলা

কুষ্টিয়া ও মুন্সিগঞ্জে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ২

কুষ্টিয়া ও মুন্সিগঞ্জে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই জন নিহত হয়েছেন। এদের মধ্যে কুষ্টিয়ায় নিহত ব্যক্তি মাদক ব্যবসায়ী ও মুন্সিগঞ্জে নিহত ব্যক্তি জলদস্যু বলে জানিয়েছে পুলিশ।

কুষ্টিয়া
কুষ্টিয়ায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নাজমুল মালিথা (৪০) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। পুলিশের দাবি তিনি একজন চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী।

শনিবার দিবাগত রাত ১টার দিকে সদর উপজেলার হাটশ হরিপুর ইউনিয়নের শালদহ এলাকার গড়াই নদীর চরে এ ঘটনা ঘটে। নিহত নাজমুল কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার তারাগুনিয়া এলাকার মিরাজ মালিথার ছেলে।

ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ ৬শ পিস ইয়াবা, ১টি বিদেশি পিস্তল, ২ রাউন্ড পিস্তলের গুলি ও ২টি ম্যাগজিন উদ্ধার করেছে। বন্দুকযুদ্ধের ঘটনায় পুলিশের ৪ সদস্য আহত হয়েছেন বলেও পুলিশ দাবি করছে।

কুষ্টিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাসির উদ্দিন জানান, গড়াই নদীর চরে দু’দল মাদক ব্যবসায়ীর মধ্যে গোলাগুলি চলছে এমন সংবাদে পুলিশের একটি টিম সেখানে অভিযানে যায়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে দু’পাশ থেকে মাদক ব্যবসায়ীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। জবাবে পুলিশও পাল্টা গুলি ছুড়লে তারা পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ গুরুতর আহত অবস্থায় নাজমুলকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

পুলিশের দাবি এ ঘটনায় কুষ্টিয়া মডেল থানার এসআই রাশেদ, এসআই আতিকুল ইসলাম, এএসআই কামরুজ্জামান ও কনস্টেবল ইমরান হোসেন আহত হয়েছেন। নিহত নাজমুলের বিরুদ্ধে দৌলতপুর থানায় একাধিক মামলা রয়েছে বলেও জানায় পুলিশ।

মুন্সিগঞ্জ
মুন্সিগঞ্জে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ জলদস্যু ও ৬ মামলার আসামি হুমায়ূন (৩০) নিহত হয়েছেন।

শনিবার দিবাগত রাত ২টায় ডাকাতি মামলায় গ্রেফতার হুমায়ূনকে নিয়ে অস্ত্র উদ্ধারে যায় সদর থানা পুলিশ। এ সময় মুন্সিগঞ্জের মহাকালি ইউনিয়নের তালেশ্বর ব্রিজের নিচে আগে থেকে ওৎ পেতে থাকা হুমায়ূন বাহিনীর ডাকাত সদস্যরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি করে হুমায়ূনকে ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে। এ সময় পুলিশ পাল্টা গুলি চালায়। এতে হুমায়ূন গুলিবিদ্ধ হন। তাকে হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

মুন্সিগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আলমগীর হোসাইান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জনান, ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, ৩ রাউন্ড গুলি, রামদা ও চাপাতি উদ্ধার করা হয়েছে।

এ ঘটনায় ২ পুলিশ সদস্য এসআই দেবাশীষ কুণ্ডু ও এএসআই মিনহাজ আহত হয়ে মুন্সিগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। নিহত হুমায়ূন মুন্সিগঞ্জ সদর থানার কালিরচর গ্রামের মৃত মোহন বেপারির ছেলে।