Opu Hasnat

আজ ২২ জানুয়ারী মঙ্গলবার ২০১৯,

ঝালকাঠির ৪টি উপজেলায় সম্ভাব্য প্রার্থীদের দৌড়ঝাপ ঝালকাঠি

ঝালকাঠির ৪টি উপজেলায় সম্ভাব্য প্রার্থীদের দৌড়ঝাপ

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের রেশ কাটতে না কাটতেই ঝালকাঠি জেলার ৪টি উপজেলায় বইছে আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনী হাওয়া। নির্বাচন কমিশন আগামী মার্চ মাসে সারাদেশে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পদে নির্বাচনের ঘোষণা দেয়ায় ঝালকাঠির চার উপজেলায় কে কে চেয়ারম্যান প্রার্থী হতে পারে তা নিয়ে আলোচনা শুরু হয়েছে। তবে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের মধ্যে এ নিয়ে ব্যাপক আলাপ আলোচনা শুরু হলেও বিএনপি নেতাকর্মীদের মধ্যে এ নিয়ে তেমন কোন আলোচনা নেই। বিএনপি সমর্থক প্রার্থীদের ধারণা দল থেকে যারা সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছে তারা যদি শপথ না নেয় তাহলে উপজেলা নির্বাচনেও দল অংশ নেবে না। আওয়ামী লীগ  নেতাকর্মীদের আলোচনার কেন্দ্র বিন্দু স্ব স্ব এলাকার সংসদ সদস্য। তাদের ধারণা সংসদ সদস্যরা যাকে মনোনয়ন বা সমর্থন দেবে তিনিই উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হবেন। সম্ভাব্য প্রার্থীরা ইতিমধ্যে তাঁদের নিজস্ব কোরামে আলোচনা করে দলীয় সমর্থন পেতে কর্মপরিকল্পনা নিচ্ছেন। 

ঝালকাঠি সদরে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে যাদের নাম শোনা যাচ্ছে তারা হলেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্নসম্পাদক ও বর্তমান চেয়ারম্যান মো. সুলতান হোসেন খান, জেলা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান সৈয়দ রাজ্জাক আলী সেলিম, জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি খান আরিফুর রহমান, সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়রম্যান সদর ও উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার মোস্তাফিজুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নবগ্রাম ইউপি চেয়ারম্যান মো. মুজিবুল হক আকন্দ ও শেখেরহাট ইউপি চেয়ারম্যান নূরুল আমিন খান সুরুজ, উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও জেলা পরিষদ সদস্য মুহাম্মদ আব্দুর রশীদ, বিএনপি থেকে সদর উপজেলা সভাপতি সরদার এনামুল হক এলিন ও স্বতন্ত্র মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার সাংবাদিক দুলাল সাহা, জাতীয় পার্টি থেকে জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট আনোয়ার হোসেন আনু, সাধারণ সম্পাদক পদে মাহবুবুর রহমান। ভাইস চেয়ারম্যান পদের প্রার্থী হিসেবে বর্তমান ভাইসচেয়ারম্যান ও জেলা যুবলীগের আহবায়ক লিয়াকত আলী খান, যুবলীগ নেতা শামসুল আলম বাবু, অমরেশ রায় চৌধুরী, জাতীয় পার্টি সদর উপজেলা সভাপতি আনোয়ার হোসেন তালুকদারের নাম শোনা গেলেও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে টানা দু’বার নির্বাচিত ভাইসচেয়ারম্যান নারী নেত্রী ইসরাত জাহান সোনালীই এখন পর্যন্ত অপ্রতিদ্বন্দ্বিতা হিসেবে শোনা যাচ্ছে। 

নলছিটি উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে যাদের নাম শোনা যাচ্ছে তারা হলেন, আওয়ামী লীগের উপজেলা সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান চেয়ারম্যান এ্যাড. মো. ইউনুচ লস্কর, জেলা আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের সাধারন সম্পাদক ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাড. জিকে মোস্তাফিজুর রহমান,  উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও কুলকাঠি ইউপি চেয়ারম্যান আখতারুজ্জামান বাচ্চু, উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য সালাহউদ্দিন খান সেলিম, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ডা. এস্কেন্দার আলী, এডভেঞ্চার লঞ্চের মালিক নিজাম উদ্দিন মৃধা, বিএনপির পক্ষ থেকে নলছিটি উপজেলা বিএনপির সভাপতি এ্যাড. আনিসুর রহমান খান হেলাল, কেন্দ্রীয় বাস্তুহারা দলের সাধারণ সম্পাদক ও দপদপিয়া ইউপি সাবেক চেয়ারম্যান খন্দকার ওয়াহিদুল ইসলাম বাদল এবং উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সুবিদপুর ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম শাহীন, জাতীয় পার্টির উপজেলা সভাপতি মোঃ আঃ জলিল গাজী, সাধারন সম্পাদক সুলতান আহমেদ আকন। ভাইসচেয়ারম্যান হিসেবে উপজেলা যুবলীগ আহবায়ক ও বর্তমান ভাইসচেয়ারম্যান দুলাল শরীফ ও মহিলা ভাইসচেয়ারম্যান হিসেবে উপজেলা মহিলালীগ সভাপতি ও বর্তমান মহিলা ভাইসচেয়ারম্যান ডালিয়া নাসরিনের নাম এখন পর্যন্ত শোনা যাচ্ছে। 

রাজাপুর উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে যাদের নাম শোনা যাচ্ছে তারা হলেন, বর্তমান চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ মো. মনিরউজ্জামান মনির, সাবেক চেয়ারম্যান মিলন মাহমুদ বাচ্চু, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. খাইরুল আলম সরফরাজ, বর্তমান মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আফরোজা আক্তার লাইজু। বিএনপির পক্ষ থেকে অপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় দলীয় প্রার্থী উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মো. নাসিম উদ্দিন আকন। জাতীয় পার্টি থেকে কেন্দ্রীয় শ্রমিক পার্টির প্রচার সম্পাদক কামরুজ্জামান খান, উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি কামরুল ইসলাম দুলাল। ভাইসচেয়ারম্যান পদে উপজেলা যুবলীগ সভাপতি ফখরুল ইসলাম, উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি আহসান হাবিব রুবেল, মহিলা ভাইসচেয়ারম্যান পদে উপজেলা যুবমহিলা লীগ সভাপতি ও জেলা পরিষদ সদস্য নাসরিন আক্তার মুন্নির  নাম শোনা গেছে। 

কাঠালিয়ায় চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে যাদের নাম শোনা যাচ্ছে তাদের মধ্যে রয়েছেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান গোলাম কিবরিয়া সিকদার, সাধারন সম্পাদক তরুন সিকদার, জেলা আওয়ামীলীগের শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক ও আমুয়া শহীদ রাজা ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ আবুল বাশার বাদশা, বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান এমাদুল হক মনির। ভাইস চেয়ারম্যান পদে তেমন কেউ আলোচনায় না থাকলেও মহিলা ভাইসচেয়ারম্যান পদে বর্তমান ভাইসচেয়ারম্যান ফাতেমা খানম প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন বলে জানাগেছে। বিএনপির পক্ষ থেকে চেয়ারম্যান পদে উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও সদর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম মিরন সিকদার ও সহসভাপতি আব্দুল জলিল মিয়াজি। ভাইসচেয়ারম্যান পদে উপজেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক জাকির হোসেন কবির।  জাতীয় পার্টি থেকে কেন্দ্রীয় সদস্য হুমায়ুন কবীর, উপজেলা সম্মেলন প্রস্তুত কমিটির আহবায়ক জাকির হোসেন মজলু  প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন বলে শোনা যাচ্ছে।